ঢাকা, মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯, ০৮ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৯ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

আন্তর্জাতিক সংবাদ

তিন তালাক বাতিল করা জরুরি -ভারতের প্রেসিডেন্ট

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ জুন, ২০১৯, ৩:৩৪ পিএম

ভারতের প্রেসিডেন্ট রামনাথ কোবিন্দ বলেছেন, মহিলাদের সমানাধিকার দেওয়ার জন্য ‘তিন তালাক’ ও ‘নিকাহ হালালা’র মতো বিষয়কে নিষিদ্ধ করা দরকার। বৃহষ্পতিবার সেন্ট্রাল হলে সংসদের দুই কক্ষের যুগ্ম অধিবেশনে দেয়া ভাষণে তিনি এই মন্তব্য করেন।

ভারতের সপ্তদশ লোকসভার প্রথম অধিবেশন সোমবার শুরু হয়েছে। নবনির্বাচিত সাংসদরা শপথগ্রহণ করেছেন ও স্পিকার নির্বাচন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রপতির বক্তৃতার পরে রাজ্যসভার কার্যধারা শুরু হয়। ২৬ জুলাই পর্যন্ত সংসদের এই অধিবেশন চলবে। অর্থনৈতিক সমীক্ষা সংসদে পেশ করা হবে ৪ জুলাই। পরের দিন ৫ জুলাই কেন্দ্রীয় বাজেট পেশ করা হবে।

প্রেসিডেন্ট রামনাথ তার সম্ভাষণে লোকসভা নির্বাচনে বিপুল সংখ্যক মহিলার অংশগ্রহণের প্রশংসা করে বলেন, ‘প্রবল গরমের দাপট সত্ত্বেও মানুষ বিপুল সংখ্যায় ভোট দিয়েছেন। মহিলারাও বিপুল সংখ্যায় পোলিং বুথে গিয়েছেন।’ তিনি আরো বলেন, ‘নির্বাচনে উঠে আসা জনাদেশ থেকে পরিষ্কার দেশের মানুষ নিরঙ্কুশ ও দ্রুত উন্নয়ন চান। তারা কামনা করছেন দেশ দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলুক। ২০১৯ নির্বাচনের ফল থেকে ২০১৪-র থেকেও অধিক একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে একটি দল। এর থেকে পরিষ্কার, এই সরকার একটি মজবুত ও স্থায়ী হবে। ভারতের মানুষ দীর্ঘদিন ধরে অপেক্ষা করেছেন এমনকী মৌলিক সুবিধাগুলি অন্তত তাদের কাছে যাতে পৌঁছয়। আমি আনন্দের সঙ্গে জানাচ্ছি আমার সরকার সেটা করতে পেরেছে। দারিদ্রের কবল থেকে মানুষকে তুলে আনা ও তাকে সমস্ত মৌলিক প্রয়োজনগুলি মেটাতে সাহায্য করা যাতে সে সম্মানের সঙ্গে বাঁচতে পারে। গ্রাম্য ও শহুরে ভারত, দু’টিরই উন্নয়ন হয়েছে। আমার সরকার দেশকে সমস্ত অভ্যন্তরীণ ও বাহ্যিক বিপদের হাত থেকে রক্ষা করতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। ২০২২ সালে ভারতের স্বাধীনতার ৭৫ বছর হবে। এবং আমার সরকার দ্রুত গতিতে একটা নতুন ভারত নির্মাণের কাজ শুরু করে দিয়েছে।

রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘পানি সংরক্ষণ, কৃষক ও সেনার পরিবারকে সাহায্য করা আমার সরকারের কাছে অগ্রাধিকার পাবে। পানি শক্তি মন্ত্রণালয় আমাদের অগ্রাধিকারের প্রতীক। রাষ্ট্রপতি আরও জানিয়েছেন, ‘আমি আনন্দের সঙ্গে জানাচ্ছি নির্বাচন শান্তিপূর্ণ ও সফল ভাবে সম্পন্ন হয়েছে। রেকর্ড সংখ্যক মানুষ ভোট দিয়েছেন। এবং আমি আনন্দের সঙ্গে আপনাদের জানাচ্ছি যে, মহিলাদের গুরুত্বপূর্ণ উত্থান হয়েছে। ভোটার কিংবা জয়ী প্রার্থী- দুই দিক দিয়েই এটা লক্ষ করা যাচ্ছে। ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে যত সংখ্যক মহিলারা ভোট দিয়েছেন, তা প্রায় পুরুষদের সমান। এমনকী, কোনও কোনও অঞ্চলে মহিলা ভোটারের সংখ্যা পুরুষ ভোটারের থেকে বেশি ছিল।’ সূত্র: এনডিটিভি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন