ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬, ১৪ সফর ১৪৪১ হিজরী

মহানগর

ডিএনসিসির মশক নিধনে কমিটি : ক্র্যাশ প্রোগ্রাম শুরু আজ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৯ জুন, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন এলাকায় আজ থেকে শুরু হচ্ছে মশক নিধনে দুই সপ্তাহব্যাপী ক্র্যাশ প্রোগ্রাম। কর্পোরেশনের স্বাভাবিক কার্যক্রমের পাশাপাশি অতিরিক্ত জনবল, ফগার মেশিন ও ওষুধ মজুদ নিয়ে আগামী ১১ জুলাই পর্যন্ত এ প্রোগ্রাম চলবে। এদিকে মশক নিধন কার্যক্রম পরিচালনার সময় সঠিকভাবে মশা মারার ওষুধ ছিটানো হয় না নগরবাসীর এমন অভিযোগ অনেক পুরনো। এ অভিযোগের প্রেক্ষিতে নতুন উদ্যোগ নিতে যাচ্ছে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি)। কোন এলাকায় মশার ওষুধ ছিটানো হয়নি কিংবা কোন এলাকায় ওষুধ ছিটানোর পরও মশার উপদ্রব থামেনি, এমন অভিযোগগুলো তদন্তের জন্য প্রতিটি ওয়ার্ডে বিশেষ কমিটি গঠনের উদ্যোগ নিয়েছে ডিএনসিসি। গতকাল শুক্রবার ডিএনসিসির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ মোমিনুর রহমান মামুন ইনকিলাবকে এ তথ্য জানান।

ডিএনসিসি সূত্রে জানা গেছে, মশক নিধন কার্যক্রম সঠিকভাবে বাস্তবায়িত হচ্ছে কিনা, তা তদারকি করতে প্রতিটি ওয়ার্ডে সাত সদস্যের একটি করে কমিটি গঠন করা হচ্ছে। স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলরকে প্রধান করে এ কমিটি গঠন করা হবে। কমিটিতে স্থানীয় বিশিষ্ট ও গণ্যমান্য ব্যক্তি, মসজিদের ঈমাম, সাংবাদিক, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তা বা কর্মচারীর সমন্বয়ে এই কমিটি গঠন করা হবে।

জানা গেছে, এ কমিটি নিয়মিতই মশক নিধন কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করবে। এছাড়াও এ কমিটি কোন এলাকায় মশার ওষুদ ছিটানো হলো কোন এলাকায় নিয়মিত মশার ওষুধ ছিটানো হলো না, এ অভিযোগগুলো সরেজমিনে যাচাই করবে। সেই সঙ্গে কোন এলাকায় মশক নিধনের কার্যক্রম সঠিক ভাবে পরিচালিত হচ্ছে না- অভিযোগ এলে তার তদন্ত করবে এ কমিটি। এরপর মশক নিধন কর্মীদের দায়িত্বে অবহেলার প্রমাণ পেলেও তাদের বিরুদ্ধে সিটি কর্পোরেশনের কাছে শাস্তিমূলক ব্যবস্থার জন্য সুপারিশ করবে এই কমিটি।

স¤প্রতি ডিএনসিসি’র ৩৫ নম্বর ওয়ার্ডে এক অনুষ্ঠানে ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া নিয়ন্ত্রণে সবাইকে সচেতন হওয়ার আহŸান জানিয়ে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, বাড়ি বা বাড়ির আশেপাশে জমে থাকা স্বচ্ছ পানিতে ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া রোগের বাহক এডিস মশা বংশ বিস্তার করে। তাই প্রতিটি নাগরিককে এ বিষয়ে সচেতন হতে হবে। সবাই সচেতন হয়ে কাজ করলে ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া দূর করা সম্ভব।

মেয়র বলেন, এছাড়া মসজিদের ঈমামদের এ বিষয়ে জনগণকে সচেতন করার জন্য অনুরোধ করেছি। ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া মোকাবিলা করা একটি বড় চ্যালেঞ্জ। তাই আজ শনিবার রাজধানীর মানিক মিয়া এভিনিউতে এ বিষয়ে একটি বড় ধরনের জনসচেতনামূলক প্রোগ্রামের আয়োজন করা হয়েছে। এরপর থেকেই শুরু হবে মশক নিধনে ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে ক্র্যাশ প্রোগ্রাম।

আজ শনিবার থেকেই মশক নিধন ও নিয়ন্ত্রণে ডিএনসিসির উদ্যোগে দুই সপ্তাহব্যাপী ক্র্যাশ প্রোগ্রাম শুরু হচ্ছে। স্বাভাবিক কার্যক্রমের পাশাপাশি অতিরিক্ত জনবল, ফগার মেশিন ও ওষুধ মজুদ নিয়ে আগামী ১১ জুলাই পর্যন্ত এ প্রোগ্রাম চলবে বলে জানিয়েছেন ডিএনসিসির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ মোমিনুর রহমান মামুন।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন