বৃহস্পতিবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১৩ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

শিক্ষাঙ্গন

মানসম্মত শিক্ষায় সেন্ট জুডস ইন্টারন্যাশনাল স্কুল

প্রকাশের সময় : ১৩ জুন, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বিগত কয়েকবছর ধরে বাংলাদেশের শিক্ষাব্যবস্থায় নানা পরিবর্তন এসেছে। দেশে এখন ইংরেজি মাধ্যমের স্কুলের সংখ্যাও বাড়ছে। এসব স্কুল গ্রহণযোগ্যতাও অর্জন করছে সকলের মধ্যে। স্কুলগুলো ব্রিটিশ কাউন্সিলের আওতায় লন্ডনের ক্যামব্রিজ অথবা এডেক্সেল বোর্ডের কারিকুলাম অনুসরণ করছে। দেশে উন্নতমানের ইংলিশ মাধ্যম স্কুলের সংখ্যা হাতেগোনা। দেশে যে কয়েকটি ভিন্ন ধারার ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল রয়েছে তার মধ্যে সেন্ট জুডস ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অন্যতম।
১৯৭৯ সালে সেন্ট জুডস ইন্টারন্যাশনাল স্কুল প্রতিষ্ঠিত হয়। স্কুলটি এ্যাডক্সেল বোর্ডের কারিকুলাম অনুসরণ করছে। স্কুলটির প্রিন্সিপাল হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন ড. অগাস্টিন ক্রুজ। জানা যায়, স্কুলটি প্রতিষ্ঠার প্রধান উদ্দেশ্য যুক্তিসঙ্গত খরচে বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের আন্তর্জাতিক মানের শিক্ষা দান। এছাড়াও শিক্ষার্থীরা যেন ভবিষ্যতে সুনাগরিক হিসেবে গড়ে ওঠে সে বিষয়েও বিশেষ নজর রয়েছে স্কুল কর্তৃপক্ষের।
এ স্কুলের শিক্ষা পদ্ধতি প্রচলিত ধারা থেকে কিছুটা ব্যতিক্রম। গত কয়েক বছর ধরে বাংলাদেশের শিক্ষা ব্যবস্থায় নানা পরিবর্তন লক্ষ্য করা যাচ্ছে। প্রাইভেট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ব্যাপক বিস্তার, বাংলার পাশাপাশি ইংরেজী মাধ্যমে পড়াশোনার সহজলভ্যতা শিক্ষা বিস্তারে যুগান্তকারী অগ্রগতি এনে দিয়েছে।
বর্তমানে দেশের সর্বত্র বাংলা মাধ্যমের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে ইংরেজী মাধ্যমের স্কুল প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে। ইতোমধ্যে ইংরেজী মাধ্যমের স্কুলগুলো ব্যাপক গ্রহণযোগ্যতাও অর্জন করেছে। প্রযুক্তিনির্ভর বিশ্বে পাল্টে যাচ্ছে শিক্ষার ধরন। গতানুগতিক শিক্ষায় ছেলে-মেয়েদের শিক্ষিত করে অনেক অভিভাবক এখন আর নিশ্চিন্ত থাকতে পারেন না। তারা চান প্রযুক্তির হাওয়ায় নিজ সন্তানকে শিক্ষিত করতে। আবার প্রযুক্তিনির্ভর নানা প্রতিষ্ঠান আমাদের দেশে থাকলেও মানের দিক নিয়ে সন্দেহটা যেন থেকেই যায়। সে ক্ষেত্রে পছন্দের তালিকায় সেন্ট জুডস ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অনেকটাই জায়গা করে নিয়েছে। প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার বাইরেও রয়েছে বিভিন্ন ধরনের সহশিক্ষা কার্যক্রম- যেগুলো শিক্ষার্থীদের মনোবল গঠন ও মানসিক বিকাশে সহায়তা করছে।
এই স্কুলে রয়েছে আধুনিক কম্পিউটার ল্যাব। এখানকার প্রতিটি শিক্ষার্থীর জন্যই কম্পিউটার শিক্ষা আবশ্যক এবং আইটি ক্লাস বাধ্যতামূলক।
বিশেষ বৈশিষ্ট্য : ১. ড. অগাস্টিন ক্রুজের নেতৃত্বে¡ দক্ষ ও অভিজ্ঞ শিক্ষকমÐলী দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে স্কুলটি। ২. ইংরেজীর পাশাপাশি বাংলা ভাষাকে সমান গুরুত্ব দেয়া হয়। ৩. এ্যাডক্সেল, লন্ডনের কারিকুলাম অনুসরণ করা হয়। ৪. রয়েছে অত্যাধুনিক লাইব্রেরী ও বিজ্ঞানাগার। ৫. শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে যাতায়াতের সু-ব্যবস্থা। ৬. এছাড়াও রয়েছে শিক্ষার্থীদের ক্যাফেটারিয়া প্রভৃতি। যোগাযোগ : সেন্ট জুডস ইন্টারন্যাশনাল স্কুল। হাউস : ৩৫২/বি (পুরাতন), ২১/বি (নতুন), রোড : ২৭ (পুরাতন), ১৬ (নতুন)। ধানমÐি, ঢাকা-১২০৯। বিন: িি.িংলরংনফ.পড়স
ভর্তি প্রক্রিয়া : শিক্ষার্থীদের ভর্তির জন্য যা যা প্রয়োজনÑ ১. জন্ম সনদ ২. দুই কপি পাসপোট সাইজ ছবি ৩. সর্বশেষ রেজাল্ট কার্ড। সেশন : জুলাই থেকে জুন।
ষ জাকারিয়া হাসান

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন