ঢাকা, শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৫ আশ্বিন ১৪২৬, ২০ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

শিষ্যদের নিয়ে লেগে পড়েছেন কোচ

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৩ আগস্ট, ২০১৯, ১২:০২ এএম

নতুন কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর কাছ থেকে দীক্ষা নিচ্ছেন মুশফিকুর রহিম -বিসিবি


বাংলাদেশে পা রাখার পরের দিন হয়েছে সংবাদ সম্মেলন ও খেলোয়াড়দের সঙ্গে পরিচয় পর্ব। গতকাল থেকে পুরোপুরি খেলোয়াড়দের নিয়ে কাজে লেগে পড়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের প্রধান কোচ রাসেল ক্রেইগ ডমিঙ্গো ও পেস বোলিং কোচ চার্ল ল্যাঙ্গাভেল্ট। মুস্তাফিজ-মাহমুদউল্লাহ-মুশফিকদের সঙ্গে হাস্যজ্জ্বল সময় কাটাতে দেখা গেছে নতুন দুই কোচকে।

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ব্যস্তময় সময় কাটিয়েছেন ল্যাঙ্গাভেল্ট। বিশেষ সেশনে কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান, গতি তারকা তাসকিন আহমেদ, তরুণ পেসার মোহাম্মদ সাইফদ্দিন, ঘরোয়া ক্রিকেটে পারফর্ম করা ফরহাদ রেজা, পেস বোলিং হান্ট থেকে উঠে আসা এবাদত হোসেন, আবু হায়দার রনি ও আবু যায়েদ চৌধুরী রাহির সঙ্গে আলাদাভাবে সময় কাটান নতুন বোলিং কোচ। প্রত্যোকে হাতে ধরে ধরে শিখিয়েছেন বলের গ্রিপিং, সিমিং পজিশন, বডি পজিশনিংসহ নানান দিক। সুইং পেতে ডেলিভারি কতটা নিখুঁত ট্রেনিংয়ের ফাঁকে পেস বোলিং কোচ চার্ল ল্যাঙ্গাভেল্টের সঙ্গে মুস্তাফিজুর রহমানহওয়া প্রয়োজন সেটিও বাতলে দিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকান কোচ।

ব্যাটিংয়ে সময় কাটাতেদ দেখা গেছে প্রধান কোচ ডমিঙ্গোকে। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে ট্যাকটিকস নিয়ে আলোচনা করতে দেখা যায় তাকে।

অনুশীলনের ফাঁকে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেছেন বাংলাদেশের টেস্ট স্পেশালিস্ট ব্যাটসম্যানের তকমা পাওয়া মুমিনুল হক। যোগ্যতা দিয়ে ক্রিকেটের বাকি দুই সংস্করণে জায়গা করে নেয়ার প্রতিশ্রæতি দিয়ে লিটল মাস্টার কথা বলেছেন টেস্ট চ্যাম্পিয়ন্সশিপ নিয়েও। তার মতে, বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়ন্সশিপ চালু হওয়ায় লাভবান হয়েছে বাংলাদেশ, ‘আমি মনে করি, টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ হওয়াতে আমাদের দেশের জন্য ভালো হয়েছে। ব্যক্তিগতভাবে আমি খুব খুশি। কেননা, টেস্ট ক্রিকেট আমাদের দেশে মনোযোগ পায় না। এখন পাবে, সেদিক থেকে বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্য খুব ভালো হয়েছে।’

এমনিতেই বাংলাদেশ টেস্ট খেলার সুযোগ পায় কম। তামিম-সাকিবদের সর্বশেষ কবে সাদা সার্জিতে দেখা গেছে এমন প্রশ্নের উত্তর দিতে গলদঘর্ম ছুটে যাবে অনেকেরই। বিশ্বকাপ সফরের আগে নিউজিল্যান্ডে বাংলাদেশ সর্বশেষ টেস্ট খেললেও মুমিনুল কিন্তু লম্বা সংস্করণের খেলার মধ্যেই ছিলেন। গেল মাসে ভারত সফরে খেলে এসেছেন মিনি রঞ্জি ট্রফি। সেঞ্চুরিও পেয়েছেন সেখানে। এখন চলছে কন্ডিশনিং ক্যাম্পের অনুশীলন। দলীয় অনুশীলনের বাইরে মুমিনুল অনুশীলন করছেন ব্যক্তিগত উদ্যোগেও। মুমিনুল জানেন টেস্ট ক্রিকেটে উন্নতি করতে হলে অনুশীলনের বিকল্প নেই, ‘টেস্ট ক্রিকেটে উন্নতি করতে হলে আপনাকে সব সময় অনুশীলন চালিয়ে যেতে হবে। এ কারণেই আমি বাড়তি অনুশীলন করি।’ বাড়তি পরিশ্রমের কারণটাও বললেন মুমিনুল, ‘আমার মনে হয়, টেস্ট ক্রিকেটে যদি আমি খুব ভালো গড় নিয়ে যাই, তাহলে (অন্য সংস্করণেও সুযোগ পাওয়ার) ভালো একটা সুযোগ আছে।’

এজন্য যত বেশি সম্ভব ম্যাচ খেলাকেও গুরুত্ব দিচ্ছেন তিনি, ‘ম্যাচ খেললে পারফর্ম করার সুযোগ বাড়বে আপনার। ভালো ফল করার সুযোগ থাকে, দলকে ভালো একটি অবস্থানে নিয়ে যাওয়ার সুযোগ থাকে। র‌্যাঙ্কিংয়ে উপরের দিকে যাওয়ারও সুযোগ থাকে। এদিক দিয়ে চিন্তা করলে আমার মনে হয়, এটা খুব ভালো একটি মঞ্চ আমাদের জন্য।’

আগামী নভেম্বরে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ শুরু করবে বাংলাদেশ। এর আগে আগামী মাসে আফগানিস্তানের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্ট বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়ন্সশিপের প্রস্তুতি হিসেবে খুব সহায়ক হবে বলে মনে করেন মুমিনুল, ‘টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের আগে এই ম্যাচ খেলা একটা ভালো প্রস্তুতি। আমাদের সবার জন্যই ভালো সুযোগ। মনে হয়, ভালো একটি খেলা হবে।’

আফগানিস্তানের স্পিন বাংলাদেশের বিপক্ষে বিপজ্জনক হতে পারে বলে আশংকা প্রকাশ করেছেন মুমিনুল। আসন্ন টেস্টে কোন রকম নিশ্চয়তা দিতে চান না তিনি। তার মতে আফগান স্পিনাররা প্রভাব বিস্তার করতে পারে টাইগার ব্যাটসম্যানদের উপর, ‘আফগানিস্তানের স্পিন আক্রমন বিশ্ব মানের। তাদের স্পিনারদের বিপক্ষে এই টেস্টটি আমাদের কাছে হবে ভারত সিরিজের ভাল প্রস্তুতি। তবে আমরা জানি উপমহাদেশে তাদের স্পিন আক্রমণ কত ভয়ঙ্কর।’

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন