ঢাকা, রোববার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩১ ভাদ্র ১৪২৬, ১৫ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

জাতীয় সংবাদ

কেরোসিনের আগুনে মারা গেলেন দুদক পরিচালকের স্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পরিচালক মোহাম্মদ ইউসুফের স্ত্রী তানিয়া ইশরাত (৪৩) অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা গেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এর আগে গত বুধবার রাতে উত্তরার ৬ নম্বর সেক্টরের বাসায় অগ্নিদগ্ধ হন তানিয়া। মানসিক ভারসাম্যহীনতার কারণে নিজের শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দিলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। দুদক ও হাসপাতাল সূত্র জানায়, দুদক পরিচালক মোহাম্মদ ইউসুফের স্ত্রী তানিয়া মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন। প্রায়ই মানসিক হতাশা থেকে বিভিন্নভাবে আত্মহত্যার চেষ্টা করতেন। হারপিক ও বিষ খেয়েছেন দু’বার। কিন্তু প্রতিবারই ভাগ্যক্রমে বেঁচে গেছেন তিনি। গত বুধবার রাতে রাজধানীর উত্তরার বাসায় নিজের শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন তিনি। পরে তাকে উদ্ধার করে সিএমএইচে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল সকাল ১০টায় মারা যান।

ফায়র সার্ভিস ও পুলিশ জানায়, গত বুধবার দিবাগত রাত ৯টার দিকে উত্তরা-৬ নম্বর সেক্টরের ৪ নম্বর সড়কের ১ নম্বর বাড়িতে নিজের শরীরে আগুন দেন তানিয়া। এতে বাসার ভেতরে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। তবে ফায়ার সার্ভিস যাওয়ার আগে বাসার লোকের আগুন নিভিয়ে ফেলে। গতকাল বিকেলে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের মর্গে লাশের ময়নাতদন্ত শেষে বনানী কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।
মৃত তানিয়ার ভাতিজা মো. তানভির হোসেন বলেন, তার ফুফু দীর্ঘদিন ধরে মানসিক সমস্যায় আক্রান্ত। সব সময় একা একাকী থাকতেন। কারোর সঙ্গেই তেমন কথা বলতে চাইতেন না। এর আগেও তিনি দু’বার আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন। একবার হারপিক আরেকবার বিষ খেয়েছিলেন। গুলশানের মুক্তি নামের একটি মানসিক হাসপাতালে রেখে তাকে সাড়ে ৪ মাস চিকিৎসা করানো হয়। নিয়মিতই তার চিকিৎসা চলছিলো। তবে কোনো উন্নতি হয়নি। তানভীর আরও বলেন, বুধবার রাত ৮টার দিকে বাসায় সবার অগোচরে রুমের দরজা বন্ধ করে নিজের গায়ে নিজে কেরোসিন তেল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন তানিয়া। পরে তার চিৎকার শুনে পরিবারের অন্যরা দীর্ঘক্ষণ চেষ্টার পর দরজা ভেঙ্গে তাকে উদ্ধার করে সিএমএইচ হাসপাতালে নিয়ে যান। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল সকাল ১০টার দিকে তার মৃত্যু হয়। তিনি এক ছেলে ও এক মেয়ের জননী ছিলেন।
ঢামেকের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ডা. সোহেল মাহমুদ বলেন, নিহতের মাথা থেকে পা পর্যন্ত পুড়ে গেছে। লাশ থেকে ভিসেরা সংগ্রহ করে পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়েছে। সেখান থেকে রিপোর্ট আসলে পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন দেয়া হবে। তবে আগুনে পুড়ে তার মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথামিকভাবে নিশ্চিত হওয়া গেছে। পুলিশের উত্তরা বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার নাবিদ কামাল শৈবাল বলেন, প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি মানসিক সমস্যা থেকে নিজের শরীরে আগুন দেন তানিয়া। এ নিয়ে তানিয়ার বাবার বাড়ির ও ইউসুফের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ করা হয়নি।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (6)
Anower Hossain ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:৪৯ এএম says : 0
শান্তনা দেওয়ার সামর্থ্য আমার নেই । শয়তানের চেষ্টা বন্ধ করার জন্য আমাদেরকে আল্লাহ ও তার রাসুলের দিকে ফিরে যেতে হবে । ইন শা আল্লাহ্ আমরা সবাই সুস্থ থাকব ।
Total Reply(0)
Md Masum Billah ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:৫০ এএম says : 0
শান্তির অভাব
Total Reply(0)
প্রদীপ সাহা ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:৫০ এএম says : 0
তাহলে এবার পরিচালকের বিয়ের দাওয়াত খাওন যাইব....তবে বিয়েটা লন্ডনে এবং বৌভাতটা যেন উগান্ডায় হয়।
Total Reply(0)
Masum Khaled Chowduri ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:৫০ এএম says : 0
হায় হায় দুদকের বউ অগ্নি দগ্ধ পাপে বাপেরে ছাড়েনা
Total Reply(0)
Jakir Hossain ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:৫১ এএম says : 0
এটা বিশ্বাস করতে পারলাম না, এখানে রহস্য আছে,
Total Reply(0)
Kamruzaman Mia ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:৫১ এএম says : 0
অভাবের সংসার । কি আর করার ?
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন