ঢাকা, বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯, ০৬ ভাদ্র ১৪২৬, ১৯ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

জাতীয় সংবাদ

ট্রেনে স্কুলছাত্রী ধর্ষণ

বিভিন্ন স্থানে শিকার ৪

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১২ জুলাই, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

প্রলোভন দেখিয়ে মুগদা হাসপাতালের সামনে থেকে রাজধানীর কমলাপুরে নিয়ে ট্রেনের ভেতরে এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়েছে। পরে রেলওয়ে পুলিশ ধর্ষককে আটক করে। কুমিল্লার দাউদকান্দিতে এক প্রতিবন্ধী কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। বগুড়ার ধুনটে দুই সন্তানের জননী এক বিধবাকে ধর্ষণ করা হয়েছে। অন্যদিকে মাকে আটকের খবর পেয়ে স্বেচ্ছায় থানায় হাজির হয় ধর্ষণ মামলার এক প্রধান আসামি। রাজাপুরে আপন মামাতো ভাইয়ের হাতে ধর্ষণের শিকার হয়েছে এক স্কুল ছাত্রী। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে পাওয়া সংবাদের ভিত্তিতে এ প্রতিবেদন:

ঢাকা : ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীকে প্রলোভন দেখিয়ে রাজধানীর মুগদা হাসপাতালের সামনে থেকে কমলাপুর নিয়ে ট্রেনের ভেতরে ধর্ষণের অভিযোগে একজনকে আটক করেছে রেলওয়ে পুলিশ। আটক যুবকের নাম সম্রাট। তার বাড়ি নারায়ণগঞ্জে।

গত বুধবার সন্ধ্যায় কমলাপুর থেকে ছেড়ে যাওয়া যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনে ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রীকে অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করে ট্রেন যাত্রীরা। পরে মধ্যরাতে ওই ভুক্তভোগীকে কমলাপুর রেলওয়ে পুলিশের হেফাজতে নেওয়া হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে মামলা করা হলে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়। রেলওয়ে পুলিশ ঢাকা জোনের এএসপি ওমর ফারুক বলেন, ভুক্তভোগীর নানি মুগদা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। বুধবার বিকেলে হাসপাতালের নিচে নামলে সেখান থেকে বেড়াতে যাওয়ার কথা ছিল ওই কিশোরীর। ওই সুযোগে সম্রাট ফুসলিয়ে তেজগাঁও নামিয়ে দেওয়ার কথা বলে রিকশাযোগে কমলাপুর রেলস্টেশনে নিয়ে যায়। এরপর কমলাপুরে যমুনা এক্সেপ্রেস ট্রেনের টয়লেটে আটকে ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করে।

দাউদকান্দি : বুধবার বিকেলে কুমিল্লার দাউদকান্দিতে তুজারভাঙ্গা গ্রামে নাসিমা (১৪) নামের এক প্রতিবন্ধী কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার ধর্ষিতার মা অন্তরা শেলী বাদী হয়ে দাউদকান্দি মডেল থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছে। পুলিশ ধর্ষক আলমগীর হোসেন (৩৫) কে গ্রেফতার করেছে।
ধর্ষিতার মা অন্তরা শেলী জানান, গত বুধবার বিকেলে তার প্রতিবন্ধী মেয়ে নাসিমা (১৪) কে ভাড়া বাসায় রেখে বড় মেয়েকে নিয়ে বাজারে কেনাকাটার জন্য যায়। ধর্ষক আলমগীর প্রতিবন্ধী মেয়েকে একা পেয়ে ঘরের ভিতর ঢুকে মুখ চেপে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। এ অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ধর্ষক আলমগীর হোসেনকে গ্রেফতার করেছে।

ধুনট (বগুড়া) : বগুড়ার ধুনট উপজেলায় বাবার বাড়িতে ঘরে ঢুকে দুই সন্তানের জননী এক বিধবাকে ধর্ষণ করেছে ইকবাল হোসেন (৩০) নামে দুই কন্যা সন্তানের জনক।
এ ঘটনায় বুধবার রাতে ইকবাল হোসেনকে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতার ইকবাল হোসেন উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের ধেরুয়াহাটি গ্রামের আলীমুদ্দিনের ছেলে। গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ধুনট থানা থেকে আদালতের মাধ্যমে তাকে বগুড়া জেলা কারাগারে পাঠানো হয়। এদিকে, বগুড়ার ধুনটে মাকে আটকের খবর পেয়ে স্বেচ্ছায় থানায় হাজির হয় অন্য এক ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি বকুল হোসেন মÐল (২৩)।

গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে ধুনট থানায় হাজির হলে তাকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠায় পুলিশ। গ্রেফতার বকুল হোসেন উপজেলার ভান্ডারবাড়ি ইউনিয়নের রঘুনাথপুর গ্রামের অফফের আলীর ছেলে। বকুল হোসেনের ধর্ষণের শিকার হয়ে এক স্কুলছাত্রী পুত্রসন্তান প্রসব করে। এ ঘটনায় করা মামলার প্রধান আসামি বকুল পলাতক ছিল।
বকুলকে গ্রেফতারের কৌশল হিসেবে তার মা কহিনুর খাতুনকে ৭ জুলাই দুপুরে নিজ বাড়ি থেকে আটক করে পুলিশ। থানায় আটক মা চারদিন ধরে মোবাইলে ছেলের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। অবশেষে মায়ের ভালোবাসার টানে ধর্ষক ছেলে থানায় হাজির হলে তার মাকে ছেড়ে দেয়া হয়।

রাজাপুর : ঝালকাঠির রাজাপুরে আপন মামাতো ভাইয়ের হাতে ধর্ষণের শিকার হয়েছে এক স্কুলছাত্রী। এ ঘটনায় এলাকার মাদকাসক্ত মঠবাড়ি ইউনিয়নের পুখরীজনা গ্রামের কামাল হোসেনের পুত্র এমরান (২৮) এর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে।
এ ব্যাপারে রাজাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ বলেন, ভিকটিম ও তার মা থানায় আছে, ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য ঝালকাঠি সিভিল সার্জন কার্যালয়ে পাঠানো হবে। ডাক্তারী পরীক্ষার রিপোর্টের পর জানা যাবে। আসামি এমরানকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (7)
বিদ্যুৎ মিয়া ১২ জুলাই, ২০১৯, ১:৪৯ এএম says : 0
ধর্ষণের পর ৭ দিনেই জামিন পায় বাংলাদেশে ধর্ষণ তো হবেই কারন বিচার নাই
Total Reply(0)
Afroja Akter Jolly ১২ জুলাই, ২০১৯, ১:৫১ এএম says : 0
Allah tumi aktu rohomot koro
Total Reply(0)
কিছু কথা ১২ জুলাই, ২০১৯, ১:৫১ এএম says : 0
হে আল্লাহ তুমি দেশে মানুষ কে হেদায়াত দান করো
Total Reply(0)
Ayesha Jannat Ayesha Jannat ১২ জুলাই, ২০১৯, ১:৫১ এএম says : 0
He allah tmi soto soto bacca gulore hefajot koro
Total Reply(0)
Sheak Meraj ১২ জুলাই, ২০১৯, ১:৫১ এএম says : 0
ধর্ষনের বিচার নতুন করে কঠোর ভাবে সংসধোন করতে হবে এবং অতি দ্রুত যেন কারর্যকর হয় সেই দিকে লক্ষ্য অবশ্যই রাখতে হবে.....
Total Reply(0)
Nooralam Siddique Nooralam Siddique ১২ জুলাই, ২০১৯, ১:৫২ এএম says : 0
কি হলো ভাই, ধর্ষণের মহামারি শুরু হয়ে গেল! এই জারস সন্তানকে তৎখ্নাৎ চলন্ত ট্রেনের নিচেই ফেলে দেওয়া উচিৎ ছিল!
Total Reply(0)
মেঘলা আকাশ ১২ জুলাই, ২০১৯, ১:৫২ এএম says : 0
সরকার এমন নিয়ম বের করুক,,,,যে ধষন করবে তাকে ধরে তার লিঙ্গ কেটে দেওয়া হবে,,, দেখবেন আর কোন এমন ঘটনা ঘটবেনা,,,
Total Reply(1)
Abul Mia ১২ জুলাই, ২০১৯, ৭:৩২ পিএম says : 0
KON KI BHAI? LINGO KATLE KEMNE KI HOBE??

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন