ঢাকা, বুধবার , ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৩ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

প্রত্যাবর্তনে লিটনের সেঞ্চুরি, মাহমুদউল্লাহর অপেক্ষা

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০২ এএম

জাতীয় ক্রিকেট লিগের (এনসিএল) তৃতীয় দিনে দুর্দান্ত শতকের দেখা পেয়েছেন লিটন দাস। ঢাকা বিভাগের বিপক্ষে ১৩৩ বলে সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন জাতীয় দলের এই ব্যাচসম্যান। ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ খেলে আসার পর জাতীয় লিগে ফিরেই নিজের ১৪তম শতক তুলে নেন রংপুর বিভাগের হয়ে খেলা এই তারকা। অন্য ম্যাচে ঢাকা মেট্রোকে পথ দেখানো মাহমুদউল্লাহ দিনশেষে অপরাজিত আছেন ৯৫ রানে। মাত্র ৫ রানের আক্ষেপ নিয়ে মাঠ ছেড়েছেন তিনি। আজ এখান থেকেই শুরু করবেন জাতীয় দলের এই নিয়মিত মুখ।

গতকাল এনসিএলের প্রথম স্তরের দুই ম্যাচে স্বাগতিক খুলনা বিভাগকে ১২৩ রানের জয়ের লক্ষ্য ছুঁড়ে দিয়েছে রাজশাহী বিভাগ। অন্যদিকে ঢাকা বিভাগের রানের পাহাড়ের বিপরীতে লড়াই করছে রংপুর বিভাগ। জয়ের লক্ষ্যে তৃতীয় দিন শেষে খুলনার সংগ্রহ ১ উইকেটের বিনিময়ে ১৫ রান। আর চট্টগ্রামে লড়াই চলছে ঢাকা বিভাগ এবং রংপুর বিভাগের মধ্যে।

খুলনার শহীদ শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ২৬১ রান তোলে রাজশাহী। জবাবে প্রথম ইনিংসে ৪৮ রান লিড নেয় স্বাগতিক খুলনা। প্রথম ইনিংসে ইমরুল কায়েসের ৯৩ রানের ওপর ভর করে স্বাগতিকরা তোলা ৩০৯ রান। দ্বিতীয় ইনিংসে ৪৮ রানে পিছিয়ে থেকে ব্যাটিং শুরু করে মুশফিকুর রহিমরা।

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে তৃতীয় দিনে সফরকারীরা অল আউট হয় ১৭০ রানে। এর আগে তৃতীয় দিনের শুরুতে নুরুল হাসান সোহানের অপরাজিত ৯৭ রানে ৩০৯ রান তোলে স্বাগতিক খুলনা। অপরপ্রান্তের ব্যাটসম্যানরা সমর্থন দিতে না পারায় শতক থেকে ৩ রান দূরে থামে সোহানের ইনিংস।

খুলনায় দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ওপেনার মিজানুর রহমানকে ফিরিয়ে দেন মুস্তাফিজুর রহমান। এরপর রাজশাহীর স্কোরবোর্ডে ১৫ রান যোগ করতেই আর এক ওপেনার জুনাইয়েদ সিদ্দিকীকে ফেরান দীর্ঘদিন পরে জাতীয় দলে ডাক পাওয়া আল-আমিন। দলীয় সংগ্রহ ২৯ হতে টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান ফরহাদ হোসেনের উইকেটও তুলে নেন আল-আমিন।

এরপর মুশফিকুর রহিম এবং নাজমুল হোসেন শান্ত ৮৪ রানের জুটি গড়ে প্রাথমিন বিপর্যয় সামাল দেন। শান্ত ৫৭ রান করে আব্দুর রাজ্জাকের শিকার হন। এরপর মুশফিকের (৪৪) তুলে নেন রাজ্জাক। শেষ দিকে আর তেমন কেউই উইকেটে থিতু হতে পারেনি। আর এতেই রাজশাহী বিভাগ অল আউট হয় ১৭০ রানে। খুলনার হয়ে ৪টি করে উইকেট তুলে নেন আল-আমিন এবং আব্দুর রাজ্জাক। খুলনার সামনে জয়ের লক্ষ্য দাঁড়ায় ১২৩। দিন শেষে ১ উইকেট হারিয়ে ১৫ রান তোলে খুলনা। ইনিংসের শুরুযতেই মাত্র ৪ রান করে আউট হয়ে ফিরে যান আনামুল হক বিজয়। তৃতীয় দিন শেষে উইকেটে অপরাজিত আছেন সৌম্য সরকার (০) এবং ইমরুল কায়েস (১১)।

অন্যদিকে চট্টগ্রামে সাইফ হাসানের ডাবল সেঞ্চুরিতে ৫৫৬ রানের পাহাড় গড়ে ঢাকা বিভাগ। জবাবে দ্বিতীয় দিনে দুই উইকেট হারালেও তৃতীয় দিনে দারুণ সূচনা করেন লিটন দাস এবং নাইম ইসলাম। দুইজনই তুলে নেন শতক। লিটন ১২২ রানে আউট হয়ে ফিরে যান। এটি লিটনের প্রথম বিভাগ ক্রিকেটের ১৪তম শতক ছিল।

লিটনের আউটের পর রংপুরের হাল ধরেন নাইম ইসলাম। ১২৪ রান করে তৃতীয় দিনে অপরাজিত থেকে দিন শেষ করেছেন নাইম ইসলাম। লিটন (১২২) রানে আউট হয়ে ফিরে গেলে তার দেখানো পথেই হাটে রংপুরের অধিনায়ক নাসির হোসেন। নাসির মাত্র ১ রান করে ফিরে যান। আর এরপরেই আরিফুল হক (১৭)। তবে অলরাউন্ডার তানবির হায়দার অর্ধশতক করে নাইম ইসলামকে সমর্থন যোগান। তৃতীয় দিন শেষে রংপুরের সংগ্রহ ৫ উইকেটের বিনিময়ে ৩৩৪ রান। ঢাকা বিভাগের থেকে ২২২ রানে পিছিয়ে থেকে চট্টগ্রামে চতুর্থ দিন এবং শেষ দিন শুরু করবে রংপুর।

স ং ক্ষি প্ত স্কো র (৩য় দিন শেষে)
ঢাকা বিভাগ ১ম ইনিংস: ৫৫৬/৮ (ডিক্লে.)
রংপুর বিভাগ ১ম ইনিংস: ১০৮ ওভারে ৩৩৪/৫ (লিটন ১২২, হামিদুল ৯, মাহমুদুল ০, নাঈম ১২৪*, নাসির ১, আরিফুল ১৭, তানবীর ৫২*; সুমন ২/৭০, শাকিল ২/৭৭, নাজমুল অপু ১/১০৪)

ঢাকা মেট্রো ১ম ইনিংস: ২৪৬ ও ২য় ইনিংস: ৯৭ ওভারে ২২৫/৬ (নাঈম ১০, রাকিন ১৪, শামসুর ১৭, আল আমিন ১৩, মাহমুদউল্লাহ ৯৫*, জাবিদ ২৫, আমিনুল ১০, শহিদুল ২৯*; আবু জায়েদ ০/৩১, রাহাতুল ১/২৪, ইমরান ২/৩৫, এনামুল জুনিয়র ২/৭৩)

সিলেট ১ম ইনিংস: ৩১৯
রাজশাহী ১ম ইনিংস : ২৬১ ও ২য় ইনিংস : ১৭০ (শান্ত ৫৭, মুশফিক ৪৪, সানজামুল ২৫, শফিউল ১০; মুস্তাফিজ ২/১৮ আল আমিন ৪/১৭, রাজ্জাক ৪/৫২)
খুলনা (১ম ইনিংস) ৩০৯ ও খুলনা (২য় ইনিংস) ১৫/১ (এনামুল ৪, ইমরুল ১১*, সৌম্য ০*; শফিউল ১/১১)

চট্টগ্রাম বিভাগ ১ম ইনিংস- ৩৫৬ চট্টগ্রাম ২য় ইনিংস- ৫০/১ (১৯ ওভার) (পিনাক ৩০*, ইরফান ১১, মুমিনুল ৯*; আশরাফুল ১/১৯)
বরিশাল বিভাগ ১ম ইনিংস- ২১৬ (৮২.৩ ওভার) (নাফিস ১৭, রাফসান ৪৯, রাব্বি ১৪, আশরাফুল ২১, নুরুজ্জামান ৬০,; রানা ২/৬৪, নোমান ২/৩৫, নাইম ৪/৬২, আফ্রিদি ২/২৬)

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন