ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬, ১৮ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

মহানগর

তাজিয়া মিছিলে হাজারো মানুষ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০২ পিএম | আপডেট : ১:১৫ পিএম, ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

ছবি- ইকবাল হাসান নান্টু।


পুরান ঢাকার হোসেনি দালানের ইমামবাড়া থেকে বের হওয়া তাজিয়া মিছিলটি রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে ধানমন্ডির ‘প্রতীকী কারবালা’র প্রান্তে এসে পৌঁছেছে। মিছিলে কারবালার রক্তাক্ত স্মৃতির স্মরণে নেমেছে মানুষের ঢল।

আজ মঙ্গলবার (১০ সেপ্টেম্বর-১০ মহররম) পবিত্র আশুরা। এ উপলক্ষে সকালে হোসেনি দালানের ইমামবাড়া থেকে বের হয় তাজিয়া মিছিল। এটি রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক ঘুরে ধানমন্ডি গিয়ে মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।

এ দিন দুপুরে রাজধানীর জিগাতলা এলাকায় মিছিলটি এসে পৌঁছালে মিছিল থেকে ‘হায় হোসাইন, হায় হোসাইন’ স্লোগানে মাতম করতে দেখা যায় বিভিন্ন বয়সী যুবক, নারী ও শিশুদের।

তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এ মিছিল থেকে মূলত কারবালার শোকাবহ ঘটনা দৃশ্যায়ন করা হয়। মিছিলে বুক চাপড়ে, মাতম করে শোক প্রকাশ করেন শিয়া সম্প্রদায়ের মানুষেরা।

এ প্রসঙ্গে হোসনি দালান ইমামবাড়ার প্রশাসনিক কর্মকর্তা মির্জা মোহাম্মদ নাকি আসলাম জানান, ৪০০ বছর ধরে পুরান ঢাকায় শোকের মাতম অর্থাৎ তাজিয়া মিছিল বের করা হয়। কারবালায় ইমাম হোসাইনসহ তার পরিবারকে হত্যার মধ্য দিয়ে যে বিষাদময় ঘটনা ঘটেছে, ইতিহাসে তার পুনরাবৃত্তি হবে না। এবারের মিছিলে বিভিন্ন ধর্ম ও গোষ্ঠীর মানুষ অংশ নিয়েছে।

এদিকে, তাজিয়া মিছিল উপলক্ষে ইমামবাড়া এবং আশেপাশের এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা সদা তৎপর রয়েছেন।


মিছিলে এবারও অস্ত্র, লাঠি ও আগুনসহ জিঞ্জিরা দিয়ে রক্তপাত নিষিদ্ধ করেছে পুলিশ। এছাড়া যেকোনো ধরনের ধাতব বস্তু বা আতশবাজি ব্যবহারও নিষিদ্ধ। নিরাপত্তার স্বার্থে মিছিলে ব্যবহার করা যাবে না ১২ ফুটের বেশি বড় নিশান। পাঞ্জা মেলানো, শক্তির ব্যবহারও নিষিদ্ধ। উচ্চ স্বরে গান বাজানো বা সাউন্ড সিস্টেমও ব্যবহার করা যাবে না।

১০ মহররম কারবালার যুদ্ধে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর দৌহিত্র ইমাম হোসাইনের মৃত্যুর দিনটি বিশ্বব্যাপী পালন করে থাকেন শিয়া মতাদর্শীরা। কারবালার বিয়োগাত্মক সেই ঘটনাকে কেন্দ্র করে পুরান ঢাকার হোসেনি দালানের ইমামবাড়া থেকে তাজিয়া মিছিল বের করা হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন