ঢাকা, শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ০৩ কার্তিক ১৪২৬, ১৯ সফর ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

নাসিরনগর খুনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে জাহেলি কায়দায় ভাংচুর ও লুটপাট

নাসিরনগর(ব্রাহ্মণবাড়িয়া) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৯ জুন, ২০১৯, ১১:২১ এএম

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলার নাসিরনগর ফান্দাউক ইউনিয়নের আতুকুড়া গ্রামে গত ৭ জুন শুক্রবার প্রতিপক্ষের হামলায় মো.ফুল মিয়া (৬০) নামে এক বৃদ্ধের মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে আসামি পক্ষের লোকজনের বাড়িঘর ভাংচুর ও লুটপাট ও মহিলাদের প্রাণ নাসের হুমকি দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। সরজমিনে গিয়ে জানা যায়- ফসলের জমি গরু খাওয়াকে কেন্দ্র ঈদের পূর্বে আতুকুড়া গ্রামের লিটন মিয়ার লোকজন ও ফুল মিয়ার সাথে সংর্ঘষ বাঁধে । স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান এডভোকেট একেএম কামরুজ্জামান মামুনের হস্তক্ষেপে ৭ জুন শুক্রবার সন্ধ্যায় এনিয়ে দু‘পক্ষের মধ্যে সালিশে বসার দিন ছিল। কিন্তু জুমার নামাজ শেষ হতে না হতেই দু‘পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে প্রতিপক্ষের হামলায় ফুল মিয়া ঘটনাস্থলেই মারা যায়। ফুল মিয়া নিহত হওয়ার পরই ১৫/২০ টি বাড়িঘরে হামলার ঘটনা ঘটে। এসব বাড়ির সব ঘরেই ভাংচুর আর লুটপাটের ছাপ দৃশ্যমান । প্রতিটি ঘরে কোন আসবাবপত্র নেই। নিহত ফুল মিয়ার লোকজন মাসুুুক, মুর্শেদ, ফুয়াদ আলমগীর, পারভেজ, মনাইয়ের বাড়িতে গিয়ে হানা দেয় ভাঙ্গচুর শুরু করে। ঘরে থাকা মহিলাদেরকে প্রাণ নাসের হুমকি দেয়। মাসুক মিয়ার বউ হুসনে আরা, এবং জুমেলা দৈনিক ইনকিলাবকে জানান ধনু মিয়ার ছেলে মজনু, সেন্টু, নান্টু, রুপনের ছেলে বাহার, হুমায়ূন, আজীজ এবং বুরহান সহ একদল অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী এসে আমাদেরকে গলায় চুরি ধরে ঘরের মালামাল লুটপাট করে । পরে এস আই বশির আসার কথা শুনার সাাথে সাথে তারা পালিয়ে যায়। ৯ জুন শনিবার সরেজমিনে গিয়ে ঘটনাস্থল প্রত্যক্ষ করে ভাঙ্গচুর করার কারণ জানতে চাইলে সার্বিক নিরাপত্তায় নিয়োজিত এস আই বশির সহ ৪ জন কন্সটেবল দৈনিক ইনকিলাবকে জানায় আমরা রাত ১১টায় খাবার খেতে গেলে এই ফাঁকে বাদী পক্ষের লোকজন বাড়িঘর সামান্য ভাঙ্গচুর করার খবর পেয়ে ছুটে যাই এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করি। ১৭ জুন রাতে পুনরায় জাহেলি কায়দায় প্রতিটি দালান ও বিল্ডিং ঘর ভেঙে চুরমার করে সম্পূর্ণ মালামাল লুট করে নিয়ে যায় বলে জানায় বিবাদী পক্ষের মহিলাগন । ঘরের দেওয়াল বেড়া,দরজা-জানালা দা দিয়ে কোপায়। এতে প্রায় এক কোটি পঞ্চাশ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্থরা জানায়। এসব বাড়িঘর পুরুষ শূণ্য রয়েছে। প্রতিপক্ষের লোকজন মহিলাদেরকে বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে আসছে বলেও তারা অভিযোগ করেন।বিবাদী পক্ষের লোকজন আরও জানায় বাড়িতে থাকা আমাদের মহিলারা নিরাপত্তা হীনতায় ভোগছে এবং স্কুল মাদরাসায় পড়ুয়া আমাদের ছেলে মেয়েদের পড়া লেখার সমস্যা হচ্ছে। নাসিরনগর থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি)মো.সাজেদুর রহমান, জানান,খুনের অভিযোগে একটি মামলা হয়েছে। তুচ্ছ ঘটনার বিরোধে বৃদ্ধ ফুল মিয়া খুন হয়। বাড়িঘরে হামলা-ভাঙচুরের ঘটনায় এপর্যন্ত কেউ কোন অভিযোগ করেনি। হত্যা মামলার ঘটনায় ২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলেও জানান তিনি। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে। সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে আমরা তৎপর আছি বলেও জানান।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন