ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬, ১৪ সফর ১৪৪১ হিজরী

ইসলামী বিশ্ব

কাশ্মীরে ‘কারফিউ’ না ওঠালে আলোচনা নয়

দুই দিনের সউদী সফরে ইমরান খান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

সন্ত্রাসে পাকিস্তানি মদদ বন্ধ না হলে যে দ্বিপাক্ষিক আলোচনার সম্ভাবনা নেই বলে বুধবার জানিয়েছিলেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। গতকাল বৃহস্পতিবার পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান জানালেন, কাশ্মীর থেকে ‘কারফিউ’ না তোলা হলে আলোচনার প্রশ্নই নেই।

অন্যদিকে নিউইয়র্কে জাতিসংঘের অধিবেশনে যোগ দিতে যাওয়ার সময়ে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিমানকে তাদের আকাশপথ ব্যবহার করতে দেয়া হবে না বলে গতকাল জানিয়ে দিয়েছে পাকিস্তান। ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রাভিশ কুমারের বক্তব্য, ‘এ নিয়ে দু’সপ্তাহের মধ্যে দু’বার ভিভিআইপি উড়ানকে নিজেদের আকাশপথে ঢুকতে না দেয়ার সিদ্ধান্ত নিল পাকিস্তান। কোনো স্বাভাবিক রাষ্ট্র এটা করে না।’

এই পরিস্থিতিতে ভারত-পাকিস্তানকে আলোচনার টেবিলে বসানোর জন্য আন্তর্জাতিক চাপ বাড়ছে। কিন্তু বুধবার জয়শঙ্কর স্পষ্ট জানান, সন্ত্রাস বন্ধ না হলে আলোচনার সম্ভাবনা নেই। সেইসঙ্গে তার দাবি, আজাদ কাশ্মীর ভারতেরই অংশ। তার আশা, কখনও ওই এলাকা ভারতের নিয়ন্ত্রণে আসবে।

গতকাল পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যমের প্রশ্নের জবাবে ইমরান বলেন, ‘কাশ্মীর থেকে কারফিউ তোলা না হলে আলোচনার প্রশ্নই নেই।’ সেই সঙ্গে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দায়িত্বজ্ঞানহীনের মতো মন্তব্য করেছেন।’

দুই দিনের সউদী সফরে ইমরান খান
এদিকে দুই দিনের সউদী আরব সফরে বৃহস্পতিবার ইসলামাবাদ ছেড়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। জাতিসংঘের ৭৪তম সাধারণ অধিবেশনকে সামনে রেখে তিনি এই সফরে গেছেন বলে দেশটির প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় জানিয়েছে। এ সময় অধিকৃত কাশ্মীরের অস্থিতিশীলতা নিয়ে তিনি আলোচনা করবেন। গত ৫ আগস্ট কাশ্মীরের সাংবিধানিক বিশেষ স্বায়ত্তশাসনের মর্যাদা কেড়ে নেয়ার ঘোষণা দেয় ভারতীয় হিন্দুত্ববাদী সরকার। এরপর থেকে উপত্যকাটিতে ভারতীয় সরকারের কঠোর বিধিনিষেধ ও যোগাযোগ অচলাবস্থা চলছে।

বিবৃতিতে বলা হয়, ইস্যুটি নিয়ে সউদী যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী। কাশ্মীর উপত্যকাটির পরিস্থিতি নিয়ে আন্তর্জাতিক মনোযোগ আকর্ষণের চেষ্টার অংশ হিসেবে তিনি সউদী সফরে গিয়েছেন। আগামী সপ্তাহে জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে দেয়া বক্তৃতায় কাশ্মীর প্রসঙ্গ নিয়ে আসবেন ইমরান খান।

সউদী ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুই যুবরাজের সঙ্গে ফোনালাপের ফলে দুই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা চলতি সপ্তাহে পাকিস্তান সফরে যান। এসময় তারা ইমরান খান ও দেশটির সেনাপ্রধানের সঙ্গে কাশ্মীর পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেন। সূত্র : ডন অনলাইন।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন