ঢাকা, সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৮ আশ্বিন ১৪২৬, ২৩ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ঢাবি ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা আজ

প্রথমবারের মতো এমসিকিউর সাথে থাকছে লিখিত পরীক্ষা

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার : | প্রকাশের সময় : ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

ঢাবি মধুর ক্যান্টিনে গতকাল ছাত্রলীগ আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন -ইনকিলাব


১২৫০ আসনের বিপরীতে ৩০ হাজার ভর্তিচ্ছু


জালিয়াতি বন্ধ ও ভর্তিচ্ছুদের সহযোগিতায় শাখা ছাত্রলীগ


আজ থেকে শুরু হচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের ¯œাতক ১ম বর্ষ ভর্তি পরীক্ষা। সকাল ১০টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত বিজনেস স্টাডিজ অনুষদভুক্ত ‘গ’ ইউনিটের অধীনে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের মোট ৫৬টি কেন্দ্রে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এতে ১২৫০টি আসনের বিপরীতে অংশ নিচ্ছেন ২৯,০৫৮জন শিক্ষার্থী। বিগত বছরগুলোর অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে এমসিকিউ পদ্ধতির সাথে এবারই প্রথম শিক্ষার্থীরা অংশ নিবেন লিখিত পরীক্ষায়। এজন্য বাড়ানো হয়েছে পরীক্ষার সময়।
এদিকে পরীক্ষার হলে মোবাইল ফোন বা টেলিযোগাযোগ করা যায় এরূপ কোন ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস বহন করা যাবো না বলে সতর্ক করেছে কর্তৃপক্ষ। যেকোন ধরণের অনাকাঙ্খিত ঘটনা এড়াতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে ৪ স্তরের নিরাপত্তা। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর প্রফেসর ড. একে এম গোলাম রব্বানী সন্ধ্যায় ইনকিলাবকে বলেন, ‘আমাদের সব ধরণের প্রস্তুতি ইতোমধ্যেই শেষ হয়েছে। সব ধরণের অনাকাঙ্খিত ঘটনা এড়াতে বিএনসিসি, পুলিশ, র‌্যাবের টহল টিম, আর পুলিশের মোবাইল টিমসহ চার স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এরবাইরে ক্যাম্পাসে উপস্থিত থাকবেন সাদা পোশাকে প্রচুর গোয়েন্দা সংস্থার লোকজন।’
ঢাকায় মেট্রো রেলের কাজ চলার কারণে ঢাবি প্রক্টর ভর্তিচ্ছুদের নির্দিষ্ট সময়ের আগেই শিক্ষার্থীদের বাসা থেকে বের হওয়ার পরামর্শ দেন পাশাপাশি ভর্তিচ্ছুদের সাথে আগত অভিভাবকদের নির্দিষ্ট স্থান অতিক্রম না করে প্রশাসনকে সহযোগিতা করার অনুরোধ জানান।
এদিকে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের সহযোগিতা বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করেছে শাখা ছাত্রলীগ। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আগত শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকদের সহযোগিতার জন্য দশটি সব ধরণের সহযোগিতার প্রতিশ্রæতি দেন তারা। গতকাল বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কর্মসূচির বিস্তারিত তুলে ধরেন শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস ও সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসাইন। এসব কর্মসূচির মধ্যে আছে বাইক সার্ভিস, সুপেয় পানির ব্যবস্থা, তথ্যকেন্দ্র ইত্যাদি।
ঢাবি ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস ভর্তি পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে কেউ যেন অসদুপায় অবলম্বন না করে সেজন্য সকলের প্রতি আহŸান জানান। পাশাপাশি ভর্তিচ্ছুদের সুবিধার জন্য কর্মসূচির বিস্তারিত তুলে ধরেন। তিনি বলেন, যেসব ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীর ঢাকার থাকার জায়গা নেই আমরা তাদের থাকার ব্যবস্থা করব। যারা আগে যোগাযোগ করবে এমন ২০ থেকে ২৫ জন আমার ও সাধারণ সম্পাদকের কক্ষেও থাকতে পারবেন।
প্রশ্ন ফাঁস ও অসদুপায় অবলম্বন করে একজন অমেধাবীও যদি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশ করে ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে তার দাঁত ভাঙ্গা জবাব দেয়া হবে বলে জানিয়ে সাদ্দাম হোসাইন বলেন, ভর্তি পরীক্ষা মেধাভিত্তিক উৎসবের প্রতিযোগিতা। সে জন্য যেকোন ধরনের দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করতে হবে। কোন শিক্ষার্থী যদি জালিয়াতির আশ্রয় নেয় ছাত্রলীগ সেটা মেনে নিবে না।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন