ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬, ১৪ সফর ১৪৪১ হিজরী

ব্যবসা বাণিজ্য

বেক্সিমকো গ্রুপের অবদান টিআইবি গুরুত্ব দিয়ে মূল্যায়ন করে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৬:০৭ পিএম

ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) মনে করে ব্যক্তিমালিকানাধীন খাতে শীর্ষ প্রতিষ্ঠান হিসেবে দেশের অর্থনীতিতে বেক্সিমকো গ্রুপের অবদান অনস্বীকার্য। বিশেষ করে স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক বাজারে সক্রিয় ও বহুমুখী ভূমিকা যৌক্তিক কারণে সর্বজনবিদিত। শুধু তাই নয়, জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশলের অন্যতম ক্ষেত্র ব্যক্তিমালিকানাধীন খাতের নেতৃস্থানীয় প্রতিষ্ঠান হিসেবে বেক্সিমকোর ব্যবসায়িক মডেল ও চর্চা এ খাতে শুদ্ধাচার প্রতিষ্ঠায় ছোট-বড় সকল প্রতিষ্ঠানের জন্য অনুকরণীয় হবে।

গত সোমবার (১৬ সেপ্টেম্বর) স্বাক্ষরিত টিআইবি’র বোর্ড অব ট্রাস্ট্রিজের চেয়ারপারসন সুলতানা কামাল বেক্সিমকো চেয়ারম্যান সোহেল এফ রহমানকে লেখা চিঠিতে এই মনোভাব ব্যক্ত করেছেন।

বেক্সিমকো গ্রæপের ঋণ চাহিদা ও পুনঃতফসিলিকরণের প্রেক্ষিতে টিআইবি বাংলাদেশ ব্যাংকের সমালোচনা করে সংবাদমাধ্যমে বিজ্ঞপ্তি দেয়। এরই প্রেক্ষিতে বেক্সিমকো গ্রæপের চেয়ারম্যান টিআইবি চেয়ারপারসনকে পত্র দিয়েছিলেন।

সুলতানা কামাল তার ফিরতি পত্রে বলেছেন, বেক্সিমকো গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান সালমান এফ রহমান সম্পর্কে নেতিবাচক মন্তব্য করা টিআইবির উদ্দেশ্য ছিল না। টিআইবি দেশের সার্বিক ব্যাংকিং খাতের সংকটাপন্ন অবস্থায় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রত্যাশিত ভূমিকার ঘাটতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিল। জনস্বার্থে নিয়োজিত অন্য সকল প্রতিষ্ঠানের মতো বাংলাদেশ ব্যাংক যখন তার নিয়ন্ত্রকের ভূমিকা যথাযথভাবে পালনে ব্যর্থ হওয়ার মুখোমুখি হয় তখন তার সমালোচনা করা এবং কার্যকর পদক্ষেপের দাবি জানানোকে টিআইবি নৈতিক কর্তব্য মনে করে বলেও সুলতানা কামাল পত্রে উল্লেখ করেন।

টিআইবি’র চিঠিতে এটাও বলা হয়, কারো প্রতি ইঙ্গিত করা সংস্থাটির উদ্দেশ্য নয়। সংস্থাটি এটিও বিশ্বাস করে, দেশের অর্থনীতির অন্য যে কোনো প্রথিতযশা প্রতিষ্ঠানের মতো বেক্সিমকো গ্রæপের অবদান ইতিবাচক। আমরা সবসময় যথাযথভাবে এর গুরুত্ব দিয়ে থাকি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন