ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৬ কার্তিক ১৪২৬, ২২ সফর ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

হালুয়াঘাটে ভারতীয় হাতির তাণ্ডবে দিশেহারা গ্রামবাসী!

ময়মনসিংহ ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৮ জুন, ২০১৯, ৫:৪৬ পিএম

ময়মনসিংহের সীমান্তবর্তী উপজেলা হালুয়াঘাটে ভারতীয় বন্য হাতি রাতের অন্ধকারে আক্রমন করে এভাবেই গ


ময়মনসিংহের সীমান্তবর্তী উপজেলা হালুয়াঘাটে ভারতীয় বন্য হাতির তাণ্ডবে দিশেহারা হয়ে পড়েছে স্থনীয় কয়েক গ্রামের মানুষ। হাতির আক্রমন থেকে বাঁচতে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছেন ভুক্তভোগীরা। এ অবস্থায় প্রশাসনের সহযোগীতা চেয়েছেন ক্ষতিগ্রস্থরা।
উপজেলার ভূবনকুড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এম সুরুজ মিয়া বলেন, গত রবি এবং সোমবার রাতে ভূবনকুড়া ইউনিয়নের কড়ইতলী, বানাইপাড়া, ধোপাজুরী, রঙ্গমপাড়া, এবং মহিষলেটি গ্রামের ৩০ থেকে ৩৫টি বাড়িতে ব্যাপক তান্ডব চালায় বন্য হাতির একটি দল। ওই সময় হাতিরা বেশ কিছু বাড়ীঘর ও আসবাবপত্র ভেঙ্গে গুড়িয়ে দিয়েছে। ফলে রাত জেগে মশাল জ্বালিয়ে নিজের ঘর-বাড়ি রক্ষার উদ্যোগ নিয়েছে গ্রামবাসী। এ অবস্থায় ক্ষতিগ্রস্থদের আর্থিক সহযোগীতার পাশাপাশি পরিষদের পক্ষ থেকে হাতির আক্রমণ থেকে পটকা, কিরোসিন তেল এবং টর্চ লাইট সরবরাহ করা হয়েছে।
কড়ইতলী গ্রামের মহর উদ্দিন এবং সফর উদ্দিন বলেন, আমরা দিন আনি দিন খাই। আমাদের তিনটি ঘর ছিল। সোমবার রাতে কয়েকটি হাতি ভারত থেকে এসে সব ধ্বংস করে দিয়েছে। বর্তমানে পরিবার নিয়ে খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছি। সরকার সহযোগীতা না করা হলে প্রাণে মারা যাব।
মহিষলেটি গ্রামের সবুজ মিয়া বলেন, গত রবিবার রাত ১টার দিকে হাতির একটি দল আমাদের বাড়িতে এসে হানা দেয়। এ সময় ঘর ভাঙ্গার শব্দ শুনে ঘুম থেকে উঠে স্থানীয়দের ডাকাডাকি করে এনে হাতির দলটিকে কোন রকমে ফেরাতে সক্ষম হই। এরই মাঝে একটি ছনের ঘর পুরটাই হাতি ভেঙ্গে ফেলেছে।
এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেজাউল করিম বলেন, সাধারন মানুষকে হাতির আক্রমণ থেকে রক্ষার জন্য সচেতন করার পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্থদের সহযোগীতাও করা হচ্ছে।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন