বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৩ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

হতাশাময় ম্যাচে রোনালদোর রেকর্ড

প্রকাশের সময় : ১৬ জুন, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্পোর্টস ডেস্ক : এমনিতেই ম্যাচটিকে ঘিরে খুব বেশি আগ্রহ থাকার কথা না। তারপরও পর্তুগাল-আইসল্যান্ডের ম্যাচটি প্রদীপের নীচে ছিল শুধুই ক্রিশ্চিয়ানো রেনালদোর কারনে। না, রিয়াল তারকা কোন গোল করতে পারেননি, উপরন্তু একের পর এক গোলের সুযোগ নষ্ট করায় তার দিনটা ছিল বিষাদগ্রস্থ, এমনকি দলও জেতেনি। প্রথমবারের মত আসরের মূলপর্বে সুযোগ পাওয়া দলের বিপক্ষে তার দল ড্র করেছে ১-১ গোলে। এরপরও দিনটাকে রোনালদো মনে রাখবেন অন্য কারনে। পর্তুগালের জার্সি গায়ে এটি ছিল তার ১২৭তম ম্যাচ। সমসংখ্যক ম্যাচ খেলে দেশের হয়ে এতদিন সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলার রেকর্ডের অধিকারী ছিলেন সাবেক তারকা লুইস ফিগো। আর একটি ম্যাচ খেললে রেকর্ডটি হবে রোনালদোর একার।
স্কোর-লাইন ঢেকে দিলে পুরো ম্যাচে কতৃত্ব করে পর্তুগালই। এরপরও দিনশেষে হতাশাই তাদের সাক্ষী। আইসল্যান্ড ব্যস্ত ছিল পর্তুগিজদের আক্রমণ প্রতিহত করতে। প্রথমার্ধে রোনালদোর বাড়ানো বলে সাবেক ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড স্ট্রাইকার নানি হেডের মাধ্যমে জালে পাঠান। এর কিছুক্ষণ পর গোলরক্ষককে একা পেয়েও গোল করতে পারেননি রোনালদো। গোলের জন্যে মরিয়া দলকে চমকে দিয়ে দ্বিতীয়াধের শুরুর দিকে অসাধারণ এক পাল্টা আক্রমণ থেকে আইসল্যান্ডকে সমতায় ফেরান বিরকির বিয়ারনাসন। এছাড়া পুরো ম্যাচটি যেন ছিল রোনালদোর গোল মিসের মহড়াক্ষেত্র। আইসল্যান্ডের পোষ্টে পর্তুগিজদের নেয়া ২৪টি শটের ১০টি-ই রোনালদোর নেওয়া! নিজেদের গ্রুপের সবচেয়ে সহজ প্রতিপক্ষের বিপক্ষে এমন হতাশাজনক ফলের জন্য হতাশা প্রকাশ করেছেন রোনালদো। ম্যাচ শেষে আইসল্যান্ডের অতিরিক্ত রক্ষণাত্মক খেলারও সমালোচনা করেন তিনি, ‘গোলপোস্টের সামনে বিশাল একটা বাস পার্ক করে রেখেছিল আইসল্যান্ড। দলটি জেতার কোন চেস্টাই করেনি। কেবল আক্রমণ ঠেকিয়েছে।’ ক্ষুব্ধ রোনালদো প্রতিপক্ষের খেলায় বিরক্তি প্রকাশ করে এভাবে, ‘খুব জোর বেঁচে গেছে আইসল্যান্ড, আমরা হতাশ। দলটি মাঠে কোনকিছুই করতে চাইনি। এজন্য আমি মনে করি প্রতিযোগিতায় তার বেশিদূর এগুতে পারবে না। আমার মতে এটি সংকীর্ণ ভাবনারই বহিঃপ্রকাশ।’
সে রোনালদো যাই বলুন না কেন আসরের নবীন একটা দল তাদের মত প্রতিপক্ষের কাছ থেকে এক পয়েন্ট ছিনিয়ে নিল, সেটাও তো একটা ফুটবলীয় কৌশল। এমনকি তাদের কাছে সেটা জয়ের সমান। ঠিক যেনটি বলেন আইসল্যান্ড কোচ হেইমির হালগ্রিমসন, ‘ম্যাচে আমাদের রক্ষণ দারুণ হয়েছে। আমরা খুব গুছিয়ে রক্ষণের কাজটা করতে পেরেছি। পুরো ম্যাচে দলের সবাই খুব খেটে খেলেছে। দু’একটি পরিস্থিতি বাদে পুরো দল খুব প্রত্যয়ী ছিল। এই ড্র সত্যিই আমাদের কাছে জয়ের সমানই।’ একই গ্রুপের আগের ম্যাচে অস্ট্রিয়ার বিপক্ষে ২-০ গোলের জয় পায় হাঙ্গেরি।
গতকাল দিনের প্রথম ম্যাচে সেøাভাকিয়ার কাছে ২-১ গোলে হারায় আসর থেকে বিদায় নিশ্চিত হয়েছে রাশিয়ার।
একনজরে ফল
পর্তুগাল ১ : ১ আইসল্যান্ড
হাঙ্গেরি ২ : ০ অস্ট্রিয়া
রাশিয়া ১ : ২ স্লোভাকিয়া

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন