ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬, ১৯ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

খেলাধুলা

নেই মাশরাফি, তামিমের ছুটি

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ আগস্ট, ২০১৯, ১২:০১ এএম

ঈদের ছুটি প্রায় শেষ দিকে। দুদিন পর শুরু হচ্ছে ক্রিকেটারদের ‘ক্রিকেটীয়’ ব্যস্ততা। আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট ও সেপ্টেম্বরে টি-টোয়েন্টি সংস্করণের ত্রিদেশীয় সিরিজ সামনে রেখে আগামীকাল থেকে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ দলের কন্ডিশনিং ক্যাম্প। ৩৫ খেলোয়াড়কে নিয়ে শুরু হওয়া এই কন্ডিশনিং ক্যাম্পে রাখা হচ্ছে না মাশরাফি বিন মুর্তজাকে।

টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি খেলেন না, তিনি কন্ডিশনিং ক্যাম্পে না-ই থাকতে পারেন। কিন্তু আগে দেশের মাঠে বাংলাদেশ দলের প্রায় সব কন্ডিশনিং ক্যাম্পে মাশরাফি ছিলেন। উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, ২০১৭ সালের আগস্টে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ সামনে রেখে যে অনুশীলন করেছিল বাংলাদেশ, সেটিতে বাংলাদেশ ওয়ানডে অধিনায়ক ছিলেন। এমনকি চট্টগ্রামে নিজেদের মধ্যে হওয়া বড় দৈর্ঘ্যরে ম্যাচও খেলার কথা ছিল, শেষ পর্যন্ত অবশ্য খেলা হয়নি। এবার তাঁর কন্ডিশনিং ক্যাম্পে থাকাটা আরও বেশি দরকার ছিল, যেহেতু তিনি মাত্রই হ্যামস্ট্রিং চোট থেকে সেরে উঠেছেন। পুনর্বাসন প্রক্রিয়া শেষে অনুশীলনের সুযোগ করে দিতে নির্বাচকেরা তাঁকে রাখতেও চেয়েছিলেন ৩৫ জনের প্রাথমিক দলে। আরও একটি বিষয় ভাবনায় ছিল নির্বাচকদের- যদি জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে কোনো ওয়ানডে আয়োজন করা হয়, মাশরাফির প্রস্তুতি নিশ্চয়ই লাগবে।

কদিন ধরেই গুঞ্জন মাশরাফিকে ঘটা করে বিদায় জানাতে বিসিবি ত্রিদেশীয় সিরিজ শেষে একটা ওয়ানডে আয়োজন করতেও পারে। আজ ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসের অনুষ্ঠান শেষে এ বিষয়ে সাংবাদিকদের অবশ্য নিশ্চিত কিছু বলতে পারেননি বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান, ‘ওর সঙ্গে কথা হয়নি, ঈদের ছুটি কাটিয়ে আসুক আগে।’ জিম্বাবুয়ে বিপক্ষে ওয়ানডে আয়োজনের সম্ভাবনা ক্ষীণ বলেই আপাতত পরিকল্পনায় মাশরাফি নেই বলে জানালেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন, ‘মাশরাফি কন্ডিশনিং ক্যাম্পে থাকছে না। যেহেতু সে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি খেলে না। এটা ঠিক, ওর থাকার কথা ছিল। এখন ওকে আর রাখছি না। যদি ওয়ানডে সিরিজ হতো তাহলে রাখতাম। ওয়ানডে হওয়ার কোনো সম্ভাবনা দেখছি না।’

হ্যামস্ট্রিং চোটে পড়ায় গত মাসে শেষ মুহূর্তে শ্রীলঙ্কা সফরে যেতে না পারা মাশরাফি অবশ্য গত তিন সপ্তাহে ঢাকায় ছিলেন না খুব একটা। নড়াইলে নিজের নির্বাচনী এলাকায় তিনি ব্যস্ত রাজনৈতিক কর্মসূচি নিয়ে। বাংলাদেশ ওয়ানডে অধিনায়কের ফিটনেসের সবশেষ খবর তাই বিসিবির চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরীর পক্ষে বলা কঠিন, ‘মাশরাফির সঙ্গে অনেক দিন আমাদের দেখা হচ্ছে না। মাঝে মাঝে সে ফোন করছে। পরীক্ষা করে না দেখলে ফিটনেসের অবস্থা ঠিক বোঝা যায় না। তবে সে জানিয়েছে ব্যথা কমেছে। ঈদের ছুটি শেষে এলে পরীক্ষা করে দেখা হবে।’

এদিকে হাতাশার বিশ্বকাপ আর শ্রীলঙ্কা সফরের বিষন্নতা কাটাতে ছুটি চেয়েছিলেন তামিম ইকবাল। তাঁকে ছুটি দিয়েছে বিসিবি। আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট ও ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজে বাঁহাতি ওপেনারের বিকল্প খুঁজতেই হচ্ছে নির্বাচকদের। চোটে পড়ে গত অক্টোবর-নভেম্বরে জিম্বাবুয়ে সিরিজ এবং ডিসেম্বরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে ছিলেন না বাঁহাতি এই ওপেনার। তামিমের অনুপস্থিতিতে দুটি চমক উপহার দিয়েছিলেন নির্বাচকেরা। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে সুযোগ পেয়েছিলেন ফজলে রাব্বি আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে সাদমান ইসলাম। ফজলে রাব্বি ব্যর্থ হলেও সাদমান নিজেকে কিছুটা প্রমাণ করেছেন।

এবারও তামিমের অনুপস্থিতিতে নতুন কোনো ওপেনার কিংবা নাম্বার থ্রি পজিশনে নতুন মুখ দেখার সম্ভাবনা আছে বলেই ইঙ্গিত দিলেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন, ‘ওর জায়গায় কাকে নেব সেটি এখনো ঠিক করিনি। কন্ডিশনিং ক্যাম্প শুরু হোক আগে। সবার ফিটনেস দেখি। আমরা গতবার হোম সিরিজে তাকে ছাড়া খেলেছিলাম। এবারও হয়তো নতুন কাউকে দেখতে পারি। এবার কন্ডিশনিং ক্যাম্পে ফিটনেসের ওপর ভীষণ গুরুত্ব দেওয়া হবে। অনুশীলন ক্যাম্প দেখে তার পর আমরা এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেব।’

নির্বাচকেরা অবশ্য কিছু বিকল্প ভেবে রেখেছেন, যাঁদের সুযোগ দেওয়া হতে পারে এবারের প্রাথমিক দলে। গত ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে দুর্দান্ত ব্যাটিং করা সাইফ হাসান আর মোহাম্মদ নাঈম শেখের মতো দুই তরুণ ওপেনার নির্বাচকদের দৃষ্টিতে আছেন। নাঈম সবশেষ আফগানিস্তান ‘এ’ দলের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজেও ভালো খেলেছেন। তবে প্রধান নির্বাচক তো বললেনই, যাঁরাই সুযোগ পাবেন স্কিলের আগে ফিটনেস পরীক্ষায় খুব ভালো করতে হবে। চোট আর বাজে ফিল্ডিং বাংলাদেশকে এত ভোগাচ্ছে, ফিটনেস উন্নতি আনার বিকল্প যে নেই।

ক্যাম্পে শুরুতে ছিল ৩৭ জন খেলোয়াড়। মাশরাফি ও তামিমের ছুটি মঞ্জুর হওয়ায় ৩৫ জনের দল নিয়ে শুরু হচ্ছে ক্যাম্প। আগামীকাল থেকে শুরু বাংলাদেশ দলের কন্ডিশনিং ক্যাম্প চলবে ২৭ আগস্ট পর্যন্ত। এই অনুশীলনে যোগ দেবেন ২৪ ক্রিকেটার, বাকিরা বিসিবি হাইপারফরম্যান্স (এইচপি) দলের হয়ে খেলবে শ্রীলঙ্কা ইমার্জিং টিমের বিপক্ষে। ২৬ আগস্ট আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের দল ঘোষণার কথা রয়েছে। ২৮ আগস্ট দলে থাকাদের নিয়ে শুরু হবে অনুশীলন। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে একমাত্র টেস্টটি শুরু হবে ৫ সেপ্টেম্বর। এরপর জিম্বাবুয়েকে সঙ্গে নিয়ে ত্রিদেশীয় টি-২০ সিরিজ শুরু হবে ১৩ সেপ্টেম্বর।

 

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন