ঢাকা শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩ আশ্বিন ১৪২৭, ২৯ মুহাররম ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

গোদাগাড়ীর রেলওয়ে বাজার বারুইপাড়া কেন্দ্রীয় ঈদগাহে ঈদুল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত

যেখানে মাদক ব্যবসায়ী, মাদকসেবী সেখানেই প্রতিরোধ, ইসলাম জঙ্গিবাদ সমর্থন করে না -মাও. সইবুর রহমান

গোদাগাড়ী (রাজশাহী) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৫ জুন, ২০১৯, ১১:৫০ এএম

রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার রেলওয়ে বাজার বারুইপাড়া কেন্দ্রীয় ঈদগাহে ঈদুল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি উপেক্ষা করে শত শত মুসল্লি জামাতে অংশ নেন। বুধবার সকাল ৮টায় ঈদের জামাত শুরু হয়। এ নামাজে ইমামতি করেন শাহ সুলতান কামিল মাদ্রাসার অধ্যাপক মাওলানা মো. সইবুর রহমান।

ঈদের এই জামাতে নামাজ আদায় করেন, গোদাগাড়ী উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান মো: ইসহাক, গোদাগাড়ী স্কুল এন্ড কলেজের সাবেক বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ অধ্যক্ষ অলহাজ্ব মো: এনামুল হক, মহিশালবাড়ী মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, গোদাগাড়ী প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ম্:ো হায়দার আলী, গোদাগাড়ী পৌরসভার কাউন্সিলর অব্দুল হাকীম, সাবেক কাউন্সিলর ওসমানসহ শ শ নারী পুরষ, ছাত্রছাত্রী, কিশোর কিশোরী ও বিভিন্ন বয়সী মানুষ।

দীর্ঘ এক মাস সিয়াম সাধনার পর বুধবার সকাল থেকেই গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি উপেক্ষা করেই ঈদের নামাজে নানা বয়সী মুসল্লিদের ঢল নামে। সকাল ৭টা ৩০ মিনিট থেকেই ঈদের এই জামাত ঈদগাহ কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়। আল্লাহু আকবার তাকবির ধ্বনিতে মুখরিত হয়ে উঠে ঈদগাহ ময়দান। নামাজ শেষে খুদবায় মাওলানা মো. সইবুর রহমান বলেন, আজ থেকে ১৪/১৫শ বছর পূর্বে মাদককে মাদককে হারাম করা হয়েছে, এর বিরুদ্ধে ইসলামে কঠোর হুশিয়ারী উচ্চারণ করেছেন। বর্তমান সরকারের প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা মাদক ব্যবসায়ী, মাদক সেবীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করেছেন এবং তার বাস্তব দৃশ্য জনগণ দেখতে পাচ্ছেন এজন্য প্রধান মন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাই।

একজন মাদক ব্যবসায়ী, মাদক সেবী পরিবার, গ্রাম, সমাজ, দেশ, জাতি তথা বিশ্বের জন্য ক্ষতিকারক। পরিবার সমাজ, দেশ, জাতি বিশ্বকে ধ্বাংশ করছে। যেখানে খুন, হত্যা, সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজি সেখানে মাদক জড়িত। ইয়াবা, হেরোইন, ফেনসিডিল, মদসহ মাদক ব্যবসার কারবার যেখানে চলবে যেখানে আমাদের সাবাইকে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে, মাদক সেবী, মাদক ব্যবসায়ীকে আইনর্শংখলা বাহনীর হাতে তুলে দিতে হবে।
জুয়া আমাদের পরিবার সমাজ দেশ ধ্বংশের অন্য একটি মাধ্যম, জুয়া খেলেন যারা তারা জুয়া খেলায় বাড়ী, গাড়ী, জমি, জায়গা, সম্পাদ হেরে যান এমন কি নিজের স্ত্রীকেও হেরে যান। এ জুয়া খেলা থেকে আমাদের বিরত থাকতে হবে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের দেশে জঙ্গিবাদ আরও একটি বড় সমস্যা। ইসলামে কোথায় বলা নাই যে, মানুষকে হত্যা করা যাবে। আমাদের দেশের যুবসমাজকে একটি কুচত্রী মহল ইসলামের ভুল ব্যখ্যা দিয়ে জঙ্গিবাদ সৃষ্টি করছেন, মানুষ হত্যা করছেন আমাদের সবাইকে এ ব্যপারে সজাগ থাকতে হবে। আমার আপনার ছেলে মেয়েদের ইসলামী শিক্ষায় শিক্ষিত করতে হবে। পবিত্র ধর্মগ্রন্থ আল কুরআনকে ভালভাবে বুঝতে হবে।

নামাজ শেষে মোনাজাতে ব্যক্তি, পরিবার দেশ ও জাতি তথা গোটা মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ কামনা করে দোয়া করেন ইমাম মাওলান মো: সইবুর রহমান। এসময় আমিন আমিন ধ্বনিতে কান্নায় ভেঙে পড়ে মহান আল্লাহর কাছে জীবনের সকল গোনাহ মাফ চেয়ে ফরিয়াদ করেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানেরা।

এদিকে সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে অনুরুপ ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে মহিশালবাড়ী মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় মাঠে। ইমামতি করেন আরবী বিভাগের প্রভাষক, মহিশালবাড়ী কেন্দ্রীয় মসজিদের ইমাম মোঃ দুরুল হোদা। এখানে তাড়াতাড়ি জামাত শুরু হওয়ায় অনেক মুসাল্লীগণ নামাজ ধরতে পারেননি বলে অভিযোগ রয়েছে। এ নিয়ে মহিশালবাড়ী উত্তরা ব্যাংক শাখার সামনে কমিটির পক্ষে বিপক্ষে দু পক্ষের মুসাল্লীদের মাঝে তর্ক বিতর্ক ও উত্তেজনায় দেখা দেয়। পরবর্তীতে শান্ত হয়। সকাল ৮ টার সময় শাহ সুলতান (রহ) কামিল মাদ্রাসায় আরও একটি ঈদের জামায়াত অনুষ্ঠিত হয়। মহিশালবাড়ী পুরাতন জামে মসজিদে ঈদের জামায়াত অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা কেন্দ্রীয় ইদগাহ ময়দানে ইমামতি করেন হাফেজ মো: শরিফুল ইসলাম, মাদারপুর ঈদগাহ ময়দানে ইমামতি করেন মাও: গোলাম মুর্ত্তজা, রাজাবাড়ীহাট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ, চাঁইপাড়া হানাফিয়া ঈদগাহ ময়দান, ভাটোপাড়া ঈদগাহ ময়দানসহ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। সব স্থানে সমাজ, দেশ, জাতি তথা গোটা মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ কামনা করে দোয়া করেন ইমামগণ। নামাজ শেষে ধনী-গরিব নির্বিশেষে কোলাকুলি ও মুসাফাহ করেন ধর্মপ্রান মুসলমানেরা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন