ঢাকা, সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৯, ০৫ কার্তিক ১৪২৬, ২১ সফর ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

মার্কিন পণ্যে ভারতের শুল্ক তুলে নিতেই হবে -ট্রাম্প

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৭ জুন, ২০১৯, ৩:৩৫ পিএম

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওপর ভারতের আরোপিত শুল্ককে ‘গ্রহণযোগ্য নয়’ এবং এটা তুলে নিতেই হবে বলে জানান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠকের আগে ট্রাম্প বৃহস্পতিবার একটি টুইটে এই ঘোষণা দেন।

ট্রাম্প টুইটারের পোস্টে লেখেন, মোদির সঙ্গে এবিষয়ে কথা বলতে তিনি মুখিয়ে আছেন। শুক্রবার থেকে শুরু হতে জি২০ শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে দুই বিশ্বনেতা জাপানে পৌঁছেছেন। সেই সম্মে‌লনের ফাঁকে বৈঠকে বসবেন ট্রাম্প ও মোদি। মার্কিন রাষ্ট্রপতি তার টুইটে লেখেন, ‘প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে কথা বলার দিকে আমি তাকিয়ে আছি। বহু বছর ধরেই ভারত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওপরে খুবই বেশি শুল্ক চাপিয়ে রেখেছে। সম্প্রতি সেই শুল্ক আরও বাড়িয়েছে। এটা গ্রহণযোগ্য নয়। এবং এই শুল্ক তুলে নিতেই হবে।’

ব্রিটিশ সংবাদ সংস্থা রয়টার্স জানাচ্ছে, ভারতের বক্তব্য এই শুল্ক মোটেই বেশি নয় অন্য সমস্ত উন্নয়নশীল দেশের তুলনায়। ভারত ২৮টি মার্কিন পণ্যের ক্ষেত্রে বাড়তি শুল্ক আরোপ করেছে। পহেলা জুন থেকে আমেরিকা ভারতকে বাণিজ্যের ছাড় দেয়া বন্ধ করে দেয়। তারপরই এই সিদ্ধান্ত ভারতের। ট্রাম্প জানান, ভারতীয় পণ্য বিক্রিতে ৫ দশমিক ৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার শুল্ক ছাড় দেন তারা।

ট্রাম্প শাসনামলে আমেরিকা চেষ্টা করছে আমদানি-রপ্তানিতে সমস্ত দেশের সঙ্গে বাণিজ্যে সাম্য আনতে। তার নির্বাচনি প্রচারে ট্রাম্প বলেছিলেন, আমেরিকা অন্য দেশের থেকে ক্রয় বেশি করছে বিক্রয়ের তুলনায়। এর ফলে দেশের উৎপাদন কমে যাচ্ছে।

গত কয়েক মাসে ওয়াশিংটন শুল্ক চাপাচ্ছে ও কোটি কোটি ডলারের শুল্ক ছাড় বন্ধ করেছে অন্যান্য দেশের সঙ্গে ব্যবসায়। এর মধ্যে অন্যতম ভারত ও চীন। বিশ্ব বাণিজ্য যুদ্ধে টিকে থাকতে কেবল ভারত নয় অন্য দেশগুলিও আমেরিকার ওপরে শুল্কের পরিমাণ বাড়িয়েছে। যার ফলে আমেরিকাকেও চেষ্টা করতে হচ্ছে যত বেশি সম্ভব রপ্তানি বাড়াতে।

বুধবার মার্কিন পররাষ্ট্র সচিব মাইক পম্পেওর সঙ্গে বৈঠক হয় ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের। নিজের দেশের সরকারের সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানিয়ে পম্পেও বলেন, আমেরিকার অধিকার রয়েছে বৃহত্তর বাজারে প্রবেশ করার। এই বিষয়েই এবার মোদি ও ট্রাম্পের মধ্যে বিস্তারিত আলোচনা হতে যাচ্ছে জাপানের ওসাকার জি-২০ সম্মেলনে। সূত্র: এনডিটিভি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন