ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬, ১৪ সফর ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ইবতেদায়ীর জন্য প্রধানমন্ত্রীর অনন্য দৃষ্টান্ত

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম

মাদরাসা শিক্ষার জন্য অত্যন্ত আন্তরিক হিসেবে পরিচিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই ধারায় উচ্চশিক্ষা ও গবেষণার জন্য তিনি ইতোমধ্যে ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা ও মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর করেছেন।

শিক্ষকদের মর্যাদা ও বেতন বৈষম্যও দূর করেছেন। এবার তিনি মাদরাসার প্রাথমিক স্তর ইবতেদায়ী শিক্ষার্থীদের জন্য অনন্য এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের যে বিষয়টিতে দৃষ্টি এড়িয়ে গেছে সেই বিষয়ে দৃষ্টি এড়ায়নি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের দুপুরের খাবার প্রদানের জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। এজন্য কয়েকটি জায়গায় পাইলট প্রকল্প চালু করা হয়। পরবর্তীতে সব প্রাথমিক বিদ্যালয়েই এই কার্যক্রম শুরু করার জন্য নীতিমালার খসড়া তৈরি করে মন্ত্রিসভায় পাঠনো হয়।

গত মাসে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য দুপুরের পুষ্টিকর খাবার অন্তর্ভুক্ত করে ‘জাতীয় স্কুল মিল নীতি ২০১৯’ এর খসড়ার অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা। তবে এই নীতিমালায় মাদরাসা শিক্ষা ধারার প্রাথমিক স্তর ইবতেদায়ীর শিক্ষার্থীদের কথা উল্লেখ করা হয়নি। একই স্তরের দুটি ধারার শিক্ষার্থীদের জন্য নেয়া হয় বৈষম্যমূলক এই উদ্যোগ। বিষয়টি নিয়ে মাদরাসা শিক্ষক-কর্মচারীদের একক ও সর্ববৃহৎ সংগঠন বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে বিবৃতি প্রদান করে। সেটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নজরে পড়লে তিনি তাৎক্ষণিকভাবে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়কে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মতো ইবতেদায়ী শিক্ষার্থীদের জন্যও দ্রুত দুপুরের খাবারের ব্যবস্থা করতে নির্দেশ দেন।

একই সাথে তিনি সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দেন কোনটি আগে, কোনটি পরে যেন না হয়, বরং প্রাথমিক ও ইবতেদায়ীর সকল শিক্ষার্থীদের অবিলম্বে একই সাথে দুপুরের খাবারের ব্যবস্থা করার জন্য। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার পর থেকেই কাজ শুরু করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগ, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর।

মাদরাসা শিক্ষা বিশেষ করে ইবতেদায়ী শিক্ষার্থীদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর এই আন্তরিকতা ও উদ্যোগকে অনন্য দৃষ্টান্ত হিসেবেই মনে করছেন এই ধারার শিক্ষক-শিক্ষার্থী এবং মাদরাসা শিক্ষকদের সংগঠন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (9)
সাদ্দাম ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১১:০২ এএম says : 0
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মতো ইবতেদায়ীকে সকল ক্ষেত্রে সমান গুরুত্ব দেয়া উচিত বলে আমি মনে করি।
Total Reply(0)
বাবুল ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১১:০১ এএম says : 0
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মতো ইবতেদায়ী শিক্ষার্থীদের জন্যও দ্রুত দুপুরের খাবারের ব্যবস্থা করতে নির্দেশ দেয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে অসংখ্য মোবারকবাদ জানাচ্ছি
Total Reply(0)
মাহফুজ আহমেদ ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১১:০৩ এএম says : 0
আল্লাহ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উত্তম জাযাহ প্রদান করুক।
Total Reply(0)
নাজিম উদ্দিন ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১১:০৪ এএম says : 0
মাদরাসা শিক্ষা বিশেষ করে ইবতেদায়ী শিক্ষার্থীদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর এই আন্তরিকতা ও উদ্যোগ এক অনন্য দৃষ্টান্ত।
Total Reply(0)
রিফাত ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১১:০৫ এএম says : 0
মাদরাসা শিক্ষক-কর্মচারীদের একক ও সর্ববৃহৎ সংগঠন বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীনকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি
Total Reply(0)
লোকমান ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১১:০৬ এএম says : 0
সকল বৈষম্য দূর হোক এটা আমাদের সকলের কামনা
Total Reply(0)
শাহে আলম ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১১:১০ এএম says : 0
বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফসল এটা।
Total Reply(0)
জহির ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১১:১১ এএম says : 0
আশা করি প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ অনুযায়ি দ্রুত সময়ের মধে বিষয়টি বাস্তবায়ন হবে।
Total Reply(0)
মোহাম্মাদ হাবিবুর রহমান ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৩:২৭ পিএম says : 0
মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।পাশাপাশি ইবতেদায়ী শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান করার জন্য বিনীত অনুরোধ করছি।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন