ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬, ১৯ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

খেলাধুলা

শাস্ত্রীতেই আস্থা ভারতের

তবে কি হেসনকে পাচ্ছে বাংলাদেশ!

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ আগস্ট, ২০১৯, ১২:০১ এএম

বিসিসিআই কার্যালয়ে সাক্ষাৎকার দিয়ে যাবার সময় কামেরাবন্দী হেসন। গতকাল মুম্বাইয়ে -দ্য হিন্দু


ভারতের প্রধান কোচ নিয়োগের দৌড়ে মাইক হেসনের চেয়ে এগিয়ে আছেন বর্তমান কোচ রবি শাস্ত্রী। এমন খবর আগেই দিয়েছিল ভারতের গণমাধ্যমগুলো। সেই খবরই সত্যি হলো। ঘরের মাঠে আগামী ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত কোহলিদের কোচ হিসেবে সাবেক এই অধিনায়েকর উপরই আস্থা রেখেছেন কোচ নিয়োগ কমিটি (সিএসএ)। কপিল দেবের নেতৃত্বে গতকালই মুম্বাইয়ে কোচ প্রার্থীদের সাক্ষাৎকার নিয়েছে সিএসএ। কপিল ছাড়াও কমিটিতে ছিলেন সাবেক ক্রিকেটার অংশুমান গায়কোয়াড় ও সাবেক নারী ক্রিকেটার শান্তা রঙ্গস্বামী। গতকাল সাক্ষাৎকার নেওয়ার পর সন্ধ্যায় হেড কোচ হিসেবে শাস্ত্রীকে বহাল রাখার কথা সংবাদ সম্মেলনে জানান ভারতের সাবেক অধিনায়ক কপিল দেব। সেখানে জানানো হয়, কমিটির তিন সদস্য ‘সর্বসম্মতভাবে’ শাস্ত্রীকে কোচ পদে বহাল রাখার ব্যাপারে একমত হয়েছেন।

২০১৭ সালে অনিল কুম্বলের স্থলাভিষিক্ত হওয়ার পর শাস্ত্রীর মেয়াদ শেষ হয় গত বিশ্বকাপে। এরপর তাঁর মেয়াদ বাড়িয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে পাঠানো হয়। শাস্ত্রীকে কোচ পদে রাখার ব্যাপারে আগেই সমর্থন দিয়েছিলেন ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি এবং তাঁর দল। সংবাদমাধ্যমও এর আগে জানিয়েছিল, শাস্ত্রীর মেয়াদ দুই বছর বাড়ানো হতে পারে। সিএসি সদস্য অংশুমান গায়কোয়াড় সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘সে (শাস্ত্রী) খেলোয়াড়দের ভালো করে জানে, দলের সমস্যা এবং কীভাবে সমাধান করতে হবে তাও জানে। গোটা প্রক্রিয়া সমন্ধে কেউ যদি জেনে থাকে সে ক্ষেত্রে সে-ই এগিয়ে থাকবে।’ কপিল দেব বলেন, ‘শাস্ত্রী আমাদের বলেছে গত দুই বছরে দল কত উন্নতি করেছে, সমস্যাগুলো কোথায় আর তা সমাধান করতে কী কী সাহায্য লাগবে।’

ভারতের কোচের পদ পেতে শাস্ত্রী ও হেসন ছাড়াও আগ্রহী টম মুডি, রবিন সিং, ফিল সিমন্স ও লালচাঁদ রাজপুত। এদের মধ্যে সিমন্স নাম প্রত্যাহার করে নেয়ায় পাঁচ প্রার্থীর সাক্ষাৎকার নিয়েছে কমিটি। হেসন, রবিন সিং ও রাজপুত বিসিসিআই দপ্তরে সরাসরি হাজির হয়ে সাক্ষাতকার দিয়েছেন। হেসনের সাক্ষাৎকার দিয়ে বেরিয়ে যাওয়ার ছবি ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন টম মুডি ও ভারতীয় দলের সঙ্গে বর্তমানে ক্যারিবিয়ান সফরে থাকা শাস্ত্রী। সিএসি প্রধান কপিল দেব জানিয়েছেন, শাস্ত্রীর নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী ছিলেন নিউজিল্যান্ডের সাবেক কোচ হেসন এবং তারপর শ্রীলঙ্কার সাবেক কোচ টম মুডি। সংক্ষিপ্ত তালিকায় জায়গা পাওয়া বাকি দুই প্রার্থী রবিন সিং, লালচাঁদ রাজপুত।

শাস্ত্রীর অধীনে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে টেস্ট সিরিজ এবং দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে ওয়ানডে সিরিজ জিতেছে ভারত। তাঁর অধীনে ২১ টেস্ট খেলে ১১ ম্যাচে জিতেছে ভারত। টি-টোয়েন্টিতে ৩৬ ম্যাচে ২৫ জয় আর ওয়ানডেতে ৬০ ম্যাচে পেয়েছে ৪৪ জয়। যদিও এবার বিশ্বকাপ জয়ের প্রত্যাশা নিয়ে ইংল্যান্ডে গেলেও সেমিফাইনাল থেকেই ছিটকে পড়তে হয়েছে কোহলির দলকে। ভারতীয় গণমাধ্যম জানিয়েছেন, কোচ নিয়োগের এই প্রক্রিয়া কেবলই আনুষ্ঠানিকতা। অধিনায়ক বিরাট কোহলির পছন্দের হওয়ায় শাস্ত্রীই থেকে গেছেন প্রধান কোচের পদে। দেশটির বাংলা দৈনিক আনন্দবাজারের খবর অনুযায়ী, বদল হচ্ছে না বোলিং কোচও। ব্যাটিং কোচ হিসেবে বিক্রম রাঠৌর নিয়োগ পেতে পারেন। এছাড়া ফিল্ডিং কোচ হতে সাবেক প্রোটিয়া কিংবদন্তি ফিল্ডার জন্টি রোডস আবেদন করায় এই পদেও হতে পারে বদল।

ভারতের কোচ শেষ পর্যন্ত কে হন- সেদিকে নজর ছিল বাংলাদেশেরও বিসিবিরও। কেননা নিউজিল্যান্ডের সাবেক কোচ হেসন যে আছেন বিসিবিরও সংক্ষিপ্ত তালিকায়। অবশেষে হেসন ছিটকে যাওয়ায় বিসিবির সামনে খেুলে গেল আরেকটি দুয়ার। বিশ্বস্ত সূত্রের মতে এরই মধ্যে কিউই কোচের ভিডিওসাক্ষাৎকারও নাকি নিয়ে ফেলেছে বিসিবি! তবে কী হেসনই হচ্ছেন সাকিবদের নতুন হোড কোচ?

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন