ঢাকা, সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৯, ০৫ কার্তিক ১৪২৬, ২১ সফর ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

বাসা ছেড়ে দেয়ায় গৃহবধূকে ধর্ষণ

সাতক্ষীরায় ঘরে ঢুকে স্কুলছাত্রীসহ শিকার আরো ৭ : আটক ১০

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

চট্টগ্রামে বাসা ছেড়ে দেয়ায় এক গৃহবধূকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। সাতক্ষীরায় ঘরে ঢুকে ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়েছে। খাগড়াছড়িতে বাড়িতে একা পেয়ে গৃহবধূকে ধর্ষণের খবর পাওয়া গেছে। নেত্রকোনায় বেড়াতে এসে গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন গৃহবধূ। এছাড়া আশুলিয়ায় গার্মেন্টসে চাকরি দেয়ার কথা বলে তরুণী, বরগুনায় প্যান্ট সেলাইয়ের কথা বলে দর্জির মেয়ে, সোনারগাঁয়ে ৭ম শ্রেণির ছাত্রী, কাপাসিয়ায় পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী ও ওসমানীনগরে কিশোরীকে পাশবিক নির্যাতনের অভিযোগে মামলা দায়ের হয়েছে। এদিকে, দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে গৃহবধূকে গণধর্ষণ মামলায় তিন আসামিসহ বিভিন্ন স্থানে ১০ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

চট্টগ্রাম : চট্টগ্রাম নগরীতে গভীর রাতে বাসায় ঢুকে স্বামীকে পিটিয়ে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ভাড়া বাসার মালিকের ছেলে ধর্ষণ করেছে বলে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছেন ওই গৃহবধূ। ধর্ষণে সহযোগিতার অভিযোগে একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। নগরীর ডবলমুরিং থানার ঝর্ণাপাড়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। গত শুক্রবার অভিযোগ পেয়ে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এ ঘটনায় গ্রেফতারকৃত আনোয়ার হোসেন (৩১) ঝর্ণাপাড়া এলাকার হাবিব ড্রাইভারের বাড়ির মোহাম্মদ আলীর ছেলে। ধর্ষণে অভিযুক্ত এস এম তৌহিদুজ্জামান মিল্কি (৩২) ওই এলাকার একটি ভবনের মালিক মো. ওয়াহিদুজ্জামানের ছেলে। ঘটনার পর মিল্কি পালিয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন ডবলমুরিং থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জহির হোসেন।

গৃহবধূর অভিযোগ, বৃহস্পতিবার রাত জেগে তারা বাসা ছাড়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। রাত ৩টার দিকে মিল্কি ও আনোয়ারা বাসায় ঢুকে তার স্বামীকে হঠাৎ মারধর শুরু করে। একপর্যায়ে দুজন স্বামী-স্ত্রী নয় দাবি করে মিল্কি তাদের কাবিননামা দেখাতে বলে। গৃহবধূ আরেক কক্ষে কাবিননামা আনার জন্য গেলে মিল্কী তার পেছনে পেছনে ওই কক্ষে প্রবেশ করে তাকে জোরপ‚র্বক ধর্ষণ করে।

নেত্রকোনা : আত্মীয় বাড়ীতে বেড়াতে এসে এক গৃহবধূ গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে নেত্রকোনা সদর উপজেলার মদনপুর ইউনিয়নের পশ্চিম মদনপুর গ্রামে। স্থানীয় এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ময়মনসিংহ জেলার গৌরীপুর উপজেলার কান্দা গ্রামের জনৈক ব্যক্তি তার স্ত্রীকে নিয়ে গত বৃহস্পতিবার নেত্রকোনা সদর উপজেলার পশ্চিম মদনপুর গ্রামের জিলন আক্তারের বাড়িতে বেড়াতে আসে। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ওই গ্রামের ৮-১০জন যুবক জিলন আক্তারের বাড়িতে গিয়ে বেড়াতে আসা স্বামীকে মারধর করে গৃহবধূকে গ্রামের একটি জঙ্গলে নিয়ে যায়। সেখানে যুবকরা গৃহবধূকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। শুক্রবার সকালে আত্মীয় স্বজনরা জঙ্গল থেকে আহত গৃহবধূকে উদ্ধার করে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

নেত্রকোনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মুহাম্মদ ফখরুজ্জামান জুয়েল সাংবাদিকদের জানান, ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে পুলিশ পশ্চিম মদনপুর গ্রাম থেকে সালমান, আকাশ ও রফিকুল ইসলামকে আটক করেছে। এ ব্যাপারে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

খাগড়াছড়ি : খাগড়াছড়ির মহালছড়িতে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় রতন ত্রিপুরা (২৫) নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। গতকাল সকালে মহালছড়ির যৌথ কামার ত্রিপুরাপাড়া এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। আটক রতন ত্রিপুরা মহালছড়ির যৌথ খামার ত্রিপুরাপাড়ার সুখেন্দু ত্রিপুরার ছেলে। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি দুই কন্যা সন্তানের জনক।

সাতক্ষীরা : সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার সাতবসু গ্রামে ঘরে ঢুকে ষষ্ঠ শ্রেণির স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় দায়ের করা মামলার আসামি মুসা কারিগরকে (২৬) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঢাকার সাভার এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার মুসা কারিগর কালিগঞ্জের ভাড়াশিমলা ইউনিয়নের হোসেন কারিগরের ছেলে।

এ বিষয়ে কালিগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেলোয়ার হোসেন বলেন, গত ১৩ সেপ্টেম্বর দুপুরে মুসা কারিগর সাতবসু গ্রামের সাইফুল ইসলামের বাড়িতে যায়। বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে ঘরে ঢুকে ওই স্কুলছাত্রীকে মুখে গামছা পেঁচিয়ে ধর্ষণ করে। পরদিন ১৪ সেপ্টেম্বর কালিগঞ্জ থানায় ওই স্কুলছাত্রীর চাচা শরিফুল ইসলাম বাদী হয়ে মামলা করেন। মামলার পর মুসা কারিগর ঢাকায় পালিয়ে যান।

আশুলিয়া (ঢাকা) : আশুলিয়ায় গার্মেন্টসে চাকরি নিতে এসে এক তরুণী (১৮) ধর্ষিত হয়েছে। গত বুধবার বিকেল ৩টায় আশুলিয়ার জামগড়া হিয়ন গার্মেন্টস সংলগ্ন আইজ উদ্দিনের বাড়ির ভাড়াটিয়া মোস্তাফিজুরের কক্ষে এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় গতকাল শুক্রবার রাতে আশুলিয়া থানায় লম্পট ধর্ষক মোল্লা তোহা (২৪) ও তার সহযোগী মোস্তাফিজুর সরকারের বিরুদ্ধে ধর্ষিতা ওই তরুণী বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। তবে ধর্ষক ও তার সহযোগীকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

অভিযুক্ত ধর্ষক মোল্লা তোহা বাগেরহাট জেলার ফকিরহাট থানার বালিয়াডাঙ্গা এলাকার গোলাম কিবরিয়ার ছেলে। সে আশুলিয়ার জামগড়া হিয়ন গার্মেন্টস সংলগ্ন শরীফের বাড়িতে ভাড়া থেকে মুদি ব্যবসা করে। অন্যদিকে ধর্ষক মোল্লা তোহার সহযোগী মোস্তাফিজুর সরকার ঠাকুরগাঁও জেলার পীরগঞ্জ কেষ্টপুর এলাকার মৃত খাদিমুল ইসলামের ছেলে। সে আশুলিয়ার জামগড়া এলাকায় আইজ উদ্দিনের বাড়িতে ভাড়া থেকে মুদি ব্যবসা পরিচালনা করেন।

হিলি (দিনাজপুর) : দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে গৃহবধূকে (১৯) পালাক্রমে ধর্ষণ করেছে ৩ যুবক। এ ঘটনায় ধর্ষিতা বাদী হয়ে ওই ৩ যুবকের বিরুদ্ধে ঘোড়াঘাট থানায় মামলা করেন। তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে ওই ৩ ধর্ষককে গ্রেফতার করে পুলিশ। ঘোড়াঘাট থানার এজাহার স‚ত্রে জানা যায়, ঘোড়াঘাট পৌরসভার ঘাটপাড়া এলাকার গৃহবধূ (১৯) প্রায় সাড়ে তিন মাস প‚র্বে বিয়ে হয়। বসবাসের ঘর না থাকায় স্বামী তার নব বিবাহিতা স্ত্রীকে নিয়ে পৌরসভার লালমাটি এলাকায় রফিকুল ইসলামের বাড়ি ভাড়া করে নিয়ে বসবাস করছিলেন। বৃহস্পতিবার বেলা দেড়টার দিকে ঘর লেপার জন্য বাড়ির পাশের একটি লিচু বাগানে গোবর আনতে যান তিনি। সেখানে তাকে একা পেয়ে লালমাটি গ্রামের রফিকুল ইসলাম পেপুল এর পুত্র রাসেল (২৪), একই গ্রামের বাবলুর পুত্র সজীব (২৪) ও নুরুল ইসলাম ফকিরের পুত্র ইসমাইল (২৮) গৃহবধূকে লিচু বাগান পাহাড়া দেয়ার ঘরে নিয়ে গিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

বরগুনা : বরগুনা সদর উপজেলার ১০নং নলটোনা ইউনিয়নের আজগর কাঠি গ্রামে ষষ্ঠ শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযুক্ত ধর্ষক নলটোনা ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান মো. হুমায়ুন কবীরের ভাগনে বলে জানা গেছে। তার নাম আল আমিন (২১)।
আজগরকাঠি গ্রামের ওয়ারেচ হাওলাদারের ছেলে তিনি। নির্যাতনের শিকার ওই শিক্ষার্থী স্থানীয় একটি মাদরাসার ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী। বর্তমানে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে মেয়েটি।

নির্যাতনের শিকার ওই শিক্ষার্থী জানায়, তার মায়ের একটি কাপড় সেলাইয়ের দোকান রয়েছে। গত শুক্রবার বেলা ২টার দিকে তার মা দোকানে ছিল না। এ সময় আল আমিন একটি প্যান্ট সেলাইয়ের কথা বলে তাদের ঘরে ঢুকে তাকে ধর্ষণ করে। এ সময় ভুক্তভোগী ওই শিক্ষার্থী ডাক চিৎকার করলে ঘটনাস্থলে তার মা ছুটে এলে তাকে ধাক্কা দিয়ে বেরিয়ে যায় আল আমিন।

সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) : নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে ৭ম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এঘটনায় ধর্ষক শাহজাহান (৪৫)কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় ধর্ষিতার মা সাবিনুর বেগম বাদী হয়ে গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় সোনারগাঁ থানায় একটি ধর্ষনের মামলা দায়ের করেন।

সোনারগাঁ থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক আপন কুমার মজুমদার জানান, গত ১৪ সেপ্টেম্বর বিকেলে স্কুল শেষে বাড়ী যাওয়ার পথে ঐ শিক্ষার্থীকে পথিমধ্যে একা পেয়ে স্থানীয় রোকনউদ্দিনের পরিত্যক্ত বাড়ীতে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরে ধর্ষিতা বাড়ীতে গিয়ে তার মাকে ঘটনাটি জানালে এ ঘটনায় ধর্ষিতার মা স্থানীয় মাতব্বরদের কাছে জানালে তারা বিচারের আশ্বাস দিয়ে গড়িমসি করতে থাকে। অবশেষে ধর্ষিতার মা বিচারকদের কাছ থেকে হতাশ হয়ে গতকাল সন্ধ্যায় থানায় হাজির হয়ে সোনারগাঁ থানায় একটি মামলা দায়ের করলে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ধর্ষক শাহজাহানকে গ্রেফতার করে।

বালাগঞ্জ (সিলেট) : সিলেটের ওসমানীনগরে হারন মিয়া (৩০) বাবুর্চীর পাশবিকতার শিকার হয়েছে এক কিশোরী (১৭)। গত শুক্রবার মধ্যরাতে উপজেলার দয়ামীর ইউপির খালপাড় গ্রামের আঙ্গুর মিয়ার কলোনিতে এ ঘটনাটি ঘটেছে। এ ঘটনায় কিশোরীর মা বাদি হয়ে হারুন মিয়াকে আসামী করে গত শুক্রবার মধ্যরাতে ওসমানীনগর থানায় ধর্ষণ (মামলা নং-২০) দায়ের করেন। মামলার পর পর শুক্রবার রাতেই খালপাড় এলাকায় অভিযান চালিয়ে পুলিশ ধর্ষক বাবুর্চী হারুনকে গ্রেফতার করেছে। হারুন উপজেলার দয়ামীর ইউপির খালপাড় গ্রামের মৃত ধনাই মিয়ার ছেলে। এদিকে ভিকটিমকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টার (ওসিসিতে) ভর্তি করা হয়েছে।

কাপাসিয়া (গাজীপুর) : গাজীপুরের কাপাসিয়ায় পিতা-মাতা হারা পঞ্চম শ্রেণির এক এতিম শিক্ষার্থী কুদ্দুছ খান কুদু (৫০) নামক এক লম্পটের লালসার শিকার হয়েছে। থানা পুলিশ লম্পট ধর্ষককে গ্রেফতার করে গতকাল সকালে গাজীপুর আদালতে পাঠিয়েছে।

থানার এসআই নুরুল ইসলাম জানান, শিশু ধষর্ণের অভিযোগ পেয়ে তাৎক্ষনিকভাবে ধর্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং গতকাল শনিবার সকালে ধর্ষিতাকে ডাক্তারী পরিক্ষার জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (7)
Anwarul Kabir Aziz ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০৮ এএম says : 0
সমাজটা দিন দিন ধ্বংসের দিকে যাচ্ছে
Total Reply(0)
দাড়িঁ ওয়ালা ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০৮ এএম says : 0
ধিক্কার জানাই আমি সেই সব মানুষ নামের পশুদের
Total Reply(0)
Azmir Hossain Akas ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০৮ এএম says : 0
ওদের প্রকাশ্যে শাস্তি চাই
Total Reply(0)
Md Tajul Islam ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০৮ এএম says : 0
ধর্ষণ এর সাজা ফাঁশি চাই।।।
Total Reply(0)
Sohidul Islam ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০৯ এএম says : 0
এাদের কে পথর মেরে হত্যা করা উচিৎ
Total Reply(0)
Md Raju Hosain Shanto ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০৯ এএম says : 0
সরকারের প্রতি আকুল আবেদন,,, ধর্ষনের ব্যাপারে কঠোর আইন করুন। ধর্ষনের শাস্তি একমাএ। মৃত্যুদন্ড/ফাসি/ক্রসফায়ার। ##দয়াকরে কার্যকর করুন।
Total Reply(0)
Mahfujur Rahman Shakil ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০৯ এএম says : 0
এলাকার সবাই এক হয়ে তাদের বের করে সবার সামনে ফাঁসি দেয়া হউক।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন