ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬, ১৪ সফর ১৪৪১ হিজরী

ইসলামী বিশ্ব

শান্তি আলোচনায় ব্যর্থতার দায় নিয়ে মধ্যস্থতাকারীর পদত্যাগ

সিরিয়ায় সংকট বাড়লো : আলুশের পদত্যাগের পর আরো অনেকেই সংলাপ বর্জনের দিকে ঝুঁকছেন

প্রকাশের সময় : ৩১ মে, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : সিরিয়ায় শান্তি আলোচনায় ব্যর্থতার দায় নিয়ে পদত্যাগ করেছেন প্রধান মধ্যস্থতাকারী মোহাম্মদ আলুশ। তিনি হাই নেগোশিয়েশন্স (এইচএনসি) কমিটির প্রধান হিসাবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। পদত্যাগের পর তিনি আক্ষেপ করে বলেছেন যে আলোচনা করে সিরিয়া সমস্যা কোনো রাজনৈতিক সমাধান দেয়া যাচ্ছে না।
দীর্ঘ পাঁচ বছর ধরে সিরিয়ায় চলমান গৃহযুদ্ধ ও রাজনৈতিক সংকটের ইতি টানার প্রচেষ্টা হিসেবে বিশ্ব সম্প্রদায়ের মধ্যস্ততায় দফায় দফায় আলোচনা চলছে। এখনো পর্যন্ত কোনো সমাধানে আসতে পারেননি সিরিয়ার সরকার ও সরকারবিরোধী প্রতিনিধিরা। সরকারবিরোধীরা শর্ত পূরণের কোনো লক্ষণ দেখছে না। আলোচনা ব্যর্থ বলে সংকট নিরসনের এ প্রচেষ্টা থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন সরকারবিরোধী জোটের অন্যতম প্রধান এক প্রতিনিধি। সিরিয়া শান্তি আলোচনা ব্যর্থ হয়েছে, এমনটাই দাবি করেছেন দেশটির প্রধান বিরোধী জোটের প্রধান প্রতিনিধি মোহাম্মদ আলুশের। শান্তি আলোচনা বর্জন করেছেন তিনি। সিরীয় সরকারবিরোধী জোট হাই নেগোসিয়েশন্স কমিটির (এইচএনসি) হয়ে অংশ নেওয়া আলুশ এ আলোচনায় কোনো রাজনৈতিক চুক্তিতে পৌঁছানো সম্ভব হয়নি বলে জানিয়েছেন। জাতিসংঘের মধ্যস্থায় শুরু হওয়া এ শান্তি আলোচনা সিরিয়ার অবরুদ্ধ এলাকাগুলোর পরিস্থিতিতেও কোনো পরিবর্তন আনতে পারেনি বলে অভিযোগ তার।
গত এপ্রিল থেকে সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় শুরু হওয়া সিরিয়া সরকারের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে আলোচনায় আপাতত ইতি টেনেছে এইচএনসি। আলোচনা এবার কবে শুরু হতে পারে, সে বিষয়ে কোনো তারিখ নির্ধারণ করা হয়নি। আলুশ বলেছেন, তিনদফার আলোচনা ব্যর্থ হয়েছে সরকারি দলের একগুঁয়েমির কারণে। সিরিয়ার জনগণের বিরুদ্ধে আক্রমণ ও বোমা হামলা অব্যাহত রেখেছে সরকারি বাহিনীগুলো। আলুশের আলোচনা বর্জনের পর আরো অনেকেই একই পথ অনুসরণ করতে পারেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এইচএনসির আরেক সদস্য আলোচনা বর্জনের ইঙ্গিত দিয়েছেন বলে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের খবরে জানা গেছে। জেনেভা আলোচনার বিষয়ে দীর্ঘদিন ধরেই হতাশা প্রকাশ করে আসছিল সউদি আরব সমর্থিত এইচএনসি।
গৃহযুদ্ধ বিধ্বস্ত সিরিয়ার অবরুদ্ধ এলাকাগুলোতে ত্রাণ সরবরাহে ঘাটতি, রাজনৈতিক বন্দিদের মুক্তি দেয়ায় ঢিলেমি ও দেশটির বর্তমান রাষ্ট্রপ্রধান বাশার আল-আসাদকে ক্ষমতায় রেখেই রাজনীতিতে পরিবর্তন আনার চেষ্টায় এইচএনসি ক্ষুব্ধ। যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার আনুষ্ঠানিক মধ্যস্ততায় সিরিয়ায় দেশজুড়ে যুদ্ধবিরতি কার্যকর হয়েছে গত ২৭ ফেব্রুয়ারি থেকে। অবশ্য প্রায়ই যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘনের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করছে দুই পক্ষ। ২০১১ সালে সিরিয়ায় শুরু হওয়া গৃহযুদ্ধে আড়াই লাখেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন। পাঁচ বছরের এ যুদ্ধে অভ্যন্তরীণ শরণার্থীতে পরিণত হয়েছেন প্রায় এক কোটি ১০ লাখ মানুষ। বিবিসি, রয়টার্স।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন