ঢাকা, মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯, ০৮ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৯ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

জাতীয় সংবাদ

মৃত্যুর কাছে হেরে গেল শিশু আছিয়া

আশুলিয়ায় ও দাউদকান্দিতে শিশুসহ ধর্ষণের শিকার ৫ : আটক ৩

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ জুন, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

অবশেষে দীর্ঘ একবছর সংগ্রাম করে জীবনযুদ্ধে হেরে গেল টাঙ্গাইলে ধর্ষণের শিকার ৮ বছরের শিশু আছিয়া। ধর্ষণের এক বছর পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল সোমবার সবাইকে কাঁদিয়ে এ পৃথিবী থেকে চলে যায়। এদিকে, আশুলিয়ায় ও দাউদকান্দিতে ভয় দেখিয়ে শিশু ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এছাড়া সিলেটে বিয়ের প্রলোভনে তরুণী ও গোপালগঞ্জে গৃহবধূ ও নওগাঁর মান্দায় বিয়ের প্রলোভনে দিনের পর দিন ধর্ষণের ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। এসকল ঘটনায় ৫ জনকে আটক করেছে পুলিশ। আমাদের ব্যুরো, জেলা ও উপজেলা সংবাদদাতাদের পাঠানো তথ্যে এ প্রতিবেদন :

টাঙ্গাইল : অবশেষে মৃত্যুর কাছে হেরে গেল ৮ বছরের শিশু আছিয়া। ধর্ষণের এক বছর পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল সোমবার সবাইকে কাঁদিয়ে এ পৃথিবী থেকে চলে যায়। এদিকে আছিয়ার লাশ ঢাকা থেকে গ্রামের বাড়িতে আনার পর সেখানে এক হৃদয় বিদারক পরিবেশের সৃষ্টি হয়। শিশুটিকে এক নজর দেখার জন্য ছুটে আসেন শত শত মানুষ।

আছিয়া টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার মালতী গ্রামের দিনমজুর আশরাফ আলীর মেয়ে। গত বছরের ৯ জুন শিশুটিকে ধর্ষণ করে একই গ্রামের তায়েজ উদ্দিনের বখাটে ছেলে মাহবুব (১৫)। এ বিষয়ে দায়েরকৃত মামলাটি আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। আসামি বর্তমানে জামিনে রয়েছে এবং আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দিয়েছে। জানা গেছে, ২০১৮ সালে ৯ জুন ধর্ষক মাহবুব প্রলোভন দেখিয়ে আছিয়াকে ডেকে তাদের বাড়িতে নিয়ে যায়। পরে একটি ঘরে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। এতে আছিয়া অসুস্থ হয়ে পড়লে প্রথমে এলেঙ্গার একটি বেসরকারি হাসপাতালে পরে অবস্থার আরো অবনতি হলে শিশুটিকে ঢাকায় রেফার্ড করা হয়।

২০১৮ সালের ৯ জুন আছিয়ার বাবা আশরাফ আলী বাদী হয়ে একই গ্রামের তায়েজ আলীর ছেলেকে মাহবুবকে আসামী করে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। ধর্ষণের ঘটনা ধামাচাপা দিতে এলাকার একটি প্রভাবশালী মহল চেষ্টা করে বলে অভিযোগ করেছেন ধর্ষিতার পরিবার। পরে পুলিশ তদন্ত শেষে ২০১৮ সালের ৩০ আগস্ট মামলার চার্জশিট প্রদান করে।

টাঙ্গাইল জেনারেল হাসাপাতলে কর্মরত শিশু ও মহিলা বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অধীনে অনস্টোপ ক্রাইসিস সেল এর অফিসার (পিও) বায়েজিদ বলেন, ধর্ষণের ফলে শিশুটির ব্যাপক রক্তক্ষরণ হয়। মলদার ও যৌনাঙ্গে ছিড়ে গিয়ে এক হয়ে যায়। এতে আটটি সেলাই করার পরও তার শারীরিক অবস্থা অবনতি হলে টাঙ্গাইলের তৎকালীন এডিসি জেনারেল নেসার উদ্দিন জুয়েলের আর্থিক সহায়তায় শিশুটিকে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় এক বছর ঢাকায় অবস্থান করে চিকিৎসা নিচ্ছিল শিশুটি। তিনি আরো বলেন এধরনের আক্রান্তরা মৃত্যু ঝুঁকিতে থাকেন।

গোপালগঞ্জ : গোপালগঞ্জে গৃহবধূকে ধর্ষণের সময় ওই গৃহবধূ বখাটে ধর্ষক শিমুল মোল্লাকে (২৬) আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। গত রোববার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার মানিকদাহ আদর্শ গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ব্যাপারে গতকাল সোমবার গোপালগঞ্জ সদর থানায় মানিকদাহ আদর্শ গ্রামের বাসিন্দা শাহাজাহান মোল্লার ছেলে শিমুল মোল্লাকে আসামি করে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা দায়েরের পর পুলিশ ডাক্তারি পরীক্ষা করার জন্য ওই গৃহবধূকে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপতালে পাঠিয়েছে।

সাভার : আশুলিয়ায় ১১ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় ভুক্তভোগী শিশুটির বাবার দায়ের করা মামলায় অভিযুক্ত যুবক তুষারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত রোববার দিবাগত রাতে আশুলিয়ার কাঠগড়া পশ্চিমপাড়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। গ্রেফতারকৃত তুষার খা নরসিংদি জেলার বেলাবো থানার ওয়ারি গ্রামের মুক্ত খাঁর ছেলে। পুলিশ জানায়, ওই শিশুটির বাসায় কেউ না থাকার সুযোগে তাদের পাশের বাসার ভাড়াটিয়া যুবক তুষার কৌশলে তাদের বাসায় প্রবেশ করে ওই মেয়েটিকে ভয়ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণ করে।

সিলেট : সিলেটে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের ঘটনায় নুরুজ্জামান নজরুল (২২) নামের এক ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ (এসএমপি) জালালাবাদ থানা পুলিশ। জালালাবাদ থানার ওসি অকিল উদ্দিন আহমদ জানান, গ্রেফতার নুরুজ্জামানের বাড়ি সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার রহিমপুর গ্রামে। তার পিতার নাম মখদ্দছ আলী। নুরুজ্জামানকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

নওগাঁ : মান্দায় বিয়ের প্রলোভনে দিনের পর দিন ধর্ষণ করায় গত শনিবার রাতে অবশেষে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছে প্রেমিকা নিজেই। ঘটনার পর থেকে লম্পট প্রেমিক হাশেম পলাতক। জানা গেছে, ওই মেয়ের সঙ্গে একই গ্রামের রিয়াজ উদ্দিন শাহ ছেলে হাশেমের (৪০) সঙ্গে পরকীয়ার সম্পর্ক গড়ে ওঠে। হাশেম প্রলোভন দিয়ে ভিকটিমকে দীর্ঘ ৬বছর যাবৎ একই গ্রামের আয়েন উদ্দিনের বাড়ি ভাড়া নিয়ে ধর্ষণ অব্যাহত রাখে। এ কারণে ভিকটিমের স্বামী তাকে তালাক দেয়। কিন্ত লম্পট হাশেম ভিকটিমকে স্ত্রী হিসেবে গ্রহণ করে না। এ ঘটনায় অবশেষে ভিকটিম মান্দা থানায় গিয়ে গত শনিবার রাতে নিজে বাদী হয়ে হাশেমকে আসামি করে মামলা করে।

দাউদকান্দি (কুমিল্লা) : কুমিল্লার দাউদকান্দিতে ৯ বছরের এক শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে। গত রোববার বিকেলে উপজেলার গৌরীপুর ইউনিয়নের পশ্চিম হুগুলিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ধর্ষণের শিকার শিশুটি হুগুলিয়ার স্থানীয় মহিলা মাদরাসার ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রী। এ ঘটনায় অভিযুক্ত ওই গ্রামের মৃত হযরত আলীর ছেলে শেখ ফরিদের (৫৫) নামে রাতেই শিশুটির বাবা নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে দাউদকান্দি মডেল থানায় মামলা করেছেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন