ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ২০১৯, ০৭ ভাদ্র ১৪২৬, ২০ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

খেলাধুলা

মোহামেডানের টানা দ্বিতীয় জয়

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ জুলাই, ২০১৯, ৮:৩০ পিএম

ঘরোয়া ফুটবলের মর্যাদাপূর্ণ আসর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) টানা দ্বিতীয় জয়ের দেখা পেল ঐতিহ্যবাহী ঢাকা মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। শুক্রবার বিকেলে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় লেগের ম্যাচে মোহামেডান ৩-১ গোলে হারায় নবাগত নোফেল স্পোর্টিং ক্লাবকে। বিজয়ী দলের হয়ে মালির ফরোয়ার্ড সুলেমান দিয়াবাতে দু’টি ও স্থানীয় ফরোয়ার্ড তকলিস আহমেদ একটি করে গোল করেন। নোফেলের পক্ষে এক গোল শোধ দেন ফরোয়ার্ড আশরাফুল ইসলাম। এই জয়ে মোহামেডান ২১ ম্যাচে ছয় জয়, পাঁচ ড্র ও দশ হারে ২৩ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার অষ্টমস্থানে উঠে আসলো। সমান ম্যাচে চারটি করে জয় ও ড্র এবং তের হারে ১৬ পয়েন্ট পাওয়া নোফেলের অবস্থান এগারো’তে।

বিপিএলে এখন পর্যন্ত শিরোপাহীন দেশের ঐতিহ্যবাহী দল ঢাকা মোহামেডান। তবে দেশের ফুটবলে পেশাদারিত্ব আসার পর লিগ শিরোপা জিততে না পারলেও আগের দশ আসরে নিজেদের নামের প্রতি সুবিচার করেই খেলেছে সাদাকালোরা। সব সময়ই তারা ছিল পয়েন্ট টেবিলের সেরা পাঁচে। কিন্তু বিপিএলের একাদশ আসরে এসে দেখা গেছে শুরু থেকে একেবারেই অনুজ্জ্বল মোহামেডানকে। প্রথম লেগে তাদের অবস্থা ছিল যাচ্ছে-তাই। এক পর্যায়ে পয়েন্ট টেবিলের তলানীতে দেখা গেছে ঐতিহ্যবাহী দলটিকে। তবে আশার কথা হচ্ছে দ্বিতীয় লেগে এসে ধীরে ধীরে উন্নতী করেছে সাদাকালোরা। ফিরেছে জয়ের ধারায়। ফলে পয়েন্ট টেবিলেও উপরের দিকে উঠে এসেছে তারা।

আগের ম্যাচে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ঢাকা আবাহনী লিমিটেডকে ৪-০ গোলে বিধ্বস্ত করে দারুণ উজ্জীবিত ছিল মোহামেডান। ফলে শুক্রবার জয়ের লক্ষ্য নিয়েই মাঠে নামে দলটি। প্রথম লেগে নোফেলের কাছে ১-০ গোলে হারায় কারণে দ্বিতীয় লেগের ম্যাচটি ছিল মোহামেডানের জন্য প্রতিশোধের। তাই ম্যাচের শুরু থেকেই গোলের জন্য মরিয়া ছিল মতিঝিলের দলটি। সাফল্যও পায় তারা খুব তাড়াতাড়ি। ম্যাচের ৯ মিনিটে মোহামেডানের মালির ফরোয়ার্ড সুলেমানের প্রথম প্রচেষ্টা ব্যর্থ হলেও দ্বিতীয় প্রচেষ্টা ঠিকই কাজে লাগে। এসময় সুলেমানের শট প্রতিপক্ষ দলের গোলরক্ষকের গায়ে লেগে ফিরে আসলেও ফিরতি শটে তিনিই মোহামেডানের পক্ষে প্রথম গোল করেন (১-০)। চার মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ করেন তকলিস আহমেদ। ম্যাচের ১৩ মিনিটে অধিনায়ক জাহিদ হাসান এমিলির ফ্রি কিকে হেডে জাল খুঁজে নেন তকলিস। আগের ম্যাচে আবাহনীর বিপক্ষে জোড়া গোল করেছিলেন তিনি। দু’গোলে পিছিয়ে পড়ে ম্যাচে ফিরতে মরিয়া নোফেল একমাত্র গোলটি পায় ১৭ মিনিটে। এসময় ডান দিক দিয়ে আক্রমণে ওঠা আশরাফুল ইসলাম দারুণ শটে ােস্ট ছেড়ে বেরিয়ে আসা মোহামেডান গোলরক্ষকের মাথার ওপর দিয়ে গোল করেন (১-২)।

প্রথমার্ধের শেষ দিকে দিয়াবাতের স্পট কিকে ব্যবধান বাড়ায় মোহামেডান। ম্যাচের ৪২ মিনিটে নোফেলের ডি-বক্সে ফাউলের শিকার হন সুলেমান দিয়াবাতে। রেফারি পেনাল্টির বাঁশি বাজালে স্পট কিকে নিজের দ্বিতীয় ও দলের পক্ষে তৃতীয় গোলটি করেন দিয়াবাতে (৩-১)। প্রথমার্ধেই চার গোল হলেও ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে আর কোন গোল হয়নি। ফলে শেষ পর্যন্ত ৩-১ ব্যবধানের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে মোহামেডান।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন