ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯, ০৩ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৪ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

জাতীয় সংবাদ

ট্রেনটিতে অতিরিক্ত যাত্রী ছিল

মন্ত্রিসভায় দুর্ঘটনা নিয়ে আলোচনা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৫ জুন, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট পদক নীতিমালা খসড়ার অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। এই নীতিমালা অনুযায়ী এখন থেকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা পদক দেওয়া হবে। এর মধ্যে দুটি পদক হবে জাতীয়ভাবে। দুটি পদক হবে আন্তর্জাতিকভাবে। ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে এই পদক দেওয়া হবে। জাতীয় ক্ষেত্রে এই পদকের মূল্য হবে চার লাখ টাকা। আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে পদকের মূল্য হবে পাঁচ হাজার ডলার।আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা পদক নীতিমালা,২০১৯ এর খসড়া অনুমোদন এবং বাংলাদেশে ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আইন, ২০১৯ এর খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলায় ঢাকাগামী উপবন এক্সপ্রেস ট্রেন দুর্ঘটনা নিয়ে মন্ত্রিসভায় আলোচনা হয়েছে।

গতকাল সোমবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভা বৈঠকে এ খসড়ার অনুমোদন দেয়া হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন। বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের একথা বলেন।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম বলেছেন, পুরোনো ব্রিজগুলো পুনঃস্থাপন (রিপ্লেস) করা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। এটি নিয়ে আগেও আলোচনা হয়েছে। ট্রেনটিতে অতিরিক্ত যাত্রী ছিল বলেও মন্তব্য করেন। কুলাউড়ায় ট্রেন দুর্ঘটনা নিয়ে কোনো নির্দেশনা আছে কি না, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব এসব কথা জানান। মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, রেলপথমন্ত্রী নূরুল ইসলাম আশ্বস্ত করেছেন, সিলেটের সঙ্গে ও ঢাকা ও চট্টগ্রামের রেল যোগাযোগ ২৪ ঘণ্টার মধ্যে স্বাভাবিক হবে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, মাতৃভাষা সংরক্ষণ-বিকাশে বিশেষ অবদানের জন্য আন্তর্জাতিক পদক দেবে বাংলাদেশ। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা পদক নামে নতুন পদক চালু করা হচ্ছে। প্রতি দুই বছরে এই পদক দেয়া হবে। জাতীয় ক্ষেত্রে দু›টি এবং আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে দু›টি পদক দেয়া হবে। পদকের মূল্যমান ধরা হয়েছে জাতীয় ক্ষেত্রে চার লাখ টাকা, আর আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে পাঁচ হাজার ডলার।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের মাতৃভাষা সংরক্ষণ, পুনরুজ্জীবন, বিকাশ, চর্চা, প্রচার, প্রসারের জন্য এই পুরস্কার দেয়া হবে। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটের পরিচালকের নেতৃত্বে একটি বাছাই কমিটি থাকবে। মনোনয়ন কমিটির নেতৃত্বে থাকবেন শিক্ষামন্ত্রী। একুশে ফেব্রুয়ারিকে সামনে রেখে এই পুরস্কার দেয়া হবে।

বিকেএসপি আইন চূড়ান্ত অনুমোদন
মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, বাংলাদেশে ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আইন, ২০১৯ এর খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে। ১৯৮৩ সালের অধ্যাদেশকে আইনে রূপান্তর করা হচ্ছে। খসড়া বাংলাদেশে ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (বিকেএসপি) আইন অনুযায়ী বোর্ডের সদস্যদের মধ্যে এক তৃতীয়াংশ সদস্য উপস্থিত থাকলে কোরাম হবে, বছরে দুইবার সভা করতে হবে।

তিনি বলেন, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রীর দায়িত্বে যিনি থাকবেন তিনি হবেন বোর্ডের চেয়ারম্যান। ২০ সদস্যের পরিষদ হবে। সদস্যদের মেয়াদ তিন বছর। এছাড়া বাংলাদেশ ও স্পেনের মধ্যে স্বাক্ষরের জন্য উপস্থাপিত সংস্কৃতি, শিক্ষা ও বৈজ্ঞানিক সহযোগিতা বিষয়ক চুক্তির খসড়া অনুমোদন সংক্রান্ত ইতোপূর্বে গৃহীত মন্ত্রিসভার সিদ্ধান্ত বাতিলের প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। শফিউল আলম বলেন, ২০১৪ সালে একটি সিদ্ধান্ত হয় স্পেন সরকারের সঙ্গে এসব ক্ষেত্রে চুক্তি করতে চায়। পরে স্পেন জানায় তারা শুধু সংস্কৃতি বিষয়ে চুক্তি করতে চান, শিক্ষা ও বৈজ্ঞানিক বিষয়ে চুক্তি করবেন না। সংস্কৃতি বিষয়ের চুক্তিটি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

তিনি জানান, মন্ত্রিসভায় বাংলাদেশের পতাকাবাহী জাহাজ সুরক্ষা আইন ২০১৯-এর খসড়া নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এ আইনে বিধান রয়েছে, বাণিজ্যের ক্ষেত্রে সমুদ্রপথে বাংলাদেশে যত পণ্য আসবে, তার ৫০ শতাংশ বাংলাদেশের পতাকাবাহী জাহাজে পরিবহন করতে হবে। অর্থাৎ এই পণ্যবাহী জাহাজগুলো বাংলাদেশে নিবন্ধিত হতে হবে। বর্তমানে ৪০ শতাংশ পণ্য বাংলাদেশের পতাকাবাহী জাহাজে আনার নিয়ম রয়েছে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, বিদ্যমান আইনটি ১৯৮২ সালের অধ্যাদেশ অনুসারে জারি হয়। আদালতের বাধকতা থাকায় এখন এটি নতুন করে করা হচ্ছে। প্রস্তাবিত এই আইনে জরিমানার টাকাও নির্দিষ্ট করে দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া আরও ছোট ছোট কিছু বিষয় এ আইনে সংশোধন করা হয়েছে।
##

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন