ঢাকা, বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯, ০৬ ভাদ্র ১৪২৬, ১৯ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

জাতীয় সংবাদ

মহাসড়কে কোথাও যানজট নেই

সাংবাদিকদের ওবায়দুল কাদের

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১১ আগস্ট, ২০১৯, ১২:০০ এএম

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, মহাসড়কে ধীরগতি দেখা যাচ্ছে। টাঙ্গাইলের দিকেও ধীরগতি আছে। তবে তীব্র যানজট নেই। গতকাল দুপুরে ঢাকার মহাখালী বাস টার্মিনাল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি এসব কথা বলেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, কোনো যানবাহনে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করার সুনির্দিষ্ট অভিযোগ থাকলে আমাদের কাছে দিন। আমাদের মনিটরিং টিম কাজ করছে। আমরা সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নিচ্ছি। গতকাল পর্যন্ত বেশ কয়েকজনকে এই অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। জনসাধারণকেও বলবো, বাড়তি ভাড়ার বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে জানাতে। ঈদযাত্রার প্রথম দুই দিনের তুলনায় শনিবারের পথ কিছুটা স্বস্তিদায়ক বলে দাবি করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী। উত্তরের পথে ঢাকা-টাঙ্গাইল সড়কে সকাল থেকে দীর্ঘ যানজটের সচিত্র বিবরণ সংবাদমাধ্যমে এলেও মন্ত্রী বলছেন, ওইরকম কোনো তথ্য তার কাছে নেই। আমার কাছে এখন পর্যন্ত যানজটের কোনো তথ্য নেই। যেটা হচ্ছে সেটা ধীরগতি। এ কারণে সময়মত গাড়ি পৌঁছাতে পারছে না। যাত্রীরা টার্মিনালে বসে কষ্ট পাচ্ছে।

তিনি বলেন, টাঙ্গাইলের পুলিশ জানিয়েছে, ঢাকা-গাজীপুরসহ বিভিন্ন এলাকার গাড়ি এলেঙ্গা পর্যন্ত আসছে চার লেইন দিয়ে। কিন্তু এলেঙ্গা থেকে সড়ক দুই লেইনের। ফলে সেখানে গাড়ির জট তৈরি হচ্ছে। এলেঙ্গা থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু পর্যন্ত ১৪ কিলোমিটার সড়কে এই সমস্যা প্রকট। এর প্রভাবে বঙ্গবন্ধু সেতু থেকে টাঙ্গাইলের পাকুল্লা পর্যন্ত প্রায় ৪০ কিলোমিটার সড়কজুড়ে গাড়ি এগোতে পারছে না।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, বাংলাদেশের মানুষ ঈদ যাত্রায় যে দুর্ভোগ সেটাকে দুর্ভোগ হিসেবে মনে করে না। এটা তারা ঈদ আনন্দের অংশ হিসেবে মনে করে। তবে, কিছুটা দুর্ভোগ যে নেই সেটা অস্বীকার করার উপায় নেই। রাস্তায় জানজটের খবর নিয়ে প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী বলেন, ঢালাও মন্তব্য না করে স্পেসিফিক কোথায় কোথায় সমস্যা হচ্ছে সেটা আমাদের বুঝতে হবে। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যে সমস্যা ছিল, একদিকে ফোর লেইনের রাস্তা থেকে উঠে এসে টু লেইনের ব্রিজে উঠতে হত আবার আরেক দিকে ৮ লেইনের রাস্তা থেকে এসে টু লেইনের ব্রিজে উঠতে হত। যার কারণে যানজট লেগেই থাকত। সে সমস্যাটা এখন আর নেই। উত্তর জনপদের দিকে যে সমস্যাটা সেটা রাস্তা নয়, সমস্যাটা হচ্ছে ঢাকা এলেঙ্গা মহাসড়ক থেকে চার লেইনের রাস্তার গাড়িগুলো যখন টু লেইনে ওঠে। তখনই সমস্যাটা সৃষ্টি হয়।

রাস্তায় কোনো সমস্যা নেই মন্তব্য করে এ সময় কাদের বলেন, বেহাল সড়কের কারণে কোথাও যানজট হয়েছে, এমন তথ্য আমার কাছে নাই। পরশু দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া গেছে, তার কারণে যে গাড়িগুলো আটকে ছিল সে প্রেশারটাও ওই রাস্তার উপর দিয়ে গেছে। কোরবানির ঈদ না চাইলেও পশুবাহী গাড়ির জন্য রাস্তায় গতি ধীর হয়ে যায। ধীর গতির জন্য গাড়িগুলো আসতে দেরি হচ্ছে। এজন্য টার্মিনালে অনেক যাত্রী বসে কষ্ট পাচ্ছে। শনিবার ততটা দুর্ভোগ নেই দাবি করে তিনি বলেন, আজকে রাস্তার কোথাও দুর্ভোগ আছে এমন কোনো ইনফরমেশন আমি কোথাও থেকে পাইনি।

মন্ত্রী বলেন, মহাসড়কে যানজট হচ্ছে পশুবাহী গাড়ি ও ভারী বৃষ্টির কারণে। টাঙ্গাইলের এলেঙ্গা থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু পর্যন্ত ধীরগতির ফলে যাত্রীরা দুর্ভোগে পড়েছেন। তবে তীব্র যানজট নেই। ডেঙ্গুকে এদেশের মানুষ ভয় পায় না বলে তিনি মন্তব্য করেন

এসময় বাংলাদেশ পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব মো: এনায়েতুল্লাহ, বিআরটিএ চেয়ারম্যান মো. মশিয়ার রহমানসহ পরিবহন মালিক ও শ্রমিক নেতরা উপস্থিত ছিলেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
Miah Muhammad Adel ১১ আগস্ট, ২০১৯, ৯:৪৯ এএম says : 0
মন্ত্রী দেখি ........ ষ্টাইলে বুলি আ্ওড়াচ্ছেন। নিউজ মিডিয়ার সংগে তার কোন যোগাযোগ নাই।
Total Reply(0)
Nannu chowhan ১১ আগস্ট, ২০১৯, ৮:৫৪ এএম says : 0
One of the 2nd in command in the ruling party very important cabinet member, it's shocking us to have listened,from him"there is no traffic jams"but we people's journalist social media newspapers every bodies can see & focused the pictures of the terrible situation of bumper to bumper the vehicle's & traffic conjunctions.....
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন