ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬, ১৪ সফর ১৪৪১ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

ভাঙন রোধে তিস্তাপাড়ে নামাজ ও মোনাজাত

সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে নদী ভাঙন রোধে বিশেষ মোনাজাত ও নামাজ আদায় করেছে এলাকাবাসী। এলাকাবাসীর উদ্যোগে গত বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার শ্রীপুর ইউনিয়নের পুটিমারী গ্রামে তিস্তা নদীর পাড়ে ভাঙন রোধে ৬০ জন হাজীর অংশগ্রহণে নামাজ আদায় ও বিশেষ মোনাজাত করা হয়। 

মোনাজাত পরিচালনা করেন মাওলানা মো. সমস উদ্দিন। এতে শ্রীপুর ও কাপাসিয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের সহস্রাধিক মানুষ অংশ নেন।
জানা যায়, প্রতি বছর পানির তীব্রতা বাড়লে নদী ভাঙন শুরু হয়। এতে অসংখ্য লোক বাড়ি-ঘর জমা-জমি হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে পড়ে। খুব সম্ভ্রান্ত পরিবারের লোকজনও তখন পেট বাচার তাগিদে রিকশা ভ্যানসহ বিভিন্ন পেশায় জড়িয়ে পরেন। এভাবেই তিস্তা নদীর পেটে প্রতি বছর অসংখ্য জমাজমি হারিয়ে যায়।
নদী ভাঙন রোধে মোনাজাত ও নামাজ আদয়ের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গাইবান্ধা পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপসহকারী প্রকৌশলী মজিবর রহমান উপস্থিত হয়ে এলাকাবাসীর উদ্দেশ্যে বলেন, সুুুন্দরগঞ্জের নদী ভাঙন রোধে পরিকল্পনা কমিশনে ৪০৬ কোটি টাকা ব্যায়ে প্রকল্প দাখিল করা হয়েছে। কোনো ধরনের সংশোধনী না থাকলে প্রকল্পটি একনেক সভায় উপস্থাপন হবে। মোনাজাতে উপস্থিত প্রবীণ শিক্ষক দেলোয়ার হোসেন বলেন, গত দুই মাস ধরে অব্যাহত নদী ভাঙনে সহস্রাধিক পরিবারের ভিটে-মাটি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। ভাঙনের মুখে আরও কয়েকটি গ্রাম।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন