ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬, ১৮ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

সারা বাংলার খবর

আয়াতুল কুরসির ফজিলত শুনে ইসলাম গ্রহণ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১১:৫০ এএম

আবদুর রহমান। নারায়ণগঞ্জের নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার লালপুর অধিবাসী। কুরআনুল কারিমের আয়াতুল কুরসির ফজিলত শুনে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন। ইসলামের স্পর্শে আসার পর ‘সত্য পথের দিশা’ নামে একটি গ্রন্থও লিখেছেন তিনি। আবদুর রহমান নিজের মুখেই তার ইসলাম গ্রহণের ঘটনা বর্ণনা করেছেন।
আল্লাহর দরবারে হাজারো শুকরিয়া! তিনি আমাকে ইমানী দৌলত দান করেছেন। আমি সত্য ধর্ম ইসলাম গ্রহণ কওে মারাত্মক গোমরাহির পথে সরে এসেছি। পূর্বে আমার নাম ছিলো রনজিৎ কুমার ঘোষ। বাবার নাম দুলাল চন্দ্র ঘোষ।
পিতা অনেক বড় পূজারি। তিনি মন্দির নির্মাণ করেছে। আমি ছোটবেলা থেকেই ধর্মভীরু ছিলাম। ধর্মের প্রতি খুবই দুর্বল ছিলাম।
মুসলিমদেরকে আমি দেখতে পারতাম না। ছোটবেলা থেকেই আমি শারীরিক দুর্বল ছিলাম। আমি প্রতিদিন পূজা দিতাম। আমার শারীরিক দুর্বলতা কাটাতে বহু জপ করেছি। আমি গীতা পাঠ করে ভগবানের কাছে মিনতি করতাম, হে ভগবান আমার রোগ ভালো করে দাও! কিন্তু কিছুতেই পরিবর্তন হচ্ছিল না।
আমি একটা কোচিং স্টোর খুলেছিলাম যেখানে আমার কয়েকজন মুসলিম বন্ধু ছিলো। আমি তাদের কাছে আমার সমস্যার কথা খুলে বললাম। অতঃপর তারা একদিন আমাকে মকসুদুল মুুমিনিন নামে একটি বই দিল। আমি ঐটাতে পাইলাম আয়াতুল কুরসি পড়লে আমার সে রোগটি ভালো হয়ে যাবে। আমি সে রাতে আয়াতুল কুরসির বাংলা উচ্চারণ দেখে পাঠ করে ঘুমাই। আলহামদুলিল্লাহ আমি সে রাতেই সুস্থ হয়ে যাই।
গীতা জপসহ কত কিছু করলাম কোনো কাজ হলো না। পরিশেষে এ আয়াতুল কুরসির উসিলায় আল্লাহ আমাকে সুস্থ করে দিলো। আমি হিন্দু ধর্ম ছেড়ে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত নিলাম। কারণ আমি হিন্দু ধর্মে এত বেশি পরিমাণ ইবাদত করেছি, যদি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার পর তা করতাম তাহলে আমি বড় আল্লাহওয়ালা হয়ে যেতাম।
আমি নির্জনে রাতের বেলায় বলতাম হে এ পৃথিবীর মালিক, যে ধর্ম সত্যি আমাকে তার দিকে পথ দেখাও! এভাবে দশ দিন কান্নাকাটির পর আমি কিছুই দেখিনি। এগারোতম রাতে অনেক কান্নাকাটি করি, ঐ রাতেও আমি কিছুই দেখলাম না।
পরদিন সকালে কোচিংয়ে ছাত্র-ছাত্রী পড়ালাম। তখন সেখানে একজন মুসলিম আসলো। অনেক ভালো একজন লোক ছিলো তিনি। তার দিকে এক সময় হঠাৎ তাকিয়ে দেখি তার কপালে হাতে শরীরে আল্লাহ লেখা ওঠলো। আমি এসব দেখে অবাক হয়ে গিয়েছি!
আমি বিশ্বাস করলাম ইসলামই শ্রেষ্ঠ ধর্ম, সত্যি ধর্ম। আমি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলাম। আল্লাহ তায়ালা আমাকে এ হেদায়াতের আলোতে আসার তাওফিক দিলেন।
আব্দুর রহমান বলেন, আমি হিন্দু ভাইদের প্রতি ইসলামের দাওয়াত নিয়ে একটি বই লিখেছি। এটার নাম দিয়েছি ‘সত্য পথের দিশা’। হিন্দুদের নানান প্রশ্নের জবাব এতে দেয়া আছে।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
md Rejaul Karim Rajan ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ২:৪০ পিএম says : 0
সুবহানআল্লাহ
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন