ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬, ১৭ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

জাতীয় সংবাদ

ম্যাজিস্ট্রেটসহ আহত ৫

বুড়িগঙ্গায় উচ্ছেদ অভিযানে দুর্বৃত্তদের হামলা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১২ জুলাই, ২০১৯, ১২:০৬ এএম

৯০ স্থাপনা উচ্ছেদ, এক কোটি ৪৪ লাখ টাকার সম্পদ নিলামে বিক্রি


ঢাকার বুড়িগঙ্গা নদীর উত্তর অংশের শ্মশানঘাট এলাকায় উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনার সময় বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডবিøউটিএ) কর্মকর্তাদের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। এই হামলায় এক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটসহ পাঁচজন আহত হয়েছেন। এসময় তিন হামলাকারীকে আটক করেছে পুলিশ। তাদের প্রত্যেককে তিন মাস করে কারাদÐ দেওয়া হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে বিকেল পর্যন্ত এ উচ্ছেদ অভিযান চলে। এদিকে, গতকালকের উচ্ছেদ অভিযানে ৯০টি স্থাপনা উচ্ছেদ ও এক কোটি ৪৪ লাখ ৬০ হাজার টাকার সম্পদ নিলামে বিক্রি করা হয়।

বিআইডবিøউটিএ সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে উচ্ছেদ অভিযানের চতুর্থ পর্যায়ের দ্বিতীয় পর্বের তৃতীয় দিনে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ও নদীর জায়গা উদ্ধারে কার্যক্রম শুরু হয়। অভিযান চলাকালে বেলা ১১টার দিকে শ্মশানঘাটের ইজারাদার ইব্রাহিম আহমেদ রিপনের নেতৃত্বে একদল শ্রমিক উচ্ছেদকারী কর্মকর্তাদের উপর হামলা করে। এতে এক ম্যাজিস্ট্রেটসহ ৫ কর্মকর্তা আহত হয়।

বিআইডাবিøউটিএ’র যুগ্ম পরিচালক এ কে এম আরিফ উদ্দিন হামলার ব্যাপারে বলেন, আমরা উচ্ছেদের আগেই অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নিতে তাদেরকে নোটিশ দিয়েছিলাম। কিন্তু তারা এই বিষয়টি আমলে নেয়নি। বৃহস্পতিবার যখন উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করতে আসি, তখন শতাধিক শ্রমিকের একটি দল আমাদের বাধা দিতে তেড়ে আসে। একপর্যায়ে ইজারাদার ইব্রাহিম তার দলবল নিয়ে আমাদের উপর হামলা করে। এসময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোস্তাফিজুর রহমানসহ পাঁচজন আহত হয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, হামলায় উচ্ছেদ অভিযান ব্যাহত হলেও ঘণ্টাখানেক পর ফের উচ্ছেদ শুরু করে বিকাল পর্যন্ত চলে। কোনো হামলা, ভয়ভীতি, পেশীশক্তি কিংবা টাকার জন্য উচ্ছেদ অভিযান থামানো হবে না। যেকোনো মূল্যে অবৈধ স্থাপনাগুলো উচ্ছেদ করে বুড়িগঙ্গার প্রাণ ফিরিয়ে আনা হবে।

এদিকে, হামলার খবর পেয়ে ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ দ্রæত ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এসময় হামলাকারীদের মূল হোতা ইব্রাহিম পালিয়ে গেলেও তার ছোট ভাই বাপ্পীসহ তিনজনকে আটক করে প্রত্যেককে তিন মাস করে কারাদÐ দেয় ভ্রাম্যমান আদালত। এছাড়া তাদের বিরুদ্ধে সরকারি কাজে বাধা ও কর্মকর্তাদের ওপর হামলার অভিযোগে মামলা দায়ের করা হবে বলে তিনি জানান।

ঢাকা নদীবন্দরের উপপরিচালক মিজানুর রহমান বলেন, বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বিকাল পর্যন্ত অভিযান চালানো হয়। এতে ৯০টি স্থাপনা উচ্ছেদ ও এক কোটি ৪৪ লাখ ৬০ হাজার টাকার সম্পদ নিলামে বিক্রি করা হয়। আগামী সোমবার থেকে আবার অভিযান শুরু হবে বলে তিনি জানান।

বিআইডবিøউটিএ সূত্র জানায়, গেল ৪৩ কার্যদিবস ধরে চলা উচ্ছেদ অভিযানে এই প্রথম বাধার মুখে পড়লো। অভিযানে এ পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ৪ হাজার অবৈধ স্থাপনা অপসারণসহ ১০০ একর জমি উদ্ধার ও পাঁচ কোটি টাকার মালামাল নিলামে তোলা হয়েছে।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন