ঢাকা, বুধবার ২৪ জুলাই ২০১৯, ০৯ শ্রাবণ ১৪২৬, ২০ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

জাতীয় সংবাদ

দেশ একাত্তর পরবর্তীতে সবচাইতে বড় ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে ঠাকুরগাঁওয়ে মির্জা ফখরুল

ঠাকুরগাঁও জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৭ জুন, ২০১৯, ৫:৪৭ পিএম

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ৭১ পরবর্তীকালে দেশ এখন সবচাইতে বড় ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। তিনি বলেন, টেলিভিশন খুললেই দেখবেন বলা হচ্ছে , বিএনপি’র সংকট, কিন্তু না, আসলে এ সংকট পুরো জাতির। দেশ আজ একনায়কতন্ত্রের বুটের তলায় পিষ্ট। কেউ তাদের কথা বলতে পারছে না, কেউ স্বস্তিতে শ্বাস প্রশ্বাস নিতে পারছেনা। যে আকাংখা নিয়ে মানুষ ৭১ এ মুক্তিযুদ্ধ করেছিল, ৯০ এ গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার লড়াই করেছিল সে গণতন্ত্রের আকাংখা ,স্বাধীনতার স্বপ্ন পদদলিত করে আইন বিচার ব্যবস্থা, অর্থনীতি, সামাজিক নিরাপত্তাসহ গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রের সমস্ত প্রতিষ্ঠানগুলিসহ রাষ্ট্রকে ধ্বংস করে একদলীয় শাসন ব্যবস্থার প্রবর্তন করা হয়েছে। ভবিষ্যতে আওয়ামী লীগকে এ ব্যাপারে জবাবদিহী করতে হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন। 

সোমবার দুপুরে হরিপুর উপজেলা বিএনপি আয়োজিত কর্মীসমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।
বিএনপি বতর্মান সংসদকে অবৈধ বলার, অবৈধ বিএনপির পক্ষে সংসদে নিয়ে অংশ নেওয়া এবং নির্বাচিত হয়ে নিজে সংসদে না যাওয়ার বিষয়ে বিস্তারিত বর্ননা দেন মির্জা ফখরুল।
উপজেলা বিএনপির সভাপতি আসগর আলীর সভাপতিত্বে কর্মী সভায় বক্তব্য দেন জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর রহমান, কৃষকদলের সভাপতি আনোয়ারুল ইসলামসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।

মির্জা ফখরুল বলেন, কৃষকরা ধানের দাম না পেয়ে সর্বশান্ত হচ্ছে, শ্রমিকরা পাচ্ছেনা ন্যায্য মজুরী কিন্তু সরকারের তাদের দিকে তাকানোর সময় কোথায়? ব্যবসায়ি সহ সাধারণ মানুষের ন্যুনতম বেঁচে থাকবার উপায় নেই। অথচ তারা গণবিরোধী বাজেটের মাধ্যমে ম্যাগা প্রকল্প চালু করে লুটপাটের মাধ্যমে নিজেদের পকেট ভরানো নিয়ে ব্যস্ত আছেন। বাজেট প্রসংগে তিনি বলেন, বিএনপি’র কথা বাদ দেন, দেশের এমন কোনো প্রগতিশীল বা জনগণের পক্ষের অর্থনীতিবীদ, চিন্তাবীদ বা সাংবাদিক নেই যিনি বলেছেন এ বাজেটে জনসাধারণের অর্থনৈতিক মুক্তির কোনো উপাদান রয়েছে। তিনি বলেন, জনগণের যে কর তার বেশি অংশই যাচ্ছে সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারিদের বেতন-ভাতার জন্য, তাদের বেতন ভাতা দ্বিগুণ তিনগুণ বাড়ানো হয়েছে, তাদের গাড়ি কিনবার জন্য ৩০ লক্ষ টাকা অনুদান দেয়া হচ্ছে। এটার কারণ যাদের দিয়ে সরকার ভোট ডাকাতি করবে তারা যেন ঠিক থাকে।
তিনি বলেন, শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান গ্রাম সরকারের মাধ্যমে সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে ধান কেনার কার্যক্রম শুরু করেছিলেন কিন্তু এ সরকার সে ব্যাপারে সম্পূর্ণ ব্যার্থ।

দলের নেতা কর্মীদের প্রতি সরকারের দীর্ঘকালব্যাপী অন্যায় নির্যাতন কারারুদ্ধ করার কথা উল্লেখ করে বিএনপি মহাসচিব দলীয় নেতাদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা হতাশ হবেন না। দেশনেত্রী খালেদা জিয়া নিজের জন্য কারারূদ্ধ হননি, তিনি দেশে গণতন্ত্র , আইনের শাসন ও মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য লড়াই করে যাচ্ছেন। তিনিই বিএনপি’র অত্যাচারিত নেতা-কর্মীদের বড় অনুপ্রেরণা।
মহাসচিব সীমান্তে ভারতীয় বাহিনীর অন্যায়ভাবে বাংলাদেশিদের হত্যার প্রশ্নে প্রতিবাদ করে বলেন, সম্প্রতি কালে বিজিবি-বিএসএফ’র মহাপরিচালক পর্যায়ের বৈঠকে প্রকারান্তরে বিএসএফ মহাপরিচালকও স্বীকার করেছেন এ হত্যাকাণ্ড সাম্প্রতিককালে আশংকাজনকভাবে বেড়েছে। তিনি এজন্য বাংলাদেশের নতজানু পররাষ্ট্রনীতিকে দায়ী করে বলেন, আসলে ভারতের সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক নয়, বরং এ সরকার প্রতিটি প্রশ্নেই ভারতকে ছাড় দিচ্ছে।
নির্বাচনের পর নিজ এলাকায় এটি তাঁর প্রথম কর্মী সমাবেশ। ৪দিনের সফরের আজ দ্বিতীয় দিনে তিনি হরিপুর উপজেলা ছাড়াও বিকালে রাণীশংকৈল ও পীরগঞ্জ উপজেলা কর্মী সমাবেশে অংশ নেবেন মির্জা ফখরুল।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন