ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ০৮ ভাদ্র ১৪২৬, ২১ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

জাতীয় সংবাদ

এরশাদকে একনজর দেখতে চান বিদিশা

এরিককে বাধা দেয়ার অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৬ জুলাই, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

ভারতের আজমীর শরীফে বসে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুর খবর শোনেন। অতঃপর দেশে ছুটে আসেন এরশাদের দ্বিতীয় পুত্র শাহতা জারাব এরিকের মা বিদিশা সিদ্দিক। এরশাদের এই সাবেক স্ত্রী বিদিশা বলেছেন, ‘এরিকের বাবা আর নেই, শুনে ভারত থেকে দেশে ছুটে এসেছি। এক নজর দেখতে পারছি না। আর বাবাকে হারিয়ে আমার মানিক এরিক প্রেসিডেন্ট পার্কের বাসায় অঝোরে কাঁদছে। বাবা নেই, কেঁদে কেঁদে মাকেই খুঁজছে বারবার। আর আমি দেশে এসেও এখন পর্যন্ত তাকে একনজর দেখতে যেতে পারছি না। কাছেও যেতে পারছি না।’ গতকাল সোমবার এরিকের মা বিদিশা এসব কথা বলেন।
বিদিশা জানান, গতকাল সোমবার সকালের দিকে প্রেসিডেন্ট পার্কে ঢুকতে চেয়েছিলেন। কিন্তু বাসার নিরাপত্তাকর্মী ও দলের লোকজন তাকে ভেতরে প্রবেশ করতে দেননি বলে তার অভিযোগ।
ডিজাইনার এবং আলোচিত নারী বিদিশা বলেন, ‘এরিকের সঙ্গে কথা বলতেও দেয়া হচ্ছে না। মা হিসেবে আমি কি আমার ছেলেকে দেখতে পাবো না? এরিকের বাবাকে দেখব না? প্রতিবন্ধী ছেলের জন্য যদি জীবন দিতে হয় তাই দেবো। আমি এরশাদকে একনজর দেখতে চাই এবং এরিকের পাশে থাকতে চাই। প্রেসিডেন্ট পার্কে ফোন করেও ছেলে এরিকের সঙ্গে কথা বলতে পারিনি। প্রতিবন্ধী ছেলেকে নিয়ে নোংরা রাজনীতি ও ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে।
গতকাল সোমবার দুপুরে এসব বিষয়ে বিদিশা ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন। সেখানে তিনি লিখেছেন, ‘বাবার মৃত্যুতে আমার ছেলে এরিকের কান্নায় দেশবাসীও কেঁদেছে। আমি পাগলের মতো ছুটে চলে এসেছি দেশে। কিন্তু দেশে এসেও বাধার শিকার। কোথায় স্বামীর লাশ? কোথায় ছেলে? আমার সঙ্গে এরিককে কথাও বলতে দেয়া হচ্ছে না, দেখা করা তো দূরের কথা। এমনিতেই আমার ছেলে প্রতিবন্ধী। এই সময় যেখানে মাকে বেশি প্রয়োজন তখন আমার ছেলেকে নিয়েও রাজনীতি চলছে। শেষ পর্যন্ত মা হিসেবে ছেলের জন্য যদি জীবন দিতে হয় আমি তাই করব।’
প্রেসিডেন্ট পার্কে ঢুকতে বাধা দেয়ার অভিযোগ তুলে তিনি বলেন, ‘আমি আমার ছেলেকে দেখতে পারছি না। এরিকের বাবার লাশও দেখতে দেয়া হচ্ছে না। বাবাকে হারিয়ে এরিকের অবস্থা ভালো না। সে ভালো নেই। সে একা রয়েছে। কান্নাকাটি করছে। আমি কিছুই চাই না, আমার সন্তানকে চাই।’
বিদিশা জানান, এরিকের বাবা এরশাদের লাশ দেখতে না দেয়া এবং পুত্র এরিকের কাছে যেতে না পারার ঘটনা দেশবাসীকে জানাতে যেকোনো সময় সংবাদ সম্মেলন করবেন।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (12)
Shamim Arriyen ১৬ জুলাই, ২০১৯, ১:৩১ এএম says : 0
সবাই মানুষ সকলে মরতে হবে তাই বিদিশাকে দেখার সুযোগ দেওয়া হোক,,,,তিনি তার সন্তানকে কাছে রাখতে চাইছেন তবে দোষ কি এরিক ত তার সন্তান,,,তিনি কোন পদের নেশায় আসেননি,,, তবে কি মানবতা বিলীন হয়ে গেছে,
Total Reply(0)
Shamim Arriyen ১৬ জুলাই, ২০১৯, ১:৩১ এএম says : 0
Tar dekar kunu odikar nai
Total Reply(0)
Dulal Bhuiyan ১৬ জুলাই, ২০১৯, ১:৩২ এএম says : 0
Oni to onner
Total Reply(0)
MD Jomir MD Jomir ১৬ জুলাই, ২০১৯, ১:৩৪ এএম says : 0
এটা দুঃখজনক ঘটনা মায়ের সাথে ছেলের দেখা করা এই মুহূর্তে খুবই জরুরী ছিল
Total Reply(0)
Md Abdur Rob Jewel ১৬ জুলাই, ২০১৯, ১:৩৪ এএম says : 0
এটা খুবই দুঃখজনক এবং অমানবিক ঘটনা।
Total Reply(0)
Monowara Taher Manu ১৬ জুলাই, ২০১৯, ১:৩৫ এএম says : 0
পিতা হারানো বেদনা সন্তানের জন্য কতটা কষ্ট কর আল্লাহ যানেন। এরিকে সান্তনা দিতে হলে মাকে দরকার এরিক এখনো খুব ছোট তাই।
Total Reply(0)
Abdul Ahad Baburbazar ১৬ জুলাই, ২০১৯, ১:৩৫ এএম says : 0
এই সময় ছেলের সাতে দেখা করা জররী বাবা হারা সন্তান খুবই অসহায় মা ছাড়া এই সময় তাহাকে পৃথিবীর আর কেউ সান্তনা দিতে পারবেনা।মানবাধিকার লংগন হয়েছে।এরিক এরশাদ এখনও শিশু।
Total Reply(0)
Nuruzzaman Litan ১৬ জুলাই, ২০১৯, ১:৩৫ এএম says : 0
এটা দুঃখ জনক, এটা মেনে নেওয়া যায় না,, শোকাহত সবাই, সন্তান তার পিতার মৃত্যু তে কাতর এই মুহুর্তে মা তার ছায়া
Total Reply(0)
Yousuf Bin Siraj ১৬ জুলাই, ২০১৯, ১:৩৬ এএম says : 0
ছেলেকে শান্তনা দেওয়ার জন্য মায়ের এতো কাকতি মিনতি। ছেলের সাথে দেখা করতে দেওয়া হয় না মাকে এটা বড় দুঃখ জনক।
Total Reply(0)
Akter Uzzaman ১৬ জুলাই, ২০১৯, ১:৩৬ এএম says : 0
হুসাইন মোঃএরশাদের মৃত্যুর পর তার পুত্র এরিক এরশাদকে নিয়ে রাজনীতির নোংরা খেলা না খেলার জন্য সংসিলিষট কতৃপক্ষের নিকট আকুল আবেদন জানাচ্ছি.
Total Reply(0)
Umor Faruq ১৬ জুলাই, ২০১৯, ৮:৫৯ এএম says : 0
ডিভোর্স মহিলা তার পূর্বের স্বামী মারা গেলে মৃত ব্যাক্তি কে দেখা ইসলামে জায়েজ নেই।
Total Reply(0)
Nannu chowhan ১৬ জুলাই, ২০১৯, ৯:১০ এএম says : 0
No body has right to deprived mother's love & to see her own children....
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন