ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬, ১৯ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

মহানগর

৩৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া মাহফিল অনিুষ্ঠিত

ইনকিলাব দেশের মানুষের চেতনাকে ধারণ করে এগিয়ে চলেছে

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৭ জুন, ২০১৯, ৫:১২ পিএম | আপডেট : ৫:৪৩ পিএম, ২৭ জুন, ২০১৯

ছবি- এস এ মাসুম


দৈনিক ইনকিলাব এদেশের মানুষের চেতনাকে ধারণ ও লালন করে এগিয়ে চলেছে। ইসলামী মূল্যবোধের আলোকে একটি সমৃদ্ধ সমাজ ও দেশ প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন নিয়ে মরহুম হযরত মাওলানা এম এ মান্নান (রহ.) ইনকিলাব প্রতিষ্ঠা করে ছিলেন। সে লক্ষে ইনকিলাব এখনো অবিচল। ইনকিলাব এমন একটি প্রতিষ্ঠান যার কোনো বিকল্প নেই। দৈনিক ইনকিলাবের ৩৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে দেয়া শুভেচ্ছা বক্তব্যে বক্তরা এসব কথা বলেন। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর টিকাটুলিতে দৈনিক ইনকিলাবের নিজস্ব ভবনে এ মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠত হয়।
সহকারী সম্পাদক মাওলানা উবায়দুর রহমান খান নদভীর পরিচানায় এতে সভাপতিত্ব করেন ইনকিলাবের পরিচালক মো: আব্দুল কাদের। অনুষ্ঠানে মিলাদ মাহফিল পরিচালনা করেন রাজধনীর মহাখালীস্থ মসজিদে গাউসুল আজমের পেশ ইমাম মাওলানা মো. মিজানুর রহমান। মুনাজাত পরিচালনা করেন, ইনকিলাবের সহকারী সম্পাদক মাওলানা ফজলুর রহমান মুন্সী।
উদ্বোধনী বক্তেব্যে মাওলানা উবায়দুর রহমান খান নদভী বলেন, আমরা মহান রব্বুল আলামিনের শুকরিয়া আদায় করছি, যার অশেষ মেহেরবাণীতে ইনকিলাব ৩৪ বছরে পদার্পন করেছে। পবিত্র ঈদুল ফিতরের ছুটি থাকার কারণে আমরা এবারের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ৪ জুনের পরিবর্তে ২৭ জুন পালন করছি। প্রতিষ্ঠার পর থেকে দৈনিক ইনকিলাব দেশ জাতি ও মানুষের কথা বলে আসছে। আমাদের প্রতিষ্ঠাতা মরহুম হযরত মাওলানা এম এ মান্নান (রহ.) একটি সমৃদ্ধ দেশ গঠনের লক্ষে, এদেশের মানুষের মেধা ও মননকে সমৃদ্ধ করার লক্ষে ইনকিলাব প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। আমাদের প্রিয় সম্পাদক এএমএম বাহাউদ্দীনের আন্তরিকতা ও দক্ষতায় ইনকিলাব আজও তার লক্ষ পথে অবিচল রয়েছে, অবিষ্যতেও থাকবে ইনশাআল্লাহ।
সভাপতির বক্তব্যে ইনকিলাবের পরিচালক আবদুল কাদের বলেন, সাংবাদিক, কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং সকল শভানুধ্যায়ীদের ত্যাগ তিতিক্ষার কারণে ইনকিলাব আজ এতদূর অগ্রসর হয়েছে। সবার সহযোগিতায় ইনকিলাব আরও সমৃদ্ধ হয়ে এগিয়ে যাবে এটাই প্রত্যাশা। ইনকিলাব সবার ভালোবাসায় ৩৩বছর পর করেছে, সামনে আরো যুগযুগ ধরে ইনকিলাব দেশ ও জনগণের কথা নির্ভয়ে বলে যাবে ইনশাআল্লাহ।
চিফ রিপোর্টার নূরুল ইসলাম বলেন, এক সময় বলা হতো ‘নলেজ ইজ পাওয়ার’। মিডিয়ার যুগে এখন তা হয়েছে, ‘কমিউনিকেশন ইজ পাওয়ার’। এখন যোগাযোগই বড় শক্তি। প্রবল যোগাযোগ সক্ষমতার কারণে ইনকিলাব আজ অনেক দূর অগ্রসর হয়েছে। তিনি বলেন, প্রতিষ্ঠাতা মরহুম হযরত মাওলানা এম এ মান্নান (রহ.) পত্রিকাটির এমন একটি নাম দিয়েছেন ‘ইনকিলাব’ যার কোনো বিকল্প হয় না। প্রচলিত অনেক পত্রিকা আছে যার আগে-পরে শব্দ ব্যবহার করে একাধিক পত্রিকার নামকরণ করা হয়েছে। কিন্তু আজ পর্যন্ত দৈনিক ইনকিলাবের বিকল্প কেউ প্রতিষ্ঠা করতে পারেনি, পারেবও না। ইনকিলাব এক এবং অন্যন্য।
সহকারী সম্পাদক জামাল উদ্দিন বারী বলেন, এমন একসময় ইনকিলাবের প্রতিষ্ঠা যে সময় দেশ জাতির জন্য এটি খুব প্রয়োজন ছিল। সময়ের প্রয়োজনেই মরহুম হযরত মাওলানা এম এ মান্নান (রহ.) ইনকিলাব প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। ইনকিলাব অর্থ বিপ্লব। এদেশের জাতীয়তাবাদী ইসলামী চেতনাকে ধারণ করে একটি সমৃদ্ধ সমাজ নির্মাণের লক্ষে ইনকিলাব কাজ করে যাচ্ছে। অনেক চড়াই উৎড়াইয়ের পরও আমাদের এ প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে। সকলের সহযোগিতায় ইনকিলাব তার লক্ষে অবশ্যই পৌঁছাবে ইনশাআল্লাহ।
অনুষ্ঠানে বার্তা সম্পাদক সাকির আহমেদ, বিশেষ সংবাদদাতা সাখাওয়াত হোসেন, স্টালিন সরকার, রফিক মুহাম্মদ, জিএম (একাউন্টস) সিরাজুল ইসলাম, মঈন উদ্দিনসহ ইনকিলাবের সাংবাদিক, কর্মকর্তা ও কর্মচারী, হকার সমিতির নেতৃবৃন্দ এবং শুভানুধ্যায়ীগণ উপস্থিত ছিলেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন