ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯, ০৫ ভাদ্র ১৪২৬, ১৮ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

সারা বাংলার খবর

চালু হচ্ছে বেনাপোল-ঢাকা বিরতিহীন ট্রেন

বেনাপোল অফিস : | প্রকাশের সময় : ২ জুলাই, ২০১৯, ১২:০৬ এএম

 বেনাপোল-ঢাকা বিরতিহীন ট্রেন চালু হবে আগামী ২৫ জুলাই। স্বাধীনতার ৪৮ বছর পর আবারও ঢাকা-বেনাপোলের মধ্যে ট্রেন যোগাযোগ চালু হওয়ায় খুশি এ অঞ্চলের সাধারণ মানুষ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঢাকা থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ট্রেন চলাচলের উদ্বোধন করবেন বলে জানান বেনাপোল রেলস্টেশন মাস্টার সাইদুজ্জামান ।

ঢাকার সঙ্গে রেল যোগাযোগ চালু হলে ব্যবসা বাণিজ্যের পাশাপাশি পাসপোর্ট যাত্রী যাতায়াতের ব্যাপক সুবিধা হবে। প্রতিদিন দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে ভারতে ছয় থেকে সাত হাজার যাত্রী যাতায়াত করে থাকে। এই যাত্রীদের সিংহভাগ আসে ঢাকা থেকে। বেনাপোল থেকে পরিবহন সঙ্কট, দৌলতদিয়া পাটুরিয়া ফেরিঘাটে যানজটের কারণে যাত্রীরা নানামুখি হয়রানির শিকার হয়। রেলচালু হওয়ায় সেই হয়রানি লাঘব হবে।

বেনাপোল রেলস্টেশন মাস্টার সাইদুজ্জামান বলেন, চলতি মাসের ২৫ তারিখে বেনাপোল ঢাকা রেল চালু হবে। এই রেলটিতে ১০টি বগি থাকবে। তবে রেলের কোনও নাম এখনও নির্ধারণ হয়নি। প্রাথমিকভাবে বেনাপোল এক্সপ্রেস, বন্দর এক্সপ্রেস ও ইছামতি এক্সপ্রেস এই তিনটি নাম পছন্দ করা হয়েছে। তিনি বলেন, ১০টি বগির ভিতর দুটি কেবিন, দুটি এসি চেয়ার ও বাকিগুলো চেয়ার থাকবে। কেবিনের ভাড়া প্রাথমিকভাবে এক হাজার ২০০ টাকা, এসি চেয়ারের ভাড়া এক হাজার টাকা ও নন এসি চেয়ার ভাড়া হবে ৫০০ টাকা। তবে এটি সামান্য কয়েকটি স্টপিজে থামানো হবে। এক কথায় ননস্টপ হিসেবে এ রেলটি চলবে।

স্থানীয়রা জানান, ব্যবসা-বাণিজ্য ও চিকিৎসার জন্য বেনাপোল রুটে কলকাতার সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজ হওয়ায় এই পথে দেশের সিংহভাগ মানুষ যাতায়াত করে থাকে।

তাই রেল চালু হলে যাত্রীর সংখ্যা বাড়বে। সরকারের রাজস্ব আয়ও বাড়বে। গত শনিবার সোহাগ পরিবহনের আসা ভারতে যাওয়ার পথে বেনাপোল চেকপোস্টে ঢাকার পাসপোর্টযাত্রী আলমগীর হোসেন জানান, আরিচা ঘাটের যানজটের কারণে আমাদের নাজেহাল হতে হয়। গতকাল রাত ১০টায় ঢাকা থেকে বাসে উঠে বেনাপোল আজ বেলা ২টার সময় নেমেছি। এতে অসুস্থতা বোধ করছি।

বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্ড’র সভাপতি মফিজুর রহমান সজন বলেন, ব্যবসা-বাণিজ্য চিকিৎসার জন্য আমার ভারতে উপর বেশি নির্ভরশীল। কিন্তু ভারতের সাথে আমাদের যোগাযোগের মাধ্যম শুধু বাস। ঢাকা-বেনাপোল রুটে রেল চালু হলে শুধু বেনাপোল নয় গোটা দেশ এগিয়ে যাবে।

ভারত বাংলাদেশ ল্যান্ডপোর্ট চেম্বার কর্মাসের আমদানি-রপ্তানি সাব কমিটির চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান বলেন, এ মাসেই বেনাপোল-ঢাকা রুটে রেল চালু হচ্ছে। আমাদের স্বপ্ন স্বার্থক হবে। রেল সেবা চালু হলে দু দেশের মধ্যে ব্যবসা-বাণিজ্যের স¤প্রসারণ হবে।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন