ঢাকা, বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ০১ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ সফর ১৪৪১ হিজরী

মহানগর

বাজারের প্রচলিত দুধে উদ্বেগজনকহারে এন্টিবায়োটিক, ফরমালিন ও ডিটারজেন্টের উপস্থিতি: ঢাবির গবেষণা

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৫ জুন, ২০১৯, ১২:২০ পিএম

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োমেডিক্যাল রিসার্চ সেন্টার এবং ফার্মেসি অনুষদের বিভিন্ন ল্যাবরেটরিতে পরীক্ষা করে বাজারে প্রচলিত পাস্তুরিত ও অপাস্তুরিত দুধের মধ্যে উদ্বেগজনকহারে এন্টিবায়োটিক, ফরমালিন ও ডিটারজেন্টের উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

আজ মঙ্গলবার সকাল দশটায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ফার্মেসি অনুষদের লেকচার থিয়েটার হলে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য প্রকাশ করে ফার্মেসি অনুষদের শিক্ষকদের নিয়ে গঠিত বিশেষজ্ঞ দল।

বিশেষজ্ঞ দলটি জানায়, পাস্তুরিত দুধগুলোর মধ্য থেকে প্রচুর বিক্রি হয় এমন বিভিন্ন নামের ৭টি নমুনা এবং অপাস্তুরিত অর্থাৎ খোলা দুধের ৩টি নমুনা ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন বাজার থেকে সংগ্রহ করা হয়। মোট এই ১০টি নমুনা বিএসটিআই স্ট্যান্ডার্ড অনুযায়ী পরীক্ষা করা হয়।

পাস্তুরিত দুধের যে ৭টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে সেগুলো হলোঃ মিল্কভিটা, আড়ং, ফার্ম ফ্রেশ, প্রাণ, ইগলু , ইগলু চকোলেট এবং ম্যাংগো। অপাস্তুরিত দুধের ৩টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে রাজধানীর পলাশী, গাবতলি ও মোহাম্মদপুর বাজার থেকে।

গবেষণায় প্রাপ্ত ফলাফল অনুযায়ী পাস্তুরিত দুধের ৭টি নমুনার সবগুলোতেই মানব চিকিৎসায় ব্যবহৃত এন্টিবায়োটিক লেভোফ্লক্সাসিন, সিপ্রোফ্লক্সাসিন এবং ৬টিতে এজিথ্রোমাইসিনের উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

এছাড়াও পাস্তুরিত ও অপাস্তুরিত দুধের মোট ১০টি নমুনার মধ্যে ১টিতে ফরমালিন ও ডিটারজেন্টের উপস্থিতি সনাক্ত করা হয়েছে। শুধু তাই নয়, বাজারে প্রচলিত ঘি, ফ্রুট ড্রিংকস, গুঁড়া মশলা, পাম অয়েল, সরিষার তেল, সয়াবিন তেলের নমুনা পরীক্ষা করে দেখা গেছে সেগুলোর বেশিরভাগই বিএসটিআই স্ট্যান্ডার্ডে মানোত্তীর্ণ হতে ব্যর্থ হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Shabuj mohammad ২৫ জুন, ২০১৯, ৩:৩৬ পিএম says : 0
কিছু কিছু অসাধু ব্যবসায়ী আছে যারা খাদ্যদ্রব্যে ফরমালিন মেশায়, তাদের ধরে শাস্তি দিলেই কিন্তু অন্যরা ভয়ে সেটা নাও করতে পারে।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন