ঢাকা, সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৯, ০৫ কার্তিক ১৪২৬, ২১ সফর ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

সব সংগঠনেই কাউন্সিল

ছাত্রদলের নতুন সভাপতি খোকন সাধারণ সম্পাদক শ্যামল

ফারুক হোসাইন | প্রকাশের সময় : ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:০২ এএম

রুহুল কবির রিজভী-ইলিয়াস আলী ছিলেন কাউন্সিলের মাধ্যমে নির্বাচিত ছাত্রদলের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক। এরপর অতিক্রম হয়েছে দীর্ঘ ২৭ বছর। এরপরের প্রতিটি কমিটিই হয়েছে চুজ এন্ড পিক পদ্ধতিতে। তবে দীর্ঘ বিরতের পর আবারও কাউন্সিলে কাউন্সিলরদের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত হলো ছাত্রদলের নতুন কাÐারি। গত বুধবার রাতে সারাদেশের ৪৮১ জন কাউন্সিলর তাদের ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছেন ছাত্রদলের নতুন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। বিএনপির ভ্যানগার্ড খ্যাত ছাত্রসংগঠনটির সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ও বগুড়ার ছেলে ফজলুর রহমান খোকন এবং সাধারণ সম্পাদক একই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ও নরসিংদীর ইকবাল হোসেন শ্যামল।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে কার্যকর আন্দোলন গড়ে তুলতে ব্যর্থতা ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভূমিধ্বস পরাজয়ের পর দল পুনর্গঠনের কাজে হাত দেন দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। এরই অংশ হিসেবে প্রতিটি জেলা এবং অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনে আহŸায়ক কমিটি গঠনের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। আহŸায়ক কমিটিকে কাউন্সিল আয়োজনের জন্য নির্দিষ্ট সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে বিএনপিপন্থী চিকিৎসকদের সংগঠন ডক্টরস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব) এর আহŸায়ক কমিটি কাউন্সিলের মাধ্যমে নির্বাচিত নতুন নেতৃত্বের হাতে দায়িত্ব তুলে দিয়েছে। এরপরই অনুষ্ঠিত হলো ছাত্রদলের কাউন্সিল। কাউন্সিলররা অত্যন্ত স্বচ্ছ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করে নির্বাচিত করেছেন ছাত্র সংগঠনটির পরিবর্তী নেতৃত্ব।

বহু বছর পর ছাত্রদলের কাউন্সিল সুন্দর ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান এবং ছাত্রদলের সাংগঠনিক অভিভাবক তারেক রহমানসহ সংশ্লিষ্ট নেতাদের ভ‚মিকায় উজ্জীবিত তৃণম‚লের নেতাকর্মীরা। বহু নেতাকর্মী কাউন্সিলের মাধ্যমে কমিটি গঠন প্রক্রিয়াকে স্বাগত জানানোর পাশাপাশি আগামীতে কাউন্সিলের মাধ্যমে বিএনপি ও সব অঙ্গ সংগঠনের কমিটি গঠনের ধারা অব্যাহত রাখতে তারেক রহমানের প্রতি আহŸান জানান অনেক নেতা। সামনে যুবদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলসহ অন্য সংগঠনের কমিটি মেয়াদোত্তীর্ণ হলে কাউন্সিলের মাধ্যমেই নতুন কমিটি করা হবে বলে জানা গেছে।

বিএনপি সূত্রে জানা যায়, ড্যাব, বিশেষ করে ছাত্রদলের কাউন্সিলকে ঘিরে সারাদেশে ছাত্রদল, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, বিএনপিসহ সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের মধ্যে যে উৎসাহ, উদ্দীপনা দেখা দিয়েছে সেটিকে ইতিবাচক হিসেবে নিচ্ছে বিএনপির হাইকমান্ড। কেন্দ্র থেকে তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের মধ্যে সেতুবন্ধন তৈরির এই গণতান্ত্রিক চর্চা অন্য সংগঠনের নেতৃত্ব নির্বাচনের ক্ষেত্রেও কাজে লাগাতে চান ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। গণতান্ত্রিক পন্থায় সবার মতামত তথা কাউন্সিলের মাধ্যমেই নতুন কমিটি গঠনে জোর দিচ্ছেন তিনি।

সম্মেলনের মাধ্যমে সংগঠনে নতুন কমিটি গঠন ও কাউন্সিলকে গণতন্ত্র চর্চার অনন্য দৃষ্টান্ত মনে করছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় ও তৃণমূলের নেতাকর্মীরা। তাদের মতে- ড্যাব ও ছাত্রদলের কাউন্সিলে এতো সুশৃঙ্খল শান্তিপূর্ণ নির্বাচন কোনো রাজনৈতিক সংগঠনের জন্য এখন ভাবাও কঠিন। বিন্দুমাত্র হট্টগোলও হয়নি। এটাই তো গণতন্ত্র। আগামীতে অন্যান্য সংগঠনের নতুন কমিটি গঠনের ক্ষেত্রে কাউন্সিলই হতে পারে মডেল বা অনুকরণীয়।

গত ১৪ সেপ্টেম্বর ছাত্রদলের কাউন্সিলের দিন নির্ধারণ করে সার্বিক প্রস্তুতি শেষ হয়। কিন্তু ১২ সেপ্টেম্বর আকস্মিকভাবে ছাত্রদলের বিলুপ্ত কমিটির নেতা আমান উল্লাহ আমানের আবেদনের প্রেক্ষিতে অন্তর্বর্তীকালীন স্থগিতাদেশ দেন আদালত। পাশাপাশি ১০ নেতাকে শোকজ নোটিশ দিলে নির্ধারিত দিনে কাউন্সিল বন্ধ হয়ে যায়। সরকারের হস্তক্ষেপে আদালত এই স্থগিতাদেশ দিয়েছে অভিযোগের পর বিএনপি নেতারা বলেছিলেন, আইনিভাবে মোকাবিলা করেই ছাত্রদলের কাউন্সিল করবেন তারা।

আইনজীবীদের মতামতের প্রেক্ষিতে গত বুধবার বিকেলে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে প্রার্থী ও কাউন্সিলরদের উপস্থিত থাকার নির্দেশ দেন ছাত্রদলের সাংগঠনিক অভিভাবক তারেক রহমান। স্কাইপে আলোচনা শেষে তার নির্দেশে বুধবার রাত পৌনে নয়টায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের বাড়িতে ছাত্রদলের ষষ্ঠ কেন্দ্রীয় কাউন্সিলের ভোটগ্রহণ হয়।

কাউন্সিলে ৯ জন সভাপতি প্রার্থী এবং ১৯ জন সাধারণ সম্পাদক প্রার্থীর মধ্য থেকে দুই পদে দুইজনকে বেছে নিতে ভোট দেন ছাত্রদলের ১১৭টি সাংগঠনিক শাখার ৫৩৪ জন কাউন্সিলরের মধ্যে ৪৮১ জন। বিরতি ছাড়াই রাত পৌনে ১টায় ভোটগ্রহণ শেষ হয়। এরপর গণনা শেষে তারেক রহমানের পক্ষে গতকাল ভোরে ফল ঘোষণা করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস। ছাত্রদলের সাবেক নেতা ও প্রার্থীরা এসময় উপস্থিত ছিলেন। হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে সভাপতি হয়েছেন ফজলুর রহমান খোকন। তিনি পেয়েছেন ১৮৬ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবণের ভোট ১৭৮। খোকন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র। তিনি সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের আবাসিক ছাত্র। ছাত্রদলের গত কমিটিতে গণশিক্ষা বিষয়ক সহ সম্পাদক ছিলেন তিনি।

সাধারণ সম্পাদক পদে ইকবাল হোসেন শ্যামল পেয়েছেন ১৩৯ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী জাকিরুল ইসলাম জাকিরের ভোট ৭৮। শ্যামল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য বিজ্ঞান ও গ্রন্থাগার ব্যবস্থাপনা বিভাগের ছাত্র। তিনি ঢাবির বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের ছাত্র এবং ঢাবি শাখা ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। নবনির্বাচিত এই দুই নেতা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, তারা খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলন সফলে সর্বাত্মক চেষ্টা চালাবেন।

জানা যায়, ১৯৯২ সালের পর ছাত্রদলের শীর্ষনেতা নির্বাচনে এই প্রথম ভোট হল। ওই কাউন্সিলে রুহুল কবির রিজভী সভাপতি এবং এম ইলিয়াস আলী সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছিলেন।

নেতাকর্মীদের মূল্যায়ণ: ছাত্রদলের কাউন্সিলকে স্বাগত জানিয়েছেন বহু নেতাকর্মী। তারা কাউন্সিলের মাধ্যমে নেতা নির্বাচনে তারেক রহমানের সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানান। ছাত্রদলের সাবেক সহসভাপতি আহসান উদ্দিন খান শিপন ফেসবুকে লিখেছেন- কাউন্সিলে কেউ হারেনি। জিতেছে তারেক রহমান। জিতেছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল। গণতন্ত্র চর্চায় এক যুগান্তকারী ইতিহাসের জন্ম দিয়েছে ছাত্রদলের কাউন্সিল। ড্যাবের নেতা মহিউদ্দিন ভুইয়া মাসুম লিখেছেন- সুষ্ঠু কাউন্সিল হওয়ায় ছাত্রদলের একজন সাবেক কর্মী হিসেবে গর্বিত। ছাত্রদলের সাবেক সহ সাধারণ সম্পাদক রাজিব আহসান চৌধুরী পাপ্পু বলেন, ছাত্রদলের নেতৃত্ব নির্বাচনে এবার এক নতুন দৃষ্টান্ত স্থাপিত হল। ভোটাভুটির মাধ্যমে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়াটা ভাল দিক। ছাত্রদলের কাউন্সিলে বাছাই পর্বে অনুত্তীর্ণ সভাপতি পদপ্রার্থী আসাদুল আলম টিটু বলেন, কে জিতল, কে হারলো- তা মূখ্য বিষয় নয়। জিতে গেল প্রাণপ্রিয় সংগঠন জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল এবং প্রিয় নেতা আগামীদিনের রাষ্ট্রনায়ক তারেক রহমান। ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসান বলেন, গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় ছাত্রদলের নেতৃত্ব নির্বাচন সংগঠনটিকে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাবে। সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃত্ব নির্বাচনে ছাত্র রাজনীতিতে দৃষ্টান্ত হিসেবে থাকবে বলেও মনে করেন তিনি।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী জানান, দল পুনর্গঠনের অংশ হিসেবে বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নতুন কমিটি হচ্ছে। এই প্রক্রিয়া চলমান। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান নিজেই খোঁজ খবর নিয়ে কমিটি গঠন করছেন। কাউন্সিলের মাধ্যমে নতুন নেতা নির্বাচন অবশ্যই অনুসরণীয় এবং উল্লেখ্যযোগ্য। এভাবে অন্যান্য কমিটিও হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

ঢাকা দক্ষিণ বিএনপির অভিনন্দন: এদিকে ছাত্রদলের নবনির্বাচিত সভাপতি ফজলুল রহমান খোকন ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামলকে অভিনন্দন জানিয়েছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি হাবিব উন-নবী খান সোহেল ও সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার। তারা নবনির্বাচিত নেতৃদ্বয়কে ভবিষ্যতে ছাত্রদলকে সুসংগঠিত ও শক্তিশালী করতে অগ্রণী ভ‚মিকা পালন করার পরামর্শ দেন।###

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (8)
Libon Chowdhury Bogra ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০০ এএম says : 0
অভিনন্দন
Total Reply(0)
MD Abul Kalam Azad ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০১ এএম says : 0
* নব নির্বাচিত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে আন্তরিক অভিনন্দন, শুভেচ্ছা ও সংগ্রামী সালাম রইলো-" আপনাদের গতিশীল নেতৃত্বে আগামী দিনের পথচলা হোক জিয়ার আদলে দেশ গড়া " ! সফলভাবে কাউন্সিল শেষ করার জন্য সংলিষ্ট সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ !!
Total Reply(0)
Fuad Hasan ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০১ এএম says : 0
শুভ কামনা। কিন্তু ওরা কি এখনো ছাত্র আছে...?
Total Reply(0)
SaZid Rahman RipOn ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০১ এএম says : 0
আমার প্রার্থী নির্বাচিত হয় নাই। তাতে কি? কাউন্সিলের মাধ্যমে যারা নির্বাচিত তাঁদের অভিনন্দন জানাই। আর ধন্যবাদ জানাই জনাব তারেক রহমানকে, ও তার সঠিক সিদ্ধান্তকে।
Total Reply(0)
Kowser Azad Prince ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০২ এএম says : 0
এরা কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র? অছাত্ররা যদি ছাত্রদের নেতৃত্বে আসে তবে এটা ছাত্রদের জন্য অকল্যান কর হবে।
Total Reply(0)
Sultan Ahmed Congratulations ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০২ এএম says : 0
but এদেরকে দেখে মনে হচ্ছে না এরা ছাত্র ! যাই হোক দলের হাই কমান্ডের ইশারা থাকতে পারে ! আমরা দেখবো এরা এখন কেমন নেতৃত্ব দেয় ! আশা রাখি ছাত্রলীগের মতো রেকর্ড এদের হবে না !
Total Reply(0)
Bappa Kundu ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০২ এএম says : 1
আচ্ছা আমার একটা কথা হলো যে, বিএনপি কি রাতে ছাড়া কোনো কাজ পারে না।। দিনের বেলা কি করে তারা?? দলের মিটিং হয় রাত ১০টার পরে আবার দলের কমিটি দিবে সেইটাও রাতে।। সমস্যা কি??
Total Reply(0)
বানি ইসরাইল বানি ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০৩ এএম says : 0
অভিনন্দন সরকার সব অকৌশল দিয়েও ছাত্র দলের কাউন্সিল ঠেকাতে পারলোনা আ,লিগ তারেক রহমানের কাছে পরাজিত হলো
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন