ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬, ১৫ সফর ১৪৪১ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

নিজ রাইফেলের গুলিতে নিহত আনসার ভিডিপি সদস্য

বাড়িতে শোকের মাতম

টাঙ্গাইল জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৬ আগস্ট, ২০১৯, ১২:০২ এএম

একটি মৃত্যুতে ঘোর অমানিষার অন্ধকার নেমে এসেছে নিজ বন্দুকের গুলিতে নিহত আনসার ভিডিপি সদস্য মকদুম হোসেনের পরিবারে। শিশু পুত্র মো. সাদিক হোসেন ও মেয়ে ইশরাত জাহান অনামিকার পিতা হারানোর করুণ আর্তনাদে পুরো এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। গতকাল সকালে যশোরের বসুন্দিয়া ক্যাম্পে দায়িত্ব পালনকালীন সময়ে নিজ রাইফেলেরগুলিতে আত্মহত্যা করেন মকদুম হোসেন। দুপুরে তার বাড়ি টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার অলোয়া ইউনিয়নের বিলআমুলা গ্রামের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায় স্বজনদের করুণ আর্তনাদের সাথে প্রতিবেশীদের অশ্রুসিক্ত সমবেদনা।

নিহতের স্বজনরা জানান, গত ঈদুল ফিতরের সময় মকদুম হোসেন ছুটিতে বাড়িতে এসেছিলো। কিন্তু ঈদুল আযহার সময় তিনি ছুটি পাননি। গত বুধবার রাতে মুঠোফোনে পরিবারের সাথে সামান্য মনোমালিন্য হয়। প্রচন্ড আবেগপ্রবণ মকদুম হোসেন ফজরের নামাজ শেষে কর্তব্য পালনকালীন সময়ে নিজ রাইফেলের গুলিতে আত্মহত্যা করেন। আইনী প্রক্রিয়া শেষে তার লাশ টাঙ্গাইলের বাড়িতে নিয়ে আসা হবে।

এদিকে মকদুমের মৃত্যুর খবর বাড়িতে পৌছলে স্ত্রী আমিনা বেগম কান্নায় ভেঙে পড়েন। বার বার চিৎকার করে প্রলাপ বকছিলেন আর মূর্ছা যাচ্ছিলেন। পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম স্বামীকে হারিয়ে ছোট দুটি সন্তান নিয়ে অনাগত ভবিষ্যতে আশঙ্কায় নিজেকেই ধিক্কার দিচ্ছিলেন তিনি।

নিহত মকদুম হোসেনের শিশু পুত্র মো. সাদিক হোসেন নিকরাইল ফকির মকবুল চাইল্ড কেয়ার স্কুলে পঞ্চম শ্রেণীতে অধ্যয়নরত। বাবার মৃত্যুর খবর শুনে বিশ্বাস করতে পারেনি। তাইতো বার বার দিগি¦দিক ছুটাছুটি করতে থাকে। তার কান্নার রোল যেন থামছেই না। তাকে শান্তনা দেওয়ার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন প্রতিবেশী স্বজনরা।

নিকরাইল বেগম মমতাজ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে দশম শ্রেণীতে পড়ে মেয়ে ইশরাত জাহান অনামিকা। পিতার মৃত্যুর খবরে মানসিকভাবে প্রচন্ড ভেঙে পড়ে সে। কান্না জড়িত কণ্ঠে বলে, বাবার সামান্য আয়ে আমারা কষ্ট করে পড়ালেখা করতাম। এখন আমাদের কি হবে। কে আমাদের পড়ালেখা করাবে। তিনবেলা খাবার জোটাবে। পরিবারের এমন করুণ আর্তনাদে বাতাস ভারি হয়ে উঠে। স্বজন, প্রতিবেশী, উৎসুক জনতার চোখ অশ্রুসিক্ত হয়ে উঠে।।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন