ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৭ সফর ১৪৪১ হিজরী

ব্যবসা বাণিজ্য

ডিএনসিসির ৩ হাজার ৫৭ কোটি টাকার বাজেট

মশা নিধনে বরাদ্দ বেড়েছে প্রায় ৩ গুণ

স্টাফ রিপোর্টার : | প্রকাশের সময় : ৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:২১ এএম

মশা নিয়ন্ত্রণে বরাদ্দ বাড়িয়ে ২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য ৩ হাজার ৫৭ কোটি ২৪ লাখ টাকার বাজেট ঘোষণা করেছে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি)। গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর গুলশান নগর ভবনে এ বাজেট ঘোষণা করেন ডিএনসিসি’র মেয়র মোহাম্মদ আতিকুল ইসলাম। এটা মেয়রের দায়িত্বে আসার পর তার প্রথম এবং এই মেয়াদের শেষ বাজেট।

প্রস্তাবিত বাজেট পেশ করার সময় ২০১৮-১৯ অর্থবছরের এক হাজার ৮২২ কোটি ৬৩ লাখ টাকার সংশোধিত বাজেটও অনুমোদনের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। গত অর্থবছরে ডিএনসিসির এ বাজেট ছিল দুই হাজার ৫৬৭ কোটি ৪৫ লাখ টাকা। আর বাজেট বাস্তবায়ন হয়েছে ৭০ দশমিক ৯৯ শতাংশ।
এসময় আতিকুল ইসলাম বলেন, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের জন্য এটি নবম বাজেট হলেও মেয়র হিসেবে আমার জন্য প্রথম বাজেট। আমাদের জাতীয় জীবনে এই অর্থবছর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ‘মুজিব বর্ষ’, ‘ভিশন ২০৪১’ এবং ‘টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি)’ সামনে রেখে ডিএনসিসির কর্মপরিকল্পনা সাজানো হয়েছে। তিনি বলেন, মেয়র নির্বাচনের সময় আমি মশক নিয়ন্ত্রণ, টেকসই বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, পানিবদ্ধতা নিরসন, সেবাগুলো ডিজিটাল পদ্ধতিতে নিশ্চিত করা, রাস্তাঘাটের আধুনিকায়ন ও সৌন্দর্যবর্ধনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম। তাছাড়া আপনারা জানেন, নতুন ১৮টি ওয়ার্ড যুক্ত হওয়ায় ডিএনসিসির বর্তমান ওয়ার্ড সংখ্যা ৫৪টি। আয়তনও ৮২.৬২ বর্গ কিমি থেকে বেড়ে ১৯৬.২২ বর্গ কিমি হয়েছে। নতুন ওয়ার্ডগুলোর উন্নয়নেও আমরা কাজ করবো।

তিন হাজার ৫৭ কোটি ২৪ লাখ টাকার প্রস্তাবিত বাজেট এ আয়ের বড় অংশের জন্য বাহ্যিক সাহায্যের ওপর নির্ভর করছে ডিএনসিসি। রাজস্ব খাত থেকে আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে এক হাজার ১০৬ কোটি ৪০ লাখ টাকা। এছাড়াও সরকারি থোক বরাদ্দ ১০০ কোটি টাকা, বিশেষ বরাদ্দ ৫০ কোটি টাকা এবং অন্যান্য খাত থেকে ৯ কোটি টাকা রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। তবে বাজেটের সরকারি ও বৈদেশিক সাহায্যপুষ্ট প্রকল্প থেকে আয় ধরা হয়েছে এক হাজার ৫৬৪ কোটি ৬৪ লাক টাকা। যা আয়ের সব খাত থেকে বেশি এবং মোট বাজেটের ৬৩ দশমিক ৫ শতাংশ বেশি।

নতুন বাজেটে মশা নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমের জন্য ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৯ কোটি ৩০ লাখ টাকা। যা ২০১৮-১৯ অর্থবছরের সংশোধিত বরাদ্দ থেকে ১৮২ শতাংশ বেশি। ২০১৮-১৯ অর্থবছরে এ খাতের সংশোধিত বাজেট বরাদ্দ ১৭ কোটি ৫০ লাখ টাকা। মশা নিয়ন্ত্রণে যন্ত্রপাতিতেও বরাদ্দ বাড়ানো হয়েছে। মশা নিয়ন্ত্রণ যন্ত্রপাতির জন্য বরাদ্দ ধরা হয়েছে ১০ কোটি টাকা। এ খাতে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের সংশোধিত বরাদ্দ ৮ কোটি টাকা। অর্থাৎ ২০১৮-১৯ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেট থেকে এ খাতে ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটে বরাদ্দ বেড়েছে ২৫ শতাংশ।

ডিএনসিসির নতুন বাজেটের আকার ধরা হয়েছে ৩০৫৭ কোটি ২৪ লাখ টাকা, যা ২০১৮-১৯ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটে থেকে ১২৩৪ কোটি ৬৩ লাখ টাকা বেশি। ২০১৮-১৯ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেট ১৮২২ কোটি ৬৩ লাখ টাকা বেশি।
এ বাজেটে রাজস্ব আয় ধরা হয়েছে ১১০৬ কোটি ৪০ লাখ টাকা, যা আগের বছর থেকে ৩১৩ কোটি ৪০ লাখ টাকা বেশি। সরকারি অনুদান ধরা হয়েছে ১০০ কোটি টাকা, যা গত অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটে ছিল ৫৪ কোটি ৭৮ লাখ টাকা। সরকারি বিশেষ অনুদান ধরা হয়েছে ৫০ কোটি টাকা, যা গত অর্থবছরে ছিল ১৩ কোটি ৫০ লাখ টাকা। আর সরকারি অথবা বিদেশি সাহায্যপুষ্ট প্রকল্প থেকে আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১৫৬৪ কোটি ৬৪ লাখ টাকা, যা গত অর্থবছরে ছিল ৭০৪ কোটি ১০ লাখ টাকা।

এবার ব্যয়ের ক্ষেত্রে শতাংশের হিসাবে বরাদ্দ সব থেকে বেশি বাড়ানো হয়েছে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের ট্রাক ও মটরসাইকেল এবং সেকেন্ডারি ট্রান্সফার স্টেশন খাতে। এ দুটি খাতেই বরাদ্দ ২০১৮-১৯ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটের তুলনায় ৯০০ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের ট্রাক ও মটরসাইকেল খাতে ব্যয়ের লক্ষ্যমাত্র ধরা হয়েছে পাঁচ কোটি টাকা। একই বরাদ্দ ধরা হয়েছে সেকেন্ডারি ট্রান্সফার স্টেশন খাতে। ২০১৮-১৯ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটে এ দুটি খাতের ব্যয় ধরা হয় ৫০ লাখ টাকা করে।
মৌলিক নাগরিক সেবার ক্ষেত্রে অন্য যেসব খাতে ডিএনসিসি বরাদ্দ রেখেছে তার মধ্যে- প্রাথমিক স্বাস্থ্য পরিচর্যা খাতের ব্যয় ধরা হয়েছে এক কোটি ৫০ লাখ টাকা, যা ২০১৮-১৯ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটে ধরা হয়েছে ২০ লাখ টাকা। কল্যাণমূলক ব্যয় ধরা হয়েছে ১৫ কোটি টাকা, যা গত অর্থবছরে ছিল ১১ কোটি টাকা।

এছাড়া নগরীর বর্জ্য ব্যবস্থাপনার জন্য বরাদ্দ রাখা হয়েছে ৮৬ কোটি টাকা, যা গত অর্থবছরে ছিল ৬৩ কোটি ৬০ লাখ টাকা। বর্জ্য বিভাগের মাধ্যমে যন্ত্রপাতি আধুনিকায়ন, উন্নয়ন ও ক্রয়ের জন্য বরাদ্দ ধরা হয়েছে ২০ কোটি টাকা, যা গত অর্থবছরে ছিল ৯ কোটি ৫০ লাখ টাকা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন