ঢাকা, শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৬ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

বছরের পর বছর ছাত্রীদের ধর্ষণ

স্কুলছাত্রীসহ শিকার আরো ৩ ছাত্রলীগ নেতাসহ আটক ৪

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৮ জুন, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

বছরের পর বছর বিভিন্ন শ্রেণির ছাত্রীদের ধর্ষণ এবং ভিডিও ধারণ করেছে নারায়ণঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি এলাকার অক্সফোর্ড হাইস্কুলের শিক্ষক আশরাফুল আরিফ। এ ঘটনায় তাকেসহ ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষককে আটক করেছে র‌্যাব। এছাড়া টাঙ্গাইলে চিকিৎসার প্রলোভন দেখিয়ে বাকপ্রতিবন্ধী নারীকে ও বরিশালে স্কুলছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে।ঠাকুরগাঁয়ে দফায় দফায় ধর্ষণের অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতাসহ বিভিন্ন স্থানে ৪ জনকে আটক করেছে আইন শৃঙ্খলাবাহিনী । এদিকে, সীতাকুÐে র‌্যাবের সাথে বন্ধুক যুদ্ধে ধর্ষণের আসামি নিহত হয়েছেন। আমাদের সংবাদদাতাদের পাঠানো তথ্যের ভিত্তিতে এ প্রতিবেদন :

সিদ্ধিরগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) : বছরের পর বছর আপত্তিকর ছবি তুলে অসংখ্য ছাত্রীকে বø্যাকমেইল করে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় সিদ্ধিরগঞ্জে দুই স্কুলশিক্ষককে গণধোলাই দিয়েছেন এলাকাবাসী ও অভিভাকরা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে র‌্যাব ও পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে। এ সময় লম্পট ওই দুই শিক্ষকের ফাঁসির দাবিতে র‌্যাব ও পুলিশের সামনে ¯েøাগান দেন বিক্ষুব্ধ অভিভাবক ও এলাকাবাসী। বৃহস্পতিবার সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি কান্দাপাড়ার অক্সফোর্ড হাইস্কুলে এ ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী জানান, সিদ্ধিরগঞ্জের অক্সফোর্ড কিন্ডারগার্টেন স্কুলের সহকারী শিক্ষক আরিফুল ইসলাম আট বছর ধরে স্কুলটিতে অংক ও ইংরেজি বিষয়ে শিক্ষকতা করছেন। বছরের পর বছর অসংখ্য ছাত্রীর আপত্তিকর ছবি তুলে ধর্ষণ করেছেন তিনি। ছাত্রীদের কোচিং করানোর জন্য তার বাসা ছাড়াও স্কুলের পাশে বুকস গার্ডেন এলাকায় একটি ফ্ল্যাট ভাড়া করেন। এলাকায় তার অনৈতিক কর্মকাÐ প্রচার হলে গতকাল বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ওই স্কুলে যান। এ সময় আরিফুল ইসলাম তার মোবাইলে থাকা আপত্তিকর ছবি ডিলিট করেন। কিন্তু এলাকাবাসী মোবাইলটি উদ্ধার করে এলাকার একটি মোবাইলের দোকানে নিয়ে সফটওয়ারের মাধ্যমে ছবিগুলো উদ্ধার করেন। ছবিগুলো দেখে ক্ষোভে ফেটে পড়েন এলাকাবাসী। পরে তারা ওই স্কুলে হামলা চালান। এ সময় স্কুলের লম্পট শিক্ষক আরিফুল ইসলাম ও স্কুলের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম জুলফিকারকে গণধোলাই দেয়া হয়। এলাকাবাসীর অভিযোগ, স্কুলের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম জুলফিকার লম্পট শিক্ষক আরিফুল ইসলামকে সহযোগিতা করে আসছিলেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক অভিভাবক জানান, তার মেয়ে ৫ম শ্রেণিতে পড়ার সময় ওই শিক্ষকের দ্বারা যৌন হয়রানির শিকার হয়। ওই মেয়ে এখন ৯ম শ্রেণিতে পড়ছে। এখনও লম্পট শিক্ষকের কাছ থেকে পরিত্রাণ পায়নি তার সন্তান। সন্তান তাকে না জানানোয় তিনিও এ ব্যাপারে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারেননি। গত দু-তিনদিন আগে জানতে পেরেছেন। এলাকাবাসী জানান, ওই শিক্ষককে সহযোগিতা করতেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম জুলফিকার। তিন মাস আগে স্কুলের এক শিক্ষিকাকেও ওই শিক্ষক যৌন হয়রানি করে। তিনি এ ব্যাপারে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় অভিযোগ দিলে প্রধান শিক্ষক আরিফুলকে থানা থেকে ছাড়িয়ে আনেন।

র‌্যাব-১১ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আলেপ উদ্দিন (পিপিএম) জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে আরিফুলেল মোবাইল থেকে ছাত্রীদের সঙ্গে অনৈতিক কর্মকাÐের অনেক ছবি ও ভিডিও উদ্ধার করেছি। তার মোবাইল উদ্ধার করা হয়েছে। ২০ জনের অধিক ছাত্রীকে ওই শিক্ষক বø্যাকমেইল করে ধর্ষণ করেছে, যা প্রাথমিকভাবে ওই শিক্ষকই আমাদের কছে স্বীকার করেছে।

ঠাকুরগাঁও : ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার মধুপুর কুড়ালী পাড়ায় এক কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত বুধবার দুপুরে ওই ছাত্রীর অভিযোগের ভিত্তিতে ছাত্রলীগ নেতা সজলকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠানো হয়। গ্রেফতার সজল ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ২০নং রুহিয়া পশ্চিম ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ধর্ষক সাজেদুল ইসলাম সজল ওই ছাত্রীর শয়নকক্ষে যায়। এ সময় বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষণ করে। এই ঘটনার পর সাজেদুলকে বিয়ের জন্য চাপ দিলে দু’একদিনের মধ্যে বিয়ে করবে বলে জানায় সে। গত সোমবার দুপুরে মোটরসাইকেলে ওই কলেজছাত্রীকে ভয় দেখিয়ে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার বুড়ির বাঁধ নামক স্থানে নিয়ে গিয়ে পুনরায় ধর্ষণ করে সাজেদুল। অভিযোগে কলেজছাত্রী জানায়, ধর্ষক সাজেদুলের সঙ্গে তার দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল।

টাঙ্গাইল : টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে চিকিৎসার প্রলোভন দেখিয়ে বাকপ্রতিবন্ধী এক বিধবা নারীকে (৩৫) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার ধোপাখালী বাজারে এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত মিনু উপজেলার কদমতলী গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য হযরত আলীর ছেলে।

বরিশাল : বরিশালে এক স্কুলছাত্রীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় মীর আরমান নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত মঙ্গলবার নগরীর বাঘিয়া সাকিনস্থ চেয়ারম্যান বাড়ির গলির রহিম ভিলায় স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। গতকাল বরিশাল এয়ারপোর্ট থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন ভিকটিমের মা। পরে প্রধান আসামী মীর আরমানকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তবে মামলার অন্য আসামি মো. অনিক পলাতক রয়েছেন। মামলা সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন যাবৎ নগরীর লুৎফর রহমান সড়কের বাসিন্দা মৃত নিজাম উদ্দিনের ছেলে মীর আরমান (১৯) দীর্ঘদিন যাবৎ ভিকটিম ছাত্রীকে স্কুলে আসা যাওয়ার সময় উত্ত্যক্ত করে প্রেমের প্রস্তাব দিতো। এতে রাজি হয়নি ওই স্কুলছাত্রী।

গত মঙ্গলবার বিকালে ভিকটিম বাসা থেকে প্রাইভেট পড়তে বের হলে নথুল্লাবাদের বৈশাখী বিরিয়ানী হোটেলের সামনে থেকে ভিকটিমকে জোরপ‚র্বক তুলে নিয়ে যায় মীর আরমান। এরপর বাঘিয়া সাকিনস্থ চেয়ারম্যান বাড়ির গলির রহিম ভিলার ১ম তলায় শাহ আলম ফকিরের ছেলে অনিকের ঘরে নিয়ে গিয়ে ভিকটিমকে মিথ্যা বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে জোরপ‚র্বক ধর্ষণ করে আরমান।

এদিকে স্কুলছাত্রী বাড়িতে না ফেরায় স্বজনরা খোঁজাখুজি শুরু করে খবর পেয়ে অনিকের বাসা থেকে স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার করে তার বাবা। পরে ভিকটিমের মুখে বিষয়টি শুনে থানায় মামলা দায়ের করা হয়। এই বিষয়ে এয়ারপোর্ট থানার সেকেন্ড অফিসার অরবিন্দ বিশ্বাস জানান, ধর্ষণের ঘটনায় ইতোমধ্যে ম‚ল আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্য আসামিকেও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

সীতাকুÐ (চট্টগ্রাম) : সীতাকুÐে র‌্যাবের সাথে বন্ধুক যুদ্ধে ছাত্রী ধর্ষণ মামলার এক আসামি নিহত হয়েছে। নিহতের নাম মোঃ রানা (২৩)। গতকাল বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৫টার সময় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতাল সংলগ্ন এলাকার পশ্চিম মুরাদপুর সড়কের পাশে এ ঘটনা ঘটে বলে জানা গেছে।
র‌্যাব-৭ চট্টগ্রামের মিডিয়া অফিসার এএসপি মাশকুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, গত ফেব্রæয়ারী মাসে রানার বিরুদ্ধে ৭ম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণের মামলা দায়ের হয়। ভোরে তাকে গ্রেফতারের উদ্দেশ্যে রওনা দেয় র‌্যাবের একটি দল। দুস্কৃতিকারী রানা র‌্যাব সদস্যদের দেখেই গুলি ছোঁড়ে। এ সময় জানমাল রক্ষায় র‌্যাব সদস্যরাও পাল্টা গুলি চালালে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে ১১ রাউন্ড গুলি ও একটি বন্দুক উদ্ধার করা হয়েছে।

 

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (7)
Faysal Mahmud ২৮ জুন, ২০১৯, ৩:৫৮ এএম says : 0
শিক্ষক আশরাফুল আরিফকে আদালতের রায় স্বাপেক্ষে ওই স্কুলের মাঠে প্রকাশ্যে মৃত্যুদন্ড দেয়া উচিত বলে আমি মনে করি
Total Reply(1)
MAHMUD ২৮ জুন, ২০১৯, ১১:২৭ এএম says : 0
BHAI FAYSAL I AM AGREE WITH YOU BUT DONDOTA DIBE KARA.
Kamal Hasan ২৮ জুন, ২০১৯, ৪:০২ এএম says : 0
আশরাফুল আরিফ শিক্ষক জাতির জন্য কলঙ্ক
Total Reply(0)
সাব্বির ২৮ জুন, ২০১৯, ৪:১৪ এএম says : 0
সকলের কঠোর শাস্তি চাই
Total Reply(0)
কাউসার ২৮ জুন, ২০১৯, ৪:১৭ এএম says : 0
ছাত্রলীগের কিছু দুষ্কৃতী কারীদের জন্য দলের দুর্নাম হচ্ছে এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হোক
Total Reply(0)
সুজন ২৮ জুন, ২০১৯, ৪:১৮ এএম says : 0
ধর্ষণ এখন দেশে মহামারি আকারে দেখা দিয়েছে এখনই এর প্রতিকার করা দরকার
Total Reply(0)
নাবিল ২৮ জুন, ২০১৯, ৪:২১ এএম says : 0
ধর্ষণের একমাত্র শাস্তি হওয়া উচিত মৃত্যুদন্ড
Total Reply(0)
আকাশ ২৮ জুন, ২০১৯, ১২:০৯ পিএম says : 0
khub dukkhojonok
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন