ঢাকা, শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯, ০৯ ভাদ্র ১৪২৬, ২২ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

খেলাধুলা

ইংল্যান্ডের ভারত পরীক্ষা আজ

জাহেদ খোকন | প্রকাশের সময় : ৩০ জুন, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপে স্বাগতিক ইংল্যান্ডের আজ ভারত পরীক্ষা। এই পরীক্ষায় কৃতকার্য না হলে পস্তাতে হবে ইংলিশদের। যদি ভারত জয় পায় তাহলে বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের টিকে থাকাটা হুমকির মুখে পড়বে। কারণ লিগে স্বাগতিকদের শেষ ম্যাচ হট ফেভারিট নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। যারা এবার রয়েছে দূর্দান্ত ফর্মে। এমনিতেই পরপর দু’ম্যাচে শ্রীলঙ্কা ও অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরে প্রায় থমকে গেছে ইংল্যান্ডের আত্মবিশ্বাস। ভারতের বিপক্ষে জিততে না পারলে সেমিফাইনালে যাওয়ার সম্ভাবনা আরো কমবে তাদের। এজবাস্টনে আজ বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টায় শুরু হবে ভারত-ইংল্যান্ড গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচটি। বিশ্বকাপের এবারের আসরের ৩৮তম এই ম্যাচটিকে ঘিরে এখন টানটান উত্তেজনা গোটা ক্রিকেটবিশ্বে। কারণ সেমি’র লড়াইয়ে ইংল্যান্ডের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছে বাংলাদেশ ও পাকিস্তান। উপরের তিন দল যথাক্রমে অস্ট্রেলিয়া, ভারত ও নিউজিল্যান্ডের শেষ চারে খেলা প্রায় নিশ্চিত। সেমিফইিনালের চতুর্থ দলটিকে নিয়ে এখন চলছে হিসেব-নিকেশ। যেখানে ইংল্যান্ড রয়েছে প্রায় তোপের মুখে। বিশ্বকাপের দ্বাদশ আসর শুরুর আগে ঘরের মাঠে শিরোপা জয়ের অন্যতম দাবিদার হিসেবে ধরা হচ্ছিল ইংল্যান্ডকে। খেলা মাঠে গড়ানোর পর ইংলিশরা প্রথম পাঁচটা ম্যাচের চারটিতে জয় পাওয়ার পর সেই দাবি আরো জোরদার হয়েছিল। তাদের সেমিফাইনালে উঠা নিয়ে কোনও সমস্যা হতে পারে তা কেউ ভাবতেই পারেননি। কিন্তু ইংলিশদের সব হিসেব-নিকেশ এক ঝঁটকায় বদলে দেয় লঙ্কানরা। ইংল্যান্ডকে ২০ রানে হারিয়ে শ্রীলঙ্কা তাদের সেমির পথ কঠিন করে দেয়। পরের ম্যাচে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়ার কাছে ৬৪ রানে হেরে অনেকটাই ব্যাকফুটে চলে যায় ইংল্যান্ড। সেখান থেকে ফিরতে হলে বাকি দু’ম্যাচের অন্তত একটিতে জিততে না পারলে কপালে দুঃখ থাকতে পারে স্বাগতিকদের।

অন্যদিকে বিশ্বকাপের এবারের আসরে দারুণ ছন্দে থাকা ভারত একের পর এক ম্যাচ জিতে উজ্জীবিত অবস্থায় রয়েছে। সম্প্রতি ইংলিশদের পেছনে ফেলে আইসিসি র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে উঠে এসেছে তারা। শুরু থেকেই ভারতের পারফরমেন্স বলে দেয়, এবার বিশ্বকাপ শিরোপার অন্যতম দাবিদার তারা। এখন পর্যন্ত টুর্নামেন্টের একমাত্র অপরাজিত দল ভারতই। ছয় ম্যাচের পাঁচটিতে জিতে এবং নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়া ম্যাচে এক পয়েন্ট পেয়ে তালিকায় নিরাপদ অবস্থানেই আছে ভারতীয়রা। ইতোমধ্যে বিশ্ব ক্রিকেটের স্বীকৃত শক্তি দক্ষিণ আফ্রিকা, বিশ্বকাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া, পাকিস্তান, আফগানিস্তান এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে নিজেদের শক্তির প্রমাণ দিয়েছে তারা। আজ তাদের বিপক্ষে ইংল্যান্ডকে জিততে হলে অনেক বেশী ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে। কারণ ব্যাটিং, বোলিং ও ফিল্ডিংয়ে এবার দারুণ পারফরমেন্স দেখাচ্ছেন ভারতের ক্রিকেটাররা। তাদেরকে হারানো সহজ কাজ নয়। যদিও সর্বশেষ ওয়ানডে সিরিজে ভারতের বিপক্ষে ইংল্যান্ডেরই জয় ছিল। ২০১৮ সালের জুলাই মাসে ঘরের মাঠে ইংল্যান্ড ৩-২ ব্যবধানে ভারতকে হারিয়ে সিরিজ জিতেছিল। আর ছয় বছর আগে এই এজবাস্টনেই আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে ইংলিশদের হারিয়ে শিরোপা জিতেছিল ভারত।

পাকিস্তান-নিউজিল্যান্ড ম্যাচের মত বল ঘোরার সম্ভাবনা আছে এখানে। নিউজিল্যান্ড-পাকিস্তান ম্যাচে ঠিক তাই হয়েছিল। এই পিচে ২৭০ রান যথেষ্ট হতে পারে। আজকের ম্যাচে চোখ থাকবে ইংল্যান্ডের স্পিনার আদিল রশিদ ও ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলির উপর। জেসন রয়ের ফেরা না ফেরার উপর ইংল্যান্ডের সাফল্য অনেকটাই নির্ভর করবে। তবে রয়ের থেকেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা হয়ত নিতে পারেন রশিদ। এই পরিস্থিতিতে বাড়তি দায়িত্ব নিতেই হবে ইংল্যান্ডের সেরা স্পিনার রশিদকে। গত বিশ্বকাপের পর থেকে ওয়ানডে ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি উইকেট নিয়েছেন রশিদই। কিন্তু চলতি বিশ্বকাপে তার উইকেট মাত্র সাতটা। গড় ৫১.৮৫। ভারতের বিপক্ষে ঘূর্ণি পিচ পেলে কী করবেন তিনি? বিপরীতে গত চারটে ইনিংসের প্রত্যেকটিতে পঞ্চাশ পেরোলেও এই বিশ্বকাপে শতরান এখনও জোটেনি বিরাট কোহলির ভাগ্যে। তবে স্বভাবসিদ্ধ আভিজাত্য দেখা গেছে তার ব্যাটিংয়ে। চাপের মুখে সাধারণত সফল হন তিনি। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে খেলা, এজবাস্টনের গ্যালারি থেকে ভেসে আসা ক্রমাগত চিৎকার- সবকিছুর মধ্যে নিজের সেরাটা কি এ ম্যাচে মেলে ধরবেন তিনি?

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন