ঢাকা, শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৬ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

শ্রীলঙ্কাকে উড়িয়েই দিলো বাংলাদেশ

সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়নশিপ

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ আগস্ট, ২০১৯, ১২:০১ এএম

গোলের পর বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৫ দলের উল্লাস। ম্যাচে আল-আমিন (১০) একাই করেছেন গোল -ইনকিলাব


বাংলাদেশ ৭-১ শ্রীলঙ্কা

ভুটানকে ৫-২ গোলের হারানোর পর মোস্তফা আনোয়ার পারভেজ আক্ষেপ করে বলেছিলেন স্কোরলাইন ৫-০ হলে বেশি খুশি হতেন। শুধুই কি ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন বলেই এমন আক্ষেপ বাংলাদেশ কোচের? না, শিষ্যদের গোল দেবার ক্ষমতা সম্পর্কে ধারণা থেকেই এমন উচ্চাভিলাসী স্বপ্ন দেখেছিলেন গুরু। আর সেটি যে অমুলক নয় তার প্রমাণ দ্বিতীয় ম্যাচেই দিলো কিশোররা। এবার শ্রীলঙ্কাকে গোলবন্যায় ভাসিয়ে ছেলেদের সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়নশিপে তুলে নিয়েছে টানা দ্বিতীয় জয়। শুরু থেকে আক্রমণাত্মক ফুটবলের পসরা মেলে শ্রীলঙ্কাকে গুঁড়িয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ। ভারতের কলকাতার কল্যাণী স্টেডিয়ামে গতকাল ৭-১ গোলে জিতেছে বাংলাদেশ। একাই পাঁচ গোল করেছেন আল আমিন রহমান। অপর দুই গোলদাতা রাকিবুল ইসলাম ও আল মিরাদ।

স্কোর লাইন ৭-১। এই ম্যাচ নিয়ে কাটাছেঁড়া বিশ্লেষণের খুব বেশি প্রয়োজন আছে বলে মনে হয় না। শ্রীলঙ্কাকে নাস্তানাবুদ করেই ছেড়েছে রাকিবুল, আল-আমিনরা। বল দখল, ব্যক্তিগত স্কিল, গতি- কোনো দিক দিয়েই বাংলাদেশের কিশোরদের সঙ্গে পেরে ওঠেনি লঙ্কানরা। প্রথমার্ধেই ৩ গোলের ঝড়। কিশোরেরা তাতে সন্তুষ্ট হতে পারেনি। দ্বিতীয়ার্ধে ঝড়ের মাত্রা আরও বেড়েছে। যদিও এর মধ্যে লঙ্কানরা একটি গোল শোধ দিয়েছে। স্কোরলাইনের বপু বিশাল হলেও প্রাপ্ত গোলের সুযোগের সব কটি কাজে লাগাতে না পারায় ম্যাচটা অবশ্য আক্ষেপ দিয়েই শেষ হয়েছে!

ভুটানকে ৫-২ গোলে উড়িয়ে প্রতিযোগিতার মুকুট ধরে রাখার মিশন শুরু করেছিল রাকিবকুল ইসলামের দল। আগের দিনই বাংলাদেশ কোচ জানিয়েছিলেন শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আক্রমণাত্মক খেলবে দল। শুরু থেকে মিরাদ-আল আমিনরা টানা আক্রমণে প্রতিপক্ষের রক্ষণে কাঁপন ধরালেও কাক্সিক্ষত গোল পাচ্ছিল না। অবশেষে ৩২তম মিনিটে মেলে গোলের দেখা। সতীর্থের পাস পেয়ে ডি-বক্সে ঢুকে গোলকিপার থারুসা রাশমিকার পাশ দিয়ে বল জালে জড়িয়ে দেন আল আমিন। ১০ মিনিট পর একাধিক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে প্লেসিং শটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন বাংলাদেশ অধিনায়ক রাকিবুল। বিরতিতে যাওয়ার এক মিনিট আগে বাংলাদেশ তৃতীয় গোলের দেখা পায়। সতীর্থের পাস পেয়ে ডি-বক্সে ঢুকে কোনাকুনি শটে নিজের দ্বিতীয় গোলটি করেন আল আমিন।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই অপূর্ব মালির চমৎকার থ্রো-ইনে হেডে স্কোরলাইন ৪-০ করেন ফরোয়ার্ড আল মিরাদ। দুই মিনিট পর নিজেদের ভুলে একমাত্র গোলটি হজম করে বাংলাদেশ। এক ডিফেন্ডার হেডে ঠিকমতো বল ক্লিয়ার করতে ব্যর্থ হলে শ্রীলঙ্কার ফরোয়ার্ড ইনসান মোহাম্মদ মিহরান প্লেসিং শটে ব্যবধান কমান। তাতে ম্যাচের চিত্র অবশ্য একটুও পাল্টায়নি। একের পর এক আক্রমণ করতে থাকা বাংলাদেশ ৫৯তম মিনিটে পেনাল্টি থেকে আরও একটি গোল পায়। হ্যাটট্রিক পূরণ হয় আল আমিনের। ৬৭তম মিনিটে ব্যবধান আরও বাড়ানোর তিন মিনিট পর প্রতিপক্ষের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন আল আমিন।

বড় জয়ে বেশ ফুরফুরে মেজাজে কোচ পারভেজ বাবু। তবে এ নিয়ে আত্মতৃপ্তিতে ভুগতে নিষেধ করলেন শিষ্যদের, ‘যে কোনো জয়ই বেশ আনন্দের। জয়ের ব্যবধান বেশি হয়েছে, যেটা আমাদের এগিয়ে রাখছে। তবে এখানেই আত্মতৃপ্তি নেয়া ঠিক হবে না। আমাদের আরও ম্যাচ বাকি রয়েছে। আল-আমিন ভালো ফুটবলার। আরও কিছু সুযোগ সে পেয়েছিল। কিন্তু কাজে লাগাতে পারেনি।’ গুরু আরো গোলের আক্ষেপে পুড়লেও শিষ্য আল-আমিন ঠিকই তুষ্ট, ‘ভালো লাগছে দেশের জন্য কিছু করতে পারায়। বাইরের দেশে এসে নিজের দক্ষতায় এত গোল পেয়ে দেশকে জেতাতে পেরেছি। আন্তর্জাতিক অঙ্গণে এই প্রথম আমার পাঁচ গোল। এটাই আমার ক্যারিয়ারের সেরা ম্যাচ।’

টানা দুই জয়ে ৬ পয়েন্ট পাওয়া বাংলাদেশ আগামীকাল খেলবে নেপালের বিপক্ষে। বাংলাদেশ সময় ম্যাচটি শুরু হবে বিকেলে সাড়ে তিনটায়। এরপর ২৯ আগস্ট স্বাগতিক ভারতের মোকাবেলা করবে লাল-সবুজের বাহকরা। আর ভুটানকে হারিয়ে প্রতিযোগিতা শুরু করা শ্রীলঙ্কা এ নিয়ে টানা দুই ম্যাচে হারল। নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে নেপালের কাছে ২-০ গোলে হেরেছিল তারা। এই হারে কিছুটা শঙ্কায় পড়ে গেল তাদের টিকে থাকা। রাউন্ড রবিন লিগ পদ্ধতির এবারের আসরে অংশ নিচ্ছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশসহ ৫টি দল। অন্য দেশগুলো আয়োজক ভারত, নেপাল, ভুটান আর শ্রীলঙ্কা। পয়েন্ট টেবিলের সেরা দুই দল খেলবে ফাইনালে।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন