ঢাকা, রোববার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ০৩ ভাদ্র ১৪২৬, ১৬ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

আন্তর্জাতিক সংবাদ

অভিবাসী পুনর্বাসন চুক্তিতে সম্মত ৮ ইউরোপীয় দেশ

যুক্তরাষ্ট্র অভিবাসীদের ফেরত পাঠাতে কঠোর আইন করছে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ জুলাই, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

ভূমধ্যসাগরে উদ্ধার হওয়া অভিবাসীদের পুনর্বাসনে আটটি ইউরোপীয় দেশ সম্মত হয়েছে বলে জানিয়েছে ফ্রান্স। তবে এই দেশগুলোর মধ্যে ইতালি নেই। সোমবার ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাখোঁ এ তথ্য জানিয়েছেন। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক খবরে বিষয়টি জানা গেছে। ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাখোঁ জানান, প্যারিসে অনুষ্ঠিত ফ্রাঙ্কো-জার্মান পরিকল্পনার নীতিকে সমর্থন দিয়েছে ছয়টি দেশ। যেসব দেশ অভিবাসীদের গ্রহণে সম্মতি জানাবে না সেই দেশগুলো ইইউ কাঠামোগত তহবিল বরাদ্দ দিতে তিনি রাজি হবেন না। ইউরোপে অভিবাসীদের প্রবেশের দ্বার ইতালি হলেও প্যারিস আলোচনায় দেশটি উপস্থিত ছিল না। দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মাতেও সালভিনি অভিবাসীদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়েছেন। প্রতি বছর কয়েক হাজার অভিবাসী ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপে প্রবেশের চেষ্টা করে। ইউরোপ পাড়ি দেওয়ার ক্ষেত্রে লিবিয়া গুরুত্বপূর্ণ স্থান। এখান থেকে ঝুঁকিপূর্ণ পথে ও অতিরিক্ত যাত্রীবোঝাই নৌকায় করে অভিবাসীরা সাগর পাড়ি দেয়। পথে জাহাজ ও নৌকাডুবিতে অনেক অভিবাসীর মৃত্যু হয়। তবে ২০১৭ সালের মাঝামাঝি থেকে ইতালি ও ইইউ দেশগুলোর ভূমিকার কারণে অভিবাসীদের ঢল নাটকীয় হারে কমেছে। রয়টার্সের অপর এক খবরে বলা হয়, ইমিগ্রেশন আদালতকে পাশ কাটিয়ে দ্রæত অবৈধ অভিবাসীদের ফেরত পাঠাতে নতুন একটি প্রক্রিয়া চালু করতে যাচ্ছে মার্কিন সরকার। নতুন নিয়ম অনুযায়ী, কোনো অবৈধ অভিবাসী যদি প্রমাণ করতে না পারেন যে তিনি টানা দুই বছরের বেশি সময় ধরে যুক্তরাষ্ট্রে রয়েছেন তাহলে তাকে দ্রæত ফেরত পাঠানো হবে। পুলিশ মঙ্গলবার নতুন এই নিয়মটি জারি করতে যাচ্ছে। এর পরপরই যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে এটি কার্যকর শুরু হবে। আমেরিকান সিভিল লিবার্টিস ইউনিয়ন নামের একটি সংগঠন জানিয়েছে, তারা নতুন এই নিয়মটি আদালতে চ্যালেঞ্জ করতে যাচ্ছে। নতুন এই অভিবাসন নীতি এমন সময় কার্যকর করতে চাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র যখন দক্ষিণ সীমান্তে আটক কেন্দ্রগুলোর পরিস্থিতি নিয়ে অব্যাহত সমালোচনার মুখে পড়তে হচ্ছে ট্রাম্প প্রশাসনকে। বিশ্লেষকরা জানিয়েছেন, ২০২০ সালের নির্বাচনী প্রতিশ্রæতি দিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রম্প কঠোর অভিবাসন নীতি প্রণয়নের পরিকল্পনা করছেন। আগের অভিবাসন নীতি অনুযায়ী, কোনো ব্যক্তি দুই সপ্তাহের কম সময় অবৈধভাবে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করলে এবং তাকে সীমান্তের ১০০ মাইলের মধ্যে আটক করা হলে দ্রæত তাকে ফেরত পাঠানো হতো। রয়টার্স।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন