ঢাকা, শুক্রবার, ০৭ আগস্ট ২০২০, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৬ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

তিউনিসিয়ার নির্বাচনে সর্বোচ্চ আসন ইসলামপন্থী দলের

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১১ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:৩৫ পিএম

তিউনিসিয়ার ইসলামপন্থী দল আন নাহদা আইনসভা নির্বাচনে শীর্ষে উঠে এসেছে। এই দলকে মুসলিম ব্রাদারহুডের তিউনিসিয়ার শাখাও বলা হয়ে থাকে। তবে এককভাবে সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনের চেয়ে পাওয়া আসন সংখ্যা অনেক কম হয়ে গেছে বলে প্রাথমিক ফলাফলে জানা গেছে। নির্বাচন কমিশন গত বুধবার জানিয়েছে, রশিদ ঘানুশির দল রোববারের নির্বাচনে ২১৭টি আসনের মধ্যে ৫২টিতে জয়লাভ করেছে। অথচ সরকার গঠনের জন্য ১০৯টি আসন প্রয়োজন। যদিও আন নাহদা প্রথম স্থান অর্জন করেছে, তবে ২০১৪ সালের পার্লামেন্ট নির্বাচনের চেয়ে ১৭টি আসন কম পেয়েছে।

বুধবারের শেষের দিকে নির্বাচন কমিশন ঘোষণা করেছিল, দীর্ঘ দিন ধরে আন নাহদার নেতৃত্ব দানকারী ঘানুশি তিউনিসের একটি আসন জিতেছেন। এর আগে কখনো তিনি নির্বাচনে প্রার্থী হননি। মিডিয়া মুঘল ও প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী নাবিল কারুইর সদ্য গঠিত কালব তিউনিস (হার্ট অফ তিউনিসিয়া) দল ৩৮টি আসন নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে।
নির্বাচনের প্রাথমিক ফলাফল ঘোষণার মাত্র কয়েক ঘণ্টা আগে কারুই জেল থেকে মুক্তি পেয়েছেন। ক্যাসেশনের আদালত তার বিরুদ্ধে আটকাদেশ বাতিল করে দেয়, যে আদেশ বলে তাকে কারাগারে আটকে রাখা হয়েছিল। এখনো অবধি কারুইকে তার স্ত্রী ও টেলিভিশনকে ব্যবহার করে প্রেসিডেন্ট হওয়ার জন্য পরোক্ষভাবে প্রচারণা চালাতে হয়েছে। পার্লামেন্টের ভোট গ্রহণের আগে আন নাহদা ও কালব তিউনিস আনুষ্ঠানিকভাবে জোট গঠনের বিষয়টি প্রত্যাখ্যান করেছিলেন। রাজনৈতিক দল দু’টিই আন্দোলনে এগিয়ে থাকার আশায় দীর্ঘ ও জটিল আলোচনার জন্য প্রস্তুত হয়েছিল।

যেকোনো ধরনের রাজনৈতিক অচলাবস্থার ফলে তিউনিসিয়ায় সরকার গঠনে সঙ্কটের তীব্রতা বাড়বে। এর ফলে সরকারের বিশাল ঋণের বোঝা ও ১৫ শতাংশ বেকারত্বসহ দীর্ঘস্থায়ী অর্থনৈতিক সমস্যা সমাধানের প্রচেষ্টা আরো জটিল হবে। তিউনিসিয়ার ২০১১ সালের বিপ্লব থেকেই আন নাহদা একাধিক শাসক জোটের সদস্য ছিল। তবে সেসব নতুন গণতান্ত্রিক সরকার মানুষের জীবনমান উন্নয়নে বা জনসেবা নিশ্চিত করায় ব্যর্থ হয়েছে।

মানবাধিকার কর্মী মোহাম্মদ আব্বুর সোস্যাল-ডেমোক্র্যাটিক আত্তায়ার পার্টি ২২টি আসন পেয়েছে এবং জনপ্রিয় আইনজীবী সিফ এ দিন মাখলুফের করামা পার্টি ২১টি আসন পেয়েছে। এ দিকে কট্টরপন্থী ইসলামবিরোধী ফির ডেস্টোরিয়ান পার্টি ১৭টি আসন পেয়েছে এবং দলটি থেকে তিউনিসের একমাত্র নারী সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।
নির্বাচন কমিশন টেলিভিশন বিবৃতিতে ঘোষিত ফলাফলগুলো এখনো চূড়ান্ত হয়নি। প্রাথমিক ফলাফলটি রোববার প্রকাশিত একটি বুথফেরত জরিপের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। ওই জরিপে আন নাহদা প্রথম এবং কালব তিউনিস দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল।

সূত্র : আলজাজিরা ও রয়টার্স

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন