ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬, ১৪ সফর ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

বাংলাদেশের উদ্বেগ উপেক্ষা করা ঠিক হবে না : দ্য হিন্দু

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০২ এএম

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরের খবর ভারতীয় গণমাধ্যমে গুরুত্ব দিয়ে প্রকাশিত হয়েছে। নাগরিকপঞ্জি নিয়ে বাংলাদেশের উদ্বেগ উপেক্ষা করা একেবারেই ঠিক হবে না বলে এক সম্পাদকীয়তে লিখেছে ‘দ্য হিন্দু’।
‘বেস্ট ফ্রেন্ডস ফর নাও: অন নিউ দিল্লি-ঢাকা টাইজ’ শীর্ষক এই সম্পাদকীয়তে তিস্তা চুক্তির ব্যাপারে এখনও কোনো অগ্রগতি না হওয়াকে ব্যর্থতা হিসেবে দেখানো হয়েছে। এজন্য পশ্চিমবঙ্গ ও কেন্দ্রীয় সরকারের মধ্যে উত্তেজনাকে দায়ী করা হয়েছে। নাগরিকপঞ্জি সম্পর্কে দ্য হিন্দু লিখেছে, নতুন দিল্লি ও নিউইয়র্কে বৈঠকের সময় বাংলাদেশ নাগরিকপঞ্জি নিয়ে যে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে, সে বিষয়টিও ভারতীয় সরকারের উপেক্ষা করা একেবারেই ঠিক হবে না।

এদিকে কলকাতার প্রভাবশালী আনন্দবাজার পত্রিকা লিখেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরের মধ্য দিয়ে নরেন্দ্র মোদি ও শেখ হাসিনা তাদের নতুন ইনিংসে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার এক নতুন অধ্যায় শুরু করলেন। ‘সাত চুক্তি সই করল ঢাকা-দিল্লি’ শিরোনামের খবরে পত্রিকাটি ক‚টনীতিকদের বরাত দিয়ে লিখেছে, ভারত গত পাঁচ বছরে ধারাবাহিকভাবে একটি মাত্র প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে সুসম্পর্ক ধরে রেখেছে, সেটা বাংলাদেশ। স্ব^াক্ষরিত চুক্তিগুলোর মধ্যে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় চট্টগ্রাম ও মংলা বন্দর ব্যবহারের অনুমতি পাওয়ার বিষয়টি সর্বাপেক্ষা গুরুত্ব দিতে চাইছে বলে জানিয়েছে আনন্দবাজার পত্রিকা। গুরুত্বের দিক দিয়ে এরপরেই আছে ফেনী নদীর চুক্তি। এর ফলে ত্রিপুরার সাব্রæম মহকুমার মানুষ আর্সেনিকযুক্ত পানীর পরিবর্তে বাংলাদেশের ফেনী নদীর পানি পান করতে পারবেন বলে পত্রিকা বলছে।
এদিকে, ‘টাইমস অফ ইন্ডিয়া’ রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফিরে যাওয়ার ব্যাপারে বাংলাদেশের সহায়তা চাওয়ার বিষয়টি শিরোনাম করেছে। প্রতিবেদনে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রসচিব শহিদুল হকের একটি মন্তব্য উল্লেখ করা হয়েছে। তিনি দুই দেশের সম্পর্ককে ‘বেস্ট অফ রিলেশন্স’ বলেছেন। একই পত্রিকা আরেক প্রতিবেদনে আসামের নাগরিকপঞ্জি নিয়ে বাংলাদেশের উদ্বেগ প্রকাশের বিষয়টি তুলে ধরেছে। দুই দেশের আলোচনার সময় এই বিষয়টি এক টুকরো বিব্রতকর পরিস্থিতি নিয়ে আসে বলে পত্রিকাটি জানাচ্ছে। তবে বিষয়টি ভারতের ‘অভ্যন্তরীণ’ ব্যাপার বলে নরেন্দ্র মোদি শেখ হাসিনাকে আশ্বস্ত করেছেন বলেও জানাচ্ছে ‘টাইমস অফ ইন্ডিয়া’।

‘ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস’ পত্রিকার বাংলা সংস্করণে সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বৈঠকের খবর প্রকাশিত হয়েছে। এই সময় শেখ হাসিনা বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর প‚র্তি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে সোনিয়া, রাহুল ও প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে আমন্ত্রণ জানান বলে পত্রিকাটি জানিয়েছে। সোনিয়া গান্ধী হাসিনার আমন্ত্রণ গ্রহণ করেছেন বলেও জানাচ্ছে পত্রিকাটি। সূত্র: ডয়চে ভেলে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (5)
Md Mostafizur Rahman ৯ অক্টোবর, ২০১৯, ৩:০০ এএম says : 0
গত দশ বছরে ভারতের সাথে কি কি চুক্তি হয়েছে তা জনগনের জানার জন্য পূর্নাঙ্গ বিবরনসহ জাতীয় পত্রিকায়গুলোতে দেয়া হোক।
Total Reply(0)
বিদ্যুৎ মিয়া ৯ অক্টোবর, ২০১৯, ৩:০১ এএম says : 0
আসবে সুদিন ............। অপেক্ষায় বাংলাদেশ।
Total Reply(0)
Rafiqul Alam ৯ অক্টোবর, ২০১৯, ৩:০২ এএম says : 0
তিস্তার ন্যায্য পাওনা থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে বাংলাদেশকে। দীর্ঘ দশ বছর ধরে তদবির করেও দিল্লির মন গলানো যায়নি। এর চেয়ে অমানবিক আচরণ আর কি হতে পারে ?
Total Reply(0)
Hassan ৯ অক্টোবর, ২০১৯, ৩:০৩ এএম says : 0
আর কোনো দিন তিস্তা চুক্তি হবে না। ভারত না দিলে কেমন করে হবে?
Total Reply(0)
আবেদ খান ৯ অক্টোবর, ২০১৯, ৩:০৩ এএম says : 0
‘দ্য হিন্দু’কে ধন্যবাদ
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন