ঢাকা, শুক্রবার , ২২ নভেম্বর ২০১৯, ০৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

বক্তব্য দিতে পারলেন না লাম

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০২ এএম

পার্লামেন্টে তীব্র বিরোধিতার মুখে বার্ষিক বক্তব্য স্থগিত করতে বাধ্য হলেন হংকংয়ের নেতা ও প্রধান নির্বাহী ক্যারি লাম। বুধবার লেজিসলেটিভ কাউন্সিল হিসেবে পরিচিত সেখানকার পার্লামেন্টে তিনি এর সদস্যদের তীব্র বিরোধিতার মুখে পড়েন। বিরোধী দলীয় সদস্যরা ব্যাপক হট্টগোল সৃষ্টি করেন। তারা চিৎকার করতে থাকেন। ক্যারি লামকে নিয়ে তারস্বরে সেøাগান দিতে থাকেন। প্রথম দফায় তিনি বক্তব্য দেয়ার চেষ্টা করলে তাতে এ জন্য বিঘ্ন ঘটে। এরপর অধিবেশন আবার শুরু হতে গেলে আবারও একই অবস্থার শিকারে পরিণত হন তিনি। এ সময় পার্লামেন্টে বক্তব্য দেয়া স্থগিত করে ভিডিও লিঙ্কের মাধ্যমে তিনি বক্তব্য তুলে ধরেন পার্লামেন্টের ওয়েবসাইটে। বিবিসি লিখেছে, এর অর্থ হলো প্রত্যাবাসন বিষয়ক যে বিল নিয়ে কয়েক মাস ধরে হংকংয়ে বিক্ষোভ হচ্ছে তা আনুষ্ঠানিকভাবে প্রত্যাহার করা নাও হতে পারে। জুলাইয়ে তীব্র বিরোধিতার মধ্যে ওই বিলটি স্থগিত করা হয়। ওই সময়ের কড়া বিক্ষোভের পর প্রথমবারের মতো আজ বুধবার লেজিসলেটিভ কাউন্সিলের অধিবেশন বসে। এই অধিবেশনেই সবাই মিলে ওই বিলটি প্রত্যাহার করার সুযোগ ছিল। কিন্তু প্রধান নির্বাহী ক্যারি লাম অধিবেশন শুরু হতেই তার বক্তব্য দেয়া শুরু করতে যান। এ সময় বিরোধী দলীয় সদস্যরা চিৎকার চেচামেচি করতে থাকেন। তাদের অনেকে টেবিলের ওপর উঠে যান। এ সময় তারা ‘পাঁচটি দাবি- একটিও কম নয়’ বলে সেøাগান দিতে থাকেন ক্যারি লামের চারপাশে দেয়ালের বাইরে। বিক্ষোভ শুরু হওয়ার পর থেকেই তারা বিলের বিপরীতে ৫টি মূল দাবি উত্থাপন করতে থাকেন। এর মধ্যে রয়েছে সার্বজনীন ভোটাধিকার। বিরোধী দলীয় সদস্য তানিয়া চ্যান হংকংয়ের সঙ্কটের জন্য দায়ী করেন ক্যারি লামকে। তিনি বলেন ক্যারি লামের দুই হাত রক্তে রঞ্জিত। আমরা চাই ক্যারি লামের প্রত্যাহার ও পদত্যাগ। তার সরকার চালানোর মতো কোনো সক্ষমতা নেই। প্রধান নির্বাহী হওয়ার মতো যোগ্যতাসম্পন্ন নন তিনি। এখানে উল্লেখ্য, এবারই প্রথম পার্লামেন্টে পলিসি উত্থাপনে ব্যর্থ হলেন হংকংয়ের কোনো নির্বাহী। তবে ক্যারি লামকে যারা বাধা দিয়েছেন তাদের নিন্দা প্রকাশ করেছেন সরকারপন্থিরা। রয়টার্স, বিবিসি, সিএনএন।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন