ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯, ০৩ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৪ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

সারা বাংলার খবর

ডেঙ্গু আক্রান্তের ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি

ডিএসসিসি মেয়রকে লিগ্যাল নোটিশ

স্টাফ রিপোর্টার : | প্রকাশের সময় : ১২ জুলাই, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

এবার ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হওয়ায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়রের কাছ থেকে ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে লিগ্যাল নোটিস দেয়া হয়েছে।
গতকাল বৃহস্পতিবার সুপ্রিমকোর্ট বারের আইনজীবী তানজিম আল ইসলাম ডাকযোগে এ নোটিস পাঠান। এতে তিনি বলেন, গত ২৯ জুন আমার স্ত্রী ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। তার রক্তে প্লাটিলেট ১১ হাজারে নেমে অবস্থা সংকটাপন্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে। চিকিৎসকদের আন্তরিক প্রচেষ্টায় পাঁচ দিন হাসপাতালে থেকে আংশিক সুস্থতা লাভ করেন। গত বছরের অক্টোবরে আমি নিজেও ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হই।
নোটিসে বলা হয়, নোটিস গ্রহিতাদের প্রধান দায়িত্ব হচ্ছে মশা নিধন করা ও সিটির বাসিন্দাদের জন্য শহরকে বাসযোগ্য নগরীতে রূপান্তরিত করা। কিন্তু, এ এলাকায় (খিলগাঁও থানার ১ নম্বর ওয়ার্ড) প্রায় তিন বছর বসবাস করছি। এখন পর্যন্ত মশা নিধনে কোনো কার্যকর পদক্ষেপ নিতে দেখিনি। এমনকি, সচেতনতামূলক প্রচারণাও করা হয়নি।


ভয়ঙ্কর এডিস মশা নিধনে আপনাদের ব্যর্থতা স্পষ্ট প্রতীয়মান ও এর জন্য আপনারা দায়ী। অ্যাডভোকেট তানজিম আল ইসলাম বলেন, আমার স্ত্রীর চিকিৎসা ও জ্বরের কারণে সন্তানসহ পরিবার অপূরণীয় ক্ষতির সম্মুখিণ। এ ক্ষতির দায়ভার আপনাদের ওপর বর্তায়। কারণ, নাগরিকদের মশার উৎপাত থেকে বাঁচানোর দায়িত্ব আপনাদেরই।
আমার স্ত্রীর চিকিৎসা বাবদ ৫০ হাজার টাকা, আমার আইনজীবী হিসেবে কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকার জন্য আড়াই লাখ টাকা, দুই সন্তানের শারীরিক ও মানসিক ক্ষতির পরিমাণ ও পরিবারের নিদারুণ মানসিক ক্ষতির পরিমাণ অপূরণীয় হলেও, ৪৭ লাখ টাকা নির্ধারণ করা হলো।
অর্থাৎ, আপনাদের মশা নিধনে ব্যর্থতার দরুন আমার মোট ৫০ লাখ টাকার আর্থিক ক্ষতি হয়েছে। এ ক্ষয়ক্ষতির জন্য আপনারা আইনত দায়ী। নোটিসে খিলগাঁও ১ নম্বর ওয়ার্ডের মশা নিধনে ৩ দিনের মধ্যে কার্যকর ব্যবস্থ নিতে বলা হয়। অন্যথায় আইন অনুযায়ী ক্ষতিপূরণ আদায়ে রিট করা হবে বলে হুঁশিয়ারি দেয়া হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন