ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬, ১৪ সফর ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

যাত্রী নিয়ে বরের বাড়িতে কনে

মেহেরপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:৩৬ পিএম

সাধারণত যাত্রী নিয়ে কনের বাড়িতে যান বর। এই প্রথাও ভেঙে দিলেন মেহেরপুরের ছেলে আর চুয়াডাঙ্গার এক তরুণী। বর পক্ষের লোকজন অনাড়ম্বর পরিবেশে ঢাক-ঢোল পিটিয়ে বর্ণাঢ্য আয়োজন করেছেন কনে যাত্রীর জন্য । কনে যাত্রীকে বরণ করতে অপেক্ষমান বরপক্ষ। গাড়িতে করে লাল টুকটুকে বেনারশী আর বাহারি সাজে বধূ সেজে বরের বাড়িতে গিয়ে বিয়ে করলেন তরুণী।
এই ব্যতিক্রমি ও আলোচিত বিয়ের ঘটনাটি ঘটে শনিবার মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার চৌগাছা গ্রামে। সেখানে কনে পক্ষের শতাধিক যাত্রীর সঙ্গে বরপক্ষের তিন শতাধিক আমন্ত্রিত অতিথি ছিলো। এই বিয়ে দেখতে হাজির হয়েছিলেন সহস্রাধিক উৎসুক নারী-পুরুষ।

পাত্রী চুয়াডাঙ্গার কামারুজ্জামানের মেয়ে খাদিজা আক্তার খুশি। তিনি বাড়ির ছোট মেয়ে। কুষ্টিয়া সরকারি কলেজে অর্থনীতি বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী। সাজানো গাড়ি নিয়ে প্রথা ভেঙে অভিভাবকদের সম্মতিতে বরের বাড়িতে বিয়ে করতে যান খুশি। একই গাড়িতে ছিলেন কনের বান্ধবী ও বোনেরা। আর কনে বসে চিলেন গাড়ির সামনে। গাড়িতে বাজানো হচ্ছিলো বিয়ের গান। শুধু বর-কনে নয়; বিয়ের এমন সিদ্ধান্তে সম্মতি ছিল উভয় পরিবারের। এ বিষয়ে কনে খুশি বলেন, সনাতন পদ্ধতির বিলুপ্তি আর নারীদের সমতা প্রতিষ্ঠায় আমার ইচ্ছাতেই পরিবারের এমন সিদ্ধান্ত। যৌতুক প্রথা বিলুপ্ত আর নারী অধিকার প্রতিষ্ঠিত করতেই এমন ব্যতিক্রম সিন্ধান্ত। তাছাড়া ইচ্ছে ছিলো বিয়ে করতে হলে ভিন্নধর্মী বিয়ে করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করবেন তিনি।

যৌতুকহীন এই বিয়ে প্রসঙ্গ কনের পিতা কামরুজ্জামান বলেন, ছেলে-মেয়েদের সমঅধিকার বাস্তবায়নেই আমরা অভিভাবকেরা এমন সিদ্ধান্ত নিই। সিদ্ধান্ত অনুসারেই মেয়েকে ছেলের বাড়িতে এনে বিয়ের আয়োজন করি।

এই বিয়ের পাত্র চৌগাছা গ্রামের আবদুল মাবুদের ছেলে তরিকুল ইসলাম জয়। পাত্রের বাবা আবদুল মাবুদও অভিন্নসুরে জানান, ব্যতিক্রম সবসমই চমকের। প্রথা ভাঙ্গতেই এমন আয়োজন। আগামীতে যাতে মেয়েরাও ছেলেদের বাড়ি এসে বিয়ে করতে উৎসাহী হয় তার জন্য এমন বিয়ের একটি ইতিহাস গড়তে চেয়েছিলাম। সফল হতে পেরে ভালো লাগছে।

এই বিয়েতে উপস্থিত ছিলেন মেহেরপুর-২ গাংনী আসনের সাবেক এমপি মকবুল হোসেন, কথাসাহিত্যিক রফিকুর রশীদ, বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির পলিট ব্যুরোর সদস্য নুর আহমেদ বকুল প্রমুখ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (9)
এস আই আজাদ ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ২:৪২ পিএম says : 0
ঘঠনাটি খুবই চমকপ্রদ এবং ব্যতিক্রম বটে! সেই সাথে সাহসী ওঁ ।নারী মুক্তির এই যে প্রয়াস,তা যদি একটি ঘঠনায় সীমাবদ্ধ না রেখে ক্রিড়াশীল থাকে সত্যিই ওই জুটিদ্বয় প্রশংসার দাবী রাখে।যদি ঘঠনা্টি আর একটু সাহসী ভুমিকায় অবতীর্ন হতো( অর্থাৎ বরকে বিয়ে করে নিজের বাড়িতে নিয়ে আসা),তাহলে হয়তো নারী মুক্তি/স্বাধীনতা কাংখিত লক্ষের ্দ্বারপ্রান্তে উঁকি দিতে অনে্কটাই এগিয়ে যেত।
Total Reply(0)
মোঃআশ্রাফুর রহমান ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৪:৩৯ পিএম says : 0
এটা হচ্চে ধর্ষন বাড়ার এবং নারীদের বেপর্দা ও বেহায়আপনার একটি দৃষ্টান্ত।
Total Reply(1)
Yourchoice51 ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ২:৩৪ এএম says : 0
যৌতুকবিহীন বিয়ে প্রশংসনীয়; কিন্তু প্রগতির নামে বেহায়াপনা মোটেই সমর্থন করা যায় না।
মুরাদুল ইসলাম ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:৪৩ এএম says : 0
আরও কিছু জানতে ইচ্ছে করছে যেমনঃ- সংসার সাজবে কার বাড়ীতে, রান্নাঘর কে সামলাবে, বাজার কে করবে, ফিজিক্যাল সম্পর্ক কে কাকে করবে, সন্তান ধারন কে করবে? হায়রে বোকা মানুষ! চাইলেই পুরুষ হওয়া যায়?
Total Reply(0)
আয়নুল হক ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৭:০৭ এএম says : 0
নারীকে তার বাড়িতে গিয়ে আনার অর্থ তার মূল্যায়ন করা। বরে বাড়িতে গেলো!অর্থাৎ বরকে নারী মূল্যায়ন করল। বেকুবের দল?
Total Reply(0)
jack ali ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১১:৪৮ এএম says : 0
These people are the real culprit.they mislead ummah of Prophet [SAW]..they claim themselves they are muslim but they are far away from Qur'an the Sunnah of our Prophet [saw]..My Allah [SWT] guide them in straight Path InshaaAllah...
Total Reply(0)
কাজী তাওফিকুল ইসলাম হাবিবী ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০১ এএম says : 0
এটা বেহায়া নারী ছাড়া এর রকম কাজ করতে পারে না ।
Total Reply(0)
কাজী তাওফিকুল ইসলাম হাবিবী ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০২ এএম says : 0
এটা বেহায়া নারী ছাড়া এর রকম কাজ করতে পারে না ।
Total Reply(0)
আব্দুর রহমান ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৬:৫৫ পিএম says : 0
এটা নারীর মর্যাদা হানিকর ঘটনা। নারীকে আনতে পুরুষ যাবে। কারণ নারীরা সম্মানিত।
Total Reply(0)
faruk ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৩:১০ এএম says : 0
Just wondering what happened after the wedding; did the bride took groom to her place and then did "jamai vaat" instead of "Bou Vaat"? what a shame, a ridiculous idea
Total Reply(0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন