ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯, ০৫ ভাদ্র ১৪২৬, ১৮ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ভারতকে ‘চরম মূল্য’ দিতে হবে

আজাদ কাশ্মীরের আইন পরিষদে ইমরান খান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ আগস্ট, ২০১৯, ১২:০১ এএম | আপডেট : ১২:১১ এএম, ১৫ আগস্ট, ২০১৯

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, অধিকৃত কাশ্মীরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির পদক্ষেপ একটি ‘কৌশলগত ভুল’ আর এজন্য তাকে ‘চরম মূল্য দিতে হবে।’ পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান গতকাল বুধবার আজাদ কাশ্মীরের রাজধানী মুজফফরাবাদে যান এবং সেখানকার আইন পরিষদের এক বিশেষ অধিবেশনে বক্তব্য রাখেন। সেখানে তিনি এসব কথা বলেন বলে বিবিসির মনিটরিং বিভাগ জানাচ্ছে।
‘নরেন্দ্র মোদি কৌশলগতভাবে ভুল করেছেন। তিনি তার শেষ কার্ডটি আগেই খেলে ফেলেছেন। তারা এখন কাশ্মীরকে আন্তর্জাতিক ইস্যু বানিয়ে ফেলেছে,’ তার ভাষণে বলেন জনাব খান। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ভারতের সংবিধান থেকে কাশ্মীরকে বিশেষ মর্যাদা দেয়া অনুচ্ছেদ ৩৭০’র বিলোপ এবং ঐ রাজ্যের বিশেষ মর্যাদা কেড়ে নেয়ার প্রতি ইঙ্গিত করছিলেন। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে নিজেকে কাশ্মীরের একজন প্রতিনিধি হিসেবে বর্ণনা করে ইমরান খান ভারতের তরফে তার ভাষায়, যে কোন দুর্ঘটনার বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি জানান।
পাকিস্তানের রাষ্ট্র-নিয়ন্ত্রিত বার্তা সংস্থা এপিপি খবর দিচ্ছে, প্রধানমন্ত্রী খান তার ভাষণে কাশ্মীরের আইন পরিষদকে জানিয়েছেন যে, ভারত আজাদ কাশ্মীরে হামলা চালানোর পরিকল্পনা করছে। ভারতের তরফে যে কোন হুমকি মোকাবেলার জন্য পাকিস্তানের সরকার এবং সামরিক বাহিনী প্রস্তুত রয়েছে বলে ইমরান খান আইন পরিষদকে জানান।
অন্যান্য বছরের তুলনায় পাকিস্তান এবার তার স্বাধীনতা দিবসকে ভিন্নভাবে উদযাপন করছে। এই দিনটিকে তারা ‘কাশ্মীর সংহতি দিবস’ হিসেবে পালন করছে। এ উপলক্ষে সরকারের তরফ থেকে নতুন একটি লোগো প্রকাশ করা হয়েছে যাতে লেখা হয়েছে ‘কাশ্মীর বনেগা পাকিস্তান’ অর্থাৎ কাশ্মীর হবে পাকিস্তান। সে দেশের প্রধান টেলিভিশন চ্যানেলগুলোও তাদের পর্দায় এই লোগো ব্যবহার করছে। এবারের ঈদ এবং স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে পাকিস্তানের টিভি চ্যানেলগুলোতে বিশেষ অনুষ্ঠান প্রচার করা হচ্ছে না বলে বিবিসির উর্দু বিভাগ জানাচ্ছে। আজ ভারতের স্বাধীনতা দিবসকে পাকিস্তান কালো দিবস হিসেবে পালন করবে বলে সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ সময় সরকারি বেসরকারি ভবনগুলোতে পতাকা অর্ধনমিত রাখা হবে বলে সরকারি কর্মকর্তারা জানাচ্ছেন।
ভারত সরকারের বক্তব্য পরিবর্তন
অধিকৃত কাশ্মীরকে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করার পর ৯ আগস্ট শুক্রবার হাজার হাজার মানুষের বিক্ষোভ প্রকাশ করার একটি ভিডিও ফুটেজ বিবিসি’র হাতে আসে, যেটিকে ভারত সরকার দাবি করে যে, সেরকম কোনো বিক্ষোভ আসলে হয়নি। ১০ আগস্ট ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষে থেকে টুইট করে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে প্রকাশিত ঐ ভিডিওগুলোকে অতিরঞ্জিত বলা হলেও ১৩ আগস্ট আরেকটি টুইটে শ্রীনগরের সাওরা অঞ্চলে হওয়া বিক্ষোভের বিষয়টি স্বীকার করা হয়।
কাশ্মীরে ভারতীয় সিদ্ধান্ত ‘একতরফা’: চীন
কাশ্মীর নিয়ে ভারতের সিদ্ধান্ত ‘একতরফা’ বলে জানিয়েছে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। গত সোমবার একটি ক‚টনীতিক বৈঠকে শেষে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে এই তথ্য জানায় দেশটি। এর আগে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন ক‚টনীতিক ওয়াং ইয়ের সঙ্গে সোমবার বৈঠক করেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। বৈঠকে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন ক‚টনীতিক ওয়াং ইয়ে বলেন, চীন আশা করে ভারত আঞ্চলিক শান্তি ও স্থিতিশীলতা রক্ষায় গঠনম‚লক ভ‚মিকা নেবে।
ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর বলেন, ভারত সংযত থাকতে এবং পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নত করতে ইচ্ছুক। গত ৫ আগস্ট ভারতের সংবিধান থেকে কাশ্মীর রাজ্যের স্বায়ত্বশাসন দানকারী ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিল করা হয়েছে। এর ফলে ভারত সরকার জম্মু ও কাশ্মীরের স্বায়ত্ত¡শাসন কেড়ে নেয় এবং এলাকাটিকে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করার সিদ্ধান্ত জানায়। এরপরই ভারতের এ উদ্যোগকে একতরফা ও অবৈধ আখ্যা দিয়ে এর কড়া প্রতিবাদ জানায় পাকিস্তান। একসঙ্গে ভারতের পদক্ষেপের বিরোধিতা করেছে চীন।
রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে কাশ্মীর পরিস্থিতি অবহিত করল পাকিস্তান
রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভের সঙ্গে কথা বলেছেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কোরেশি। পাকিস্তান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্রের বরাতে এক্সপ্রেস ট্রিবিউন জানায়, কাশ্মীর নিয়ে ভারতের একতরফা সিদ্ধান্তের পর উদ্ভ‚ত পরিস্থিতি অবগত করতে রাশিয়ান পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে টেলিফোন করেন মাহমুদ কোরেশি। এ সময় কাশ্মীরের উত্তপ্ত রাজনৈতিক পরিস্থিতির বিষয়ে সের্গেই ল্যাভরভকে বিস্তারিত জানান তিনি।
কাশ্মীরের সা¤প্রতিক পরিস্থিতির কথা তুলে ধরে রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে মাহমুদ কোরেশি বলেন, কাশ্মীর বিষয়ে ভারতের পদক্ষেপ জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ ও আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন। এমন সিদ্ধান্ত উপমহাদেশের শান্তি-শৃঙ্খলার জন্য মারাত্মক হুমকি সৃষ্টি করবে। তাছাড়া ভারতের এমন একতরফা সিদ্ধান্তের ফলে এ অঞ্চলে নিরাপত্তা ও শান্তি বিঘিœত হবে। রাশিয়া কাশ্মীর পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছে বলে ফোনালাপে রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে জানান। তিনি বলেন, আলোচনার মাধ্যমে শান্তিপ‚র্ণভাবে সমস্যার সমাধান চায় রাশিয়া। ফোনালাপে দুই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী উপমহাদেশের শান্তি-শৃঙ্খলার রক্ষায় একসঙ্গে কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।
কারফিউ শিথিল হবে আজকের পর
আজকের পর কাশ্মীর উপত্যকায় জনসাধারণের চলাফেরায় আরোপিত বিধিনিষেধ (কারফিউ) শিথিল করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন গভর্নর সত্যপাল মালিক। সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে তিনি আশা প্রকাশ করেছেন, ৭ থেকে ১০ দিনের মধ্যে পরিস্থিতির উন্নতি হবে। তখন পর্যায়ক্রমে যোগাযোগ ব্যবস্থার ওপর আরোপিত নিয়ন্ত্রণ প্রত্যাহার করা হবে।
টেলিযোগাযোগ ও ইন্টারনেট কবে চালু হবে সে বিষয়ে মালিক জানান, অনুক‚লে না আসা পর্যন্ত উপত্যকার সঙ্গে বাইরের যোগাযোগের ক্ষেত্রে সাবধানতা অবলম্বন করতে চান তিনি।
কাশ্মীর নিয়ে বিস্ফোরক বক্তব্য ওয়াইসির!
অল ইন্ডিয়া মজলিসে ইত্তেহাদুল মুসলিমিন বা এআইএমআইএমের প্রধান ও হায়দরাবাদের সংসদ সদস্য আসাউদ্দিন ওয়াইসি ৩৭০ ধারা বাতিল নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের ব্যাপক সমালোচনা করেছেন। তিনি দাবি করেছেন, তার বিশ্বাস একদিন তাকে গুলি করে মেরে ফেলার চক্রান্ত করা হবে। কেননা দেশে এখনও গডসের সন্তান জীবিত হয়েছে। আসাউদ্দিন ওয়াইসি এএনআইকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, বর্তমানে কাশ্মীরে জরুরিকালীন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। সাধারণের মানুষের ঘরে ফেরা বা ঘর থেকে বেরনোর স্বাধীনতা নেই। ওই সাক্ষাৎকারে ওয়াইসি দাবি করেছেন, তাকে দেশদ্রোহী তকমা দেয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। সূত্র : বিবিসি বাংলা, নিউজ১৮, এক্সপ্রেস ট্রিবিউন উর্দু।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (11)
Rafiqul Alam ১৫ আগস্ট, ২০১৯, ৪:১৭ এএম says : 0
জনগণের মতামতকে মূল্যায়ন করার নামই গণতন্ত্র। কাশ্মীরের জনগণ কি চান সেটি দেখতে হবে। জোর করে কোনো জাতি-গোষ্ঠীকে বেশি দিন দাবায়ে রাখা যায় না।
Total Reply(0)
আশা ১৫ আগস্ট, ২০১৯, ৪:১৮ এএম says : 0
কাশ্মীর সংকট শুধু কাশ্মীরীদের নয় এটা গোটে মুসলিম উম্মাহর সংকট তাঈ সকল মুসলিম শাসক ও মুসলিম ভাইদের এগিয়ে আসতে হবে।
Total Reply(0)
Sanaullah Azad ১৫ আগস্ট, ২০১৯, ৪:১৯ এএম says : 0
বর্তমান প‌রি‌স্থি‌তি‌তে কাশ্মী‌রের স্বাধীনতা‌কে দ‌মি‌য়ে রাখার ক্ষমতা ভার‌তের নিঃ‌শেষ হ‌য়ে গে‌ছে। কাশ্মীর নি‌য়ে ভারত যে আগু‌নের খেলা খেল‌ছে সেই আগু‌নে ভারত‌কেও নির্মমভাবে জ্বল‌তে হ‌বে...
Total Reply(0)
S.m. Saiful Islam ১৫ আগস্ট, ২০১৯, ৪:১৫ এএম says : 0
এটা কাশ্মীরিদের জন্য ইমানি পরীক্ষা। নিশ্চয়ই বিজয় অতি সন্নিকটে।
Total Reply(0)
Al Mamun ১৫ আগস্ট, ২০১৯, ৪:১৭ এএম says : 0
অত্যাচার করে কেউ কখনো বেশি দিন ক্ষমতায় থাকতে পারে না মোদিও পারবেন না । দেখা হবে একদিন সামনাসামনি যা বলার স্পষ্ট করে বল, আমরা মুসলিম বীরের জাতি প্রাণ দিতেও ভয় করি না প্রয়োজনে নিতেও না।
Total Reply(0)
Mohammed Robiul Hossen ১৫ আগস্ট, ২০১৯, ৪:১৫ এএম says : 0
আল্লাহ আপনার সাথে আছে ইনসাআল্লাহ। ঈমানী শক্তি দিয়ে চালিয়ে যান।
Total Reply(0)
MD Bellal Sikder ১৫ আগস্ট, ২০১৯, ৪:১৯ এএম says : 0
ইতিহাসে একটি সত্য কথা আছে "যে জাতির উত্থান দ্রুত সে জাতির পতনও দ্রুত" ভারতের বিজেপির উত্থান যেমন হয়েছে পতনও আরো ভয়াবহ হবে ইনশাআল্লাহ্
Total Reply(0)
গাজী ফজলুল করিম ১৫ আগস্ট, ২০১৯, ১০:৫২ এএম says : 1
খেলাটা হচ্ছে পাকিস্তান-ইন্ডিয়ার মধ্যে,আমাদের তো এতো উত্তেজিত হওয়ার কারণ দেখছি না। কাশ্মীর স্বাধীন হলে ভালো,স্বাধীন না হলেও তারা যেন শান্তিতে থাকে সেটাই আসল কথা।
Total Reply(1)
kuli ১৫ আগস্ট, ২০১৯, ২:০৮ পিএম says : 0
খেলাটা শুধু পাকিস্তান-ইন্ডিয়ার মধ্যে না।এই খেলা বুঝার বয়স হয়নাই আপনার।
শামীম ১৫ আগস্ট, ২০১৯, ১১:৫১ এএম says : 0
ইসলামী মানুষিকতার মুসলিম বিশ্বের কোন সরকার হলে পশ্চিমা বিশ্বের হস্তক্ষেপ হত। মিশরের মুরসি, আফগানিস্তান এর তালেবান, তুরস্কের এরদোগান। কিন্তু ইন্ডিয়া তে উগ্র হিন্দুত্ববাদীদের মোদী ধমৈয় গোরামিতে দেশ চালাচ্ছে বলার কেউ নেই!!!!!!!!।
Total Reply(1)
kuli ১৫ আগস্ট, ২০১৯, ২:১৬ পিএম says : 0
মুসলিম বিশ্বের কোন সরকার হলে পশ্চিমা বিশ্বের হস্তক্ষেপ হত।এটাই ত ব্যাপার!!! এই জিনিসটাই অনেকে মানতে চাইনা।মুরসির বেলাই কোন পশ্চিমা দেশ কিছু করে নাই উল্টা সিসি কে হেল্প করসে।এরা মুসলিম দের প্রকাশ্য শত্রু।মুসলিম দের কে এক হতে হবে।কাফিরদের ওপর নিরভর করলে হবে না।
ছাকিব ১৫ আগস্ট, ২০১৯, ১১:০৯ পিএম says : 0
এখন বিশ্বে মুসলমানদের একত্রিত হওয়ার সময় এসেছে।সঠিক নেতৃত্বদিতে পারলে ভারত বর্ষ আবার মুসলিমরা বিজয় করবে ইনশাআল্লা।
Total Reply(0)
Mohabbat al ahsan ১৫ আগস্ট, ২০১৯, ১২:৫০ পিএম says : 0
যেদিন পাক ভারত যোদ্ধে জড়াবে সেদিন থেকেই মাহা ভারত খন্ড খন্ড হতে থাকবে তাই ভারত, সহজে যোদ্ধে জড়াবে না, সংবাদ মাধ্যমে অনেক নিউজের হেড লাইন হয়, কাশ্মীরা জজ্ঞী বলে, সাবধান, তারা স্বাধীনতা কামী। তারা জজ্ঞী নহে, জজ্ঞী
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন