ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬, ১৯ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

সারা বাংলার খবর

উদ্বেগে অবৈধ সম্পদের মালিক ও সংঘবদ্ধ ভুমি জালিয়াত চক্র

বগুড়ায় দুদকের মামলা ও নেটিশ

বিশেষ সংবাদদাতা, বগুড়া | প্রকাশের সময় : ১ জুলাই, ২০১৯, ৪:৫৩ পিএম

 

বগুড়ায় দুর্নিতী দমন কমিশন দুদ’ক নড়েচড়ে ওঠায় এবং প্রভাবশালীদের বিরুদ্ধে একের পর পর এক মামলা করায় বা সম্পদ বিবরনী চেয়ে নোটিশ করায় ভয় ছড়িয়ে পড়েছে অবৈধ পথে সম্পদ অর্জনকারীদের মধ্যে । বগুড়া দু’দকে খোঁজ নিয়ে জানা যায়,অতিসম্প্রতি বগুড়ার প্রভাবশালী আওয়ামীলীগ নেতা মঞ্জুরুল আলম মোহন ও তার স্ত্রী কোহিনুর মোহনের বিরুদ্ধে দ’ুদকে দায়ের করা একটি অভিযোগ পত্র আমলে নিয়ে তাদেরকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। চিঠিতে মোহন দম্পতিকে ২১ কার্যদিবসের মধ্যে তাদের স্থাবর ও অস্থাবর সম্পত্তির বিবরনী বগুড়া দ’ুদকে দাখিল করতে বলা হয়েছে ।

এর আগে বগুড়ার প্রভাবশালী পরিবহণ ব্যবসায়ী ও বগুড়া মোটর মালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম ওরফে আমিনুরের বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ তদন্ত করে চার্জশিট দিয়েছে দু’দক । তবে আমিনুলের বিরুদ্ধে মামলার তদন্ত ও তদন্ত শেষে চার্জশিট দেওয়ার কাজটি করেছে দু’দকের ঢাকাস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা। ফলে বিষয়টি সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যায়নি ।
সম্প্রতি বগুড়া জেলা ট্রাক মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও তরুন যুবলীগ নেতা আব্দুল মতিন সরকারও দু’দকের চার্জশিট ভুক্ত আসামি হিসেবে বগুড়া জেলা জজ আদালতে হাজির হয়ে জামিন নিতে গিয়ে জামিন না পেয়ে বেশ কিছুদিন জেল হাজত কেটে জামিনে মুক্ত হয়েছেন ।
সর্বশেষ মামলার ঘটনায় দ’ুদক বগুড়া শাখার সহকারি পরিচালক আমিনুল ইসলাম বাদি হয়ে বগুড়ার প্রভাবশালী ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ মন্ডলের বিরুদ্ধে জ্ঞাত আয় বহির্ভুত ১৯ লাখ ৭৭ হাজার টাকার সম্পদ অর্জনের দায়ে তার নামে দু’দক বগুড়া কার্যালয়ে মামলা করেছেন। এর আগে দু’দক তার সম্পদ বিবরণী চেয়ে চিঠি দিলে জবাবে তিনি ১৭ লাখ ১০ হাজার টাকার সমমানের সম্পদের হিসাব দাখিল করেণ । তবে দু’দকের অনুসন্ধানে লতিফ মন্ডলের সম্পদ পাওয়া যায় , ৩৬ লাখ ৭৭ হাজার ৮৮ টাকা মুল্যের সমমানের সম্পদ ।
অন্য একটি ঘটনায় বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলায় ক’ তফশীল ভুক্ত ৩৩ শতাংশ খাস জমির ভুয়া মালিক সাজিয়ে বিক্রি দলীল সম্পাদনের দায়ে উপজেলার সাব রেজিস্ট্রার সহ ১২ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দু’দকের বগুড়া অপিসের সহকারি পরিচালক রবীন্দ্র নাথ চাকী। এই মামলার আসামিরা হল আদমদীঘি উপজেলার সাব রেজিস্ট্রার মোঃ ইউসুফ আলী , মোহরার রাকিব হোসেন, জমি দাতা রবীন্দ্র নাথ রায় চৌধুরী সহ শ্রমিক লীগ নেতা নিসরুল হামিদ, সাজেদুল ইসলাম, শাহিনুর রহমান মন্টি, রাশেদুল ইসলাম রাজা, শাহিদুল ইসলাম , আইয়ুব খান, রেজা খান, হারুন অর রশিদ ও চন্দন কুমার।
এই মামলার আসামীরা ক্ষমতাসীন দলের ছত্রচ্ছায়ায় থেকে সংঘবদ্ধ ভাবে ভুমি জালিয়াতি করে বিপুলভাবে বিত্ত্বশালী হয়ে উঠেছিল । তবে তাদের বিরুদ্ধে দু’দক মামলা করায় অনুরুপ অপরাধের সাথে জড়িত অন্যদের মধ্যেও উদ্বেগ ও আতংক ছড়িয়ে পড়েছে ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন