রোববার, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ১৫ মাঘ ১৪২৯, ০৬ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

খেলাধুলা

নতুন মেয়াদকে চ্যালেঞ্জিং বলছেন হাতুরুসিংহে

দ্বিতীয় মেয়াদে কাজ শুরু করেছেন হেড কোচ ষ নির্বাচক কমিটিতে কোচের থাকার পক্ষে তিনি

প্রকাশের সময় : ৩ জুন, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বিশেষ সংবাদদাতা : টি-২০ বিশ্বকাপ শেষে লম্বা ছুটি কাটিয়ে ২ মাস পর ফিরেছেন ঢাকায়। বোলিং কোচ হিথ স্ট্রিক বিসিবিকে ‘না’ বলেছেন, ফিল্ডিং কোচ রিচার্ড হ্যালসল এখনো তার সিদ্ধান্ত জানাননি। তবে হেড কোচ পদে হাতুরুসিংহের চুক্তি নবায়ন হচ্ছে, বিসিবি’র পক্ষ থেকে আশ্বস্ত হয়ে গতকাল থেকেই কাজ শুরু করে দিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট ইতিহাসে সবচেয়ে সফল এই কোচ। তার নুতন মেয়াদে বাংলাদেশ দলকে পড়তে হবে কঠিন চ্যালেঞ্জে। সেই চ্যালেঞ্জে জিতে বাংলাদেশ দলের স্বর্ণালী সময়ের অপেক্ষায় এখন হাতুরুসিংহে। গতকাল ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান এবং বিসিবি’র সিইও হাতুরুসিংহের সাথে কথা বলে মিডিয়াকে সে ভবিষ্যদ্বাণীই দিয়েছেনÑ ‘আগামী ২-৩ বছর হবে বাংলাদেশ ক্রিকেটের স্বর্ণালী সময়। তামিম, সাকিব, মাশরাফি, মুশফিক, রিয়াদের মত ক্রিকেটারদের নিজেদের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তাদের ধারাবাহিকভাবে পারফর্ম করার সময় এখনই।’
হাতুরুসিংহের নুতন মেয়াদে এ বছর ভারত সফর ছাড়াও অপেক্ষা করছে এ বছর ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফর। আইসিসি’র এফটিপিতে এ বছরের শেষে নিউজিল্যান্ড সফর, আগামী বছরে অস্ট্রেলিয়া এবং শ্রীলংকা ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফর ছাড়াও আছে দ.আফ্রিকা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর। আছে ইংলিশ কন্ডিশনে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির চ্যালেঞ্জ।
গত এক বছর ধরে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলে হোমে নিজেদেরকে মেলে ধরায় এখন দেশের বাইরে পারফর্মের পরীক্ষা দিতে হবে বলে মনে করছেন তিনিÑ ‘আগামী ২ বছরে বিদেশের মাটিতে অনেক ক্রিকেট ম্যাচ খেলতে হবে। গত ২ বছর আমরা হোমে অনেক ম্যাচ খেলেছি। বাংলাদেশের ক্রিকেট কতোটা উন্নতি করেছে, তা দেখতে চাই। চ্যালেঞ্জটা হবে কন্ডিশনের সঙ্গে। কারণ, লম্বা সময় ধরে দেশের বাইরে বাংলাদেশ দল খেলছে না। বড় টুর্নামেন্ট ছাড়া খুব একটা টি-২০ ম্যাচ খেলিনি। লম্বা সময় ধরে টেস্টও খেলছি না। টেস্ট ম্যাচ জিততে গেলে আমাদের এমন এক বোলিং ইউনিট দরকার, যারা ২০ উইকেট নিতে পারে। এটাই আমাদের জন্য কঠিন চ্যালেঞ্জ। এই চ্যালেঞ্জ নিতেই আমি মুখিয়ে আছি। একই সময়ে দলের প্রধান বোলারদের এবং প্রধান ক্রিকেটারদের কতোটা ইনজুরি মুক্ত রাখতে পারি,সেটাও আমাদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। তারপরও বলব, আমরা ঠিক পথেই এগুচ্ছি। আমরা বেশ কিছু ভাল বোলার পেয়েছি, পেয়েছি কিছু তরুণ তারকাকেও।’  
চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সূচী প্রকাশ করেছে আইসিসি গত পরশু। ইংল্যান্ড,অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে খেলতে হবে বাংলাদেশ দলকে। ইংলিশ কন্ডিশনে তিনটি প্রতিপক্ষই কঠিন। তা মানছেন হাতুরুসিংহেওÑ ‘স্বাগতিক দলের সঙ্গে খেলা এমনিতেই কঠিন। আমাদের খেলতে হবে অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষেও। ওডিআই ক্রিকেটে এই দল দু’টি এক এবং দুই নম্বরে আছে। তাই আমরা কঠিনতম গ্রুপে পড়েছি। এটাও আমাদের জন্য কঠিন চ্যালেঞ্জ। আমাদেরকে সেভাবেই প্রস্তুত হতে হবে। সে পরিকল্পনা আমাদের আছে। চ্যাস্পিয়ন্স ট্রফিকে সামনে রেখে আমরা আয়ারল্যান্ড সফরে প্রস্তুতি নিতে পারব। কারণ সেখানে আয়ারল্যান্ড এবং নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজ খেলবে।’
সম্প্রতি ওয়ার্কিং কমিটি হেড কোচকে নির্বাচক কমিটির সঙ্গে যুক্ত করে ৭ সদস্যের যে নির্বাচক প্যানেলের প্রস্তাব দিয়েছে, সেই প্রস্তাব নিয়ে মিডিয়ায় হচ্ছে তীব্র সমালোচনা। তবে জাতীয় দলের নির্বাচক কমিটিতে হেড কোচকে অন্তর্ভুক্ত করার এই প্রস্তাবের পক্ষেই ওকালতি করেছেন হাতুরুসিংহেÑ ‘বিষয়টি আমি মিডিয়ার মাধ্যম জেনেছি। আমি মনে করি এটা দারুণ এক ধারণা। যদি আমি নির্বাচক কমিটিতে থাকি, তাহলে প্রত্যেক খেলোয়াড় এবং নির্বাচকদের জন্য কাজটি সহজ হয়ে যাবে। নির্বাচক এবং খেলোয়াড়দের মধ্যে যোগাযোগটাও অনেক ভাল হবে। কারন, দিন শেষে দল নির্বাচনের দায়িত্বটা পড়ছে আমার উপরই।’  
চুক্তিতে ৩০ দিনের বেশি একটানা অ্যাসাইনমেন্ট ছাড়া ছুটি কাটানোর কথা নয় হাতুরুসিংহের। তার পরও টানা ২ মাস কাটিয়েছেন পরিবার পরিজনের সঙ্গে। তবে এই দু’মাস বাংলাদেশের ক্রিকেটের খোঁজ-খবর রেখেছেন। ইন্টারনেটের মাধ্যমে ঢাকা ক্রিকেট লীগের খবর জেনেছেন হাতুরুসিংহে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন