ঢাকা, শনিবার , ২৩ নভেম্বর ২০১৯, ০৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

আর্জেন্টিনার ছন্দে ফেরার আভাস

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৫ জুন, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

কোপা আমেরিকায় নিজেদের চেনা ছন্দে ফিরেছে ব্রাজিল। খাঁদের কীনারা থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর চ্যালেঞ্জ ছিল আর্জেন্টিনার সামনেও। লিওনেল মেসিরা তা পেরেছেন। শঙ্কা কাটিয়ে এশিয়া চ্যাম্পিয়ন কাতারকে ২-০ গোলে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছে লিওনেল স্কালোনির দল। তবে এমন পারফশ্যান্স নিয়ে কতদূর যাওয়া যাবে সেই প্রশ্ন রয়েই যাচ্ছে।

ব্রাজিলের অ্যারেনা দো গ্রেমিওয় পরশু রাতে গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডারদের ভুলের সুযোগ কাজে লাগিয়ে শুরুতেই আর্জেন্টিনাকে এগিয়ে নেন লাউতুরো মার্তিনেস। শেষ দিকে ব্যবধান বাড়ান সার্জিও আগুয়েরো। মাঝের সময়ে লা আলবাসিলেস্তেদের খেলায় ছিল না কোনো ছন্দ। সার্জিও আগুয়েরো একাই অন্তঃত অর্ধডজন সুযোগ হাতছাড়া করেন। লাউতুরো মার্তিনেজ, লিওনেল মেসিরাও ছিলেন সেই দলে। ওয়ান টু খেলে মেসির আক্রমণে ওঠার সুর বার বার কেটে যায় পাস ফিরে না পাওয়ায়। মিডফিল্ড এদিন তুলনামূলক ভালো, তবে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লক্ষ্যে খেলা দলের মত নয়। শেষ দিকে পাওলো দিবালা মাঠে নামার পর মেসি-আগুয়েরোর সঙ্গে যে খেলা করেছেন তাতে আশাবাদি হতেই পারেন কোচ স্কালোনি। তবে রক্ষণ এদিনও ছিল ভঙ্গুর। বিচ্ছিন্ন আক্রমণের শেষটা এলোমেলো হওয়ায় জালের দেখা পায়নি ২০২২ বিশ্বকাপ স্বাগতিক কাতার। প্রথমার্ধে তাদের একটি শট বারে লেগে প্রতিহত হয়।

আসরে প্রথম ম্যাচে কলম্বিয়ার কাছে হারের পর প্যারাগুয়ের সঙ্গে ড্র করে আকাশী-সাদারা। দুই ম্যাচ থেকে মাত্র এক পয়েন্ট পাওয়ায় কাতারের বিপক্ষে জয়ের বিকল্প ছিল না মেসিদের। এমন চাপের মুখে জয় পাওয়া কঠিন। সেই কথাই মনে করিয়ে সব ধরনের প্রতিকূলতায় সমর্থকদের পাশে চাইলেন কোচ স্কালোনি, ‘মনে হচ্ছে ছেলেদেরকে প্রতি ম্যাচে যুদ্ধে যেতে হবে, চাপ থাকলে বিষয়টা জটিল হয়ে যায়। ছেলেদের প্রতি এই বার্তা থাকতে হবে যে, তারা টুর্নামেন্টে খেলার সময় আমরা সবাই এক পক্ষে আছি।’

নিজেদের ফিরে পাওয়ার লক্ষ্যে শুরু থেকেই এদিন আক্রমনাত্মক ফুটবল খেলতে থাকে আর্জেন্টিনা। ম্যাচের চতুর্থ মিনিটে পাওয়া গোলে অবদান ছিল কাতারের রক্ষণের। বাসাম আল রায়ির ভুল পাসে বল পেয়ে যান মার্তিনেস। জালে বল পাঠাতে ভুল করেননি ইন্টার মিলানের এই তরুণ ফরোয়ার্ড। শেষ দিকে মিডফিল্ডে বদলি খেলোয়াড় পাওলো দিবালার বাড়ানো বল পেয়ে ক্ষিপ্রগতিতে দুজনকে কাটিয়ে ডানপ্রান্ত থেকে কোনাকুনি শটে গোল করে আগের ভুলগুলো ভুলিয়ে দেন আগুয়েরো। আর্জেন্টিনার জার্সিতে এটি তার ৪০তম গোল।

ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ের ৫৫তম দলের বিপক্ষে আর্জেন্টিনার এই জয়ে সমর্থকদের মন ভরেনি ঠিকই তবে এটাকে দুবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের ছন্দে ফেরার পূর্বাভাস বলা যেতে পারে। তেমন বার্তাই দিলেন দলীয় অধিনায়ক মেসি, ‘আরও ম্যাচ খেলতে থাকলে দল প্রতি ম্যাচেই উন্নতি করবে। কাতার ম্যাচটি সেদিক থেকে আমাদের জন্য ভালো ছিল।’ স্কালোনি নিজেও জানেন ব্যাপারটা, ‘যৌক্তিকভাবে চিন্তা করলে বলতে হবে, আমাদের আরও উন্নতির জায়গা আছে। তবে আজকের ফলাফলে আমরা সন্তুষ্ট। কোপা আমেরিকায় যত দিন খেলব, নিজেদের সামর্থ্যরে সবটুকু দিয়ে খেলতে হবে।’

একই সময়ে শুরু হওয়া ‘বি’ গ্রুপের অপর ম্যাচে প্যারাগুয়েকে ১-০ ব্যবধানে হারিয়ে পূর্ণ নয় পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে শেষ আটে উঠেছে কলম্বিয়া। সমান ম্যাচে চার পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ রানার্স আপ আর্জেন্টিনা। আগামী শুক্রবার রিও ডি জেনিরোয় শেষ আটে আসরের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৪ বারের চ্যাম্পিয়নদের প্রতিপক্ষ ‘এ’ গ্রুপের রানার্স আপ ভেনিজুয়েলা। তিন গ্রুপ থেকে তৃতীয় স্থানধারীর মধ্যে সেরা দুই দল উঠবে শেষ আটে। সেই হিসাবে সুযোগ আছে দুই পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে থাকা প্যারাগুয়েরও। এজন্য তাদের তাকিয়ে থাকতে হচ্ছে ‘সি’ গ্রুপের বাকি দুই ম্যাচের দিকে। আসর থেকে বিদায় নিশ্চিত হয়েছে এক পয়েন্ট পাওয়া কাতারের।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন