ঢাকা, সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৮ আশ্বিন ১৪২৬, ২৩ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

সিলেটে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতীয় শোক দিবস পালন

সিলেট ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৫ আগস্ট, ২০১৯, ৬:১২ পিএম

জাতীয় শোক দিবসে সিলেটে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছে আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনসহ সর্বস্তরের জনতা। বঙ্গবন্ধুর ৪৪তম মৃত্যুবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে শোকর‌্যালী, আলোচনা সভাসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে।

সকাল ১০ থেকে সিলেটে শুরু হয় শোকদিবসের শ্রদ্ধা নিবেদন কার্যক্রম। সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অস্থায়ী প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এবং সরকারী বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

এর আগে সিলেট সকাল ১০ টায় সিলেট জেলা প্রশাসন প্রাঙ্গণ থেকে শুরু হয় শোকর‌্যালি। নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে এটি শহীদ মিনারে গিয়ে শেষ হয়। শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন সিলেট জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
বেলা সাড়ে ১১ টায় ঐতিহ্যবাহী রেজিস্টারি মাঠ থেকে শোকর‌্যালী বের করে সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ। শেষ হয় সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গিয়ে। পরে শহীদ মিনারে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর অস্থায়ী প্রতিকৃতিতে পৃথকভাবে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

সিলেট জেলা আওয়ামী লীগ :

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪ তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ বলেন, বঙ্গবন্ধুকে জানলেই জানা হবে বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধু মানেই বাংলাদেশ, একটি জাতি, একটি মানচিত্র, একটি পতাকা, আমাদের স্বাধীনতা। নিন্দুক আর জাতির শত্রæরা বঙ্গবন্ধুর উচ্চতা এক চুলও খাটো করতে পারেনি। পারবেও না।

পঁচাত্তর সালের পর বিএনপি-জামায়াত-খালেদা চক্র ধারাবাহিকভাবে ষড়যন্ত্র-হত্যা-খুনের অপরাজনীতি করছে উল্লেখ করে মিসবাহ সিরাজ বলেন, ‘তারা ১৫ আগস্ট মিথ্যা জন্মদিন পালনের নামে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের পক্ষে উল্লাস করে। ২১ আগস্ট শেখ হাসিনাকে হত্যাচেষ্টা, জঙ্গি-সন্ত্রাস ও আগুন দিয়ে মানুষ পোড়ানো, যুদ্ধাপরাধীর বিচার আটকানো আর নির্বাচন বানচাল করে অস্বাভাবিক সরকার তৈরির চক্রান্ত করে আসছে।

জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আশফাক আহমদের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন খানের পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন- জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য শফিকুর রহমান চৌধুরী, সাবেক সংসদ সদস্য জেবুন্নেছা হক, সহ সভাপতি মাসুক উদ্দিন, শাহ ফরিদ আহমদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নিজাম উদ্দিন, সুজাত আলী রফিক, সাংগঠনিক সম্পাদক হুমায়ুন ইসলাম কামাল, অ্যাডভোকেট মোশাইদ আলী, মো. আলী দুলাল, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য খোকন কুমার দত্ত, সাইফুল আলম রুহেল, কবির উদ্দিন আহমদ, ফারুক আহমদ, এমাদ উদ্দিন মানিক, জগলু চৌধুরী, মোস্তাকুর রহমান পলাশ, রইছ আলী, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সালমা বাসিত, ফাহিমা চৌধুরী মনি, রুবা জেবিন, হেলেন আহদ, সালমা সুলতানা, মাধুরী গুন, জিয়াউল রহিম চৌধুরী মুর্শেদ, এ আর সেলিম, শামসুন্নাজার মিন্,ু অ্যাডভোকেট আজমল আলী, শহিদুর রতমান শাহিন, অ্যাডভোকেট বদরুল ইসলাম জাহাঙ্গীর, শামীম রশিদ চৌধুরী, সিলেট জেলা যুবলীগের সভাপতি শামীম আহমদ ভিপি, সাধারণ সম্পাদক সো. শামীম আহমদ, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি আফসর আজিজ, সাধারণ সম্পাদক জালাল উদ্দিন কয়েস, সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এম শাহরিয়ার আলম সামাদ প্রমুখ।

সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগ :

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪ তম মৃত্যুবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা, মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে নগরীর হাফিজ কমপ্লেক্সে এ আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ, সহ সভাপতি এডভোকেট রাজ উদ্দিন, যুগ্ম সম্পাদক ফয়জুল আনোয়ার আলোয়ার, বিজিত চৌধুরী, অধ্যাপক জাকির হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল, এটিএম হাসান জেবুলসহ জেলা, মহানগর আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা।

সিলেট সিটি করপোরেশেন :

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সভা কক্ষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম মৃত্যুবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বিধায়ক রায় চৌধুরী বলেন, জাতির পিতাকে হত্যা শুধু কিছু বিপথগামী সেনাসদস্যের কাজ নয়, এটি একটি আন্তর্জাতিক চক্রান্ত ছিল। সেদিন যে চক্রান্তে কালরাতের সৃষ্টি হয়েছিল, যে চক্রান্তে জাতির পিতাকে হত্যা করা হয়েছিল, চক্রান্ত সেদিন যেমন ছিল আজও তেমনি আছে।

সিটি কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র-১ মোহাম্মদ তৌফিক বক্স লিপনের সভাপতিত্বে ও এসেসর চন্দন দাশের পরিচালনায় অলোচনা সভায় তিনি আরো বলেন, ১৯৯৬-এ দায়মুক্তি অধ্যাদেশ বাতিলের আগ পর্যন্ত ২১ বছর স্বঘোষিত খুনিরা বিচারের আওতা থেকে মুক্ত থাকার সুযোগ পেয়েছিল। অনেক দেরিতে ও পাহাড়সম বাধাবিপত্তি পেরিয়ে বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ডের বিচার সম্পন্ন হয়েছে। খুনিদের মধ্যে পাঁচজনের ফাঁসির দন্ড কার্যকর হয়েছে, কিন্তু দন্ডিত বাকি ছয় খুনি এখনো ধরাছোঁয়ার বাইরে। এই খুনিদের দেশে ফিরিয়ে রায় কার্যকর করতে না পারাটা জাতির জন্য হতাশার।

সিসিকের নির্বাহী প্রকৌশলী আলী আকবরের কোরআন তেলাওয়াত ও লাইসেন্স শাখার কর্মকর্তা জ্যোতিষ চক্রবর্তীর গীতা পাঠের মধ্য দিয়ে শুরু হওয়া সভায় স্বাগত বক্তব্য দেন নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আব্দুল আজিজ।

সভায় বক্তব্য রাখেন সিটি কাউন্সিলর আজম খান, ইলিয়াছুর রহমান ইলিয়াছ, তারেক উদ্দিন তাজ, মহিলা কাউনিসলর এ্যাডভোকেট ছালমা সুলতানা, প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজুর রহমান, সিসিকের অফিসার এসোসিয়েশনের আহবায়ক নির্বাহী প্রকৌশলী রুহুল আলম, কর কর্মকর্তা রমিজ উদ্দিন ও কর্মচারী সংসদের সভাপতি মো. আব্দুল বাসিত।

পরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম মৃত্যুবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত সিসিকের পরিচালনাধীন বিভিন্ন বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের চিত্রাঙ্কন ও সাধারণ জ্ঞান প্রতিযোগীতায় বিজয়ীদের মধ্যে সনদ ও উপহার সামগ্রী তোলে দেন অতিথিরা।
এর আগে নগর ভবন থেকে এক শোক র‌্যালী নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন